• মঙ্গলবার, ০২ মার্চ ২০২১, ০৬:৪০ পূর্বাহ্ন
Headline
গাইবান্ধা ফুলছড়িতে আওয়ামীলীগের নেতা লাল মিয়া সরকারের খুনিদের দ্রুত গ্রেফতারের দাবিতে সড়কে বিক্ষোভ অবরোধ জামালপুরের তিনটি পৌরসভা নির্বাচনে নৌকার বিজয়! জয়পুরহাটে দ্বিতীয় বারের মতো পৌর পিতা হলেন- মেয়র মোস্তাক ২০০০ ব্যাগ রক্তদান কর্মসূচি সম্পন্ন করেছেন নেছারাবাদ   ব্লাড ডোনার্স ক্লাব কেক শুভেচ্ছা জানানো হয় শান্তিপূর্ণ পরিবেশে অনুষ্ঠিত হলো জয়পুরহাট পৌরসভা নির্বাচন”পুনরায় নির্বাচনের দাবী বিএনপির কোরআনের পাখি ইমন ব্লাড ক্যান্সারে আক্রান্ত, ব্যয়বহুল খরচ চালাতে অক্ষম, সাহায্যের আবেদন “পরিচ্ছন্ন বাংলাদেশ গড়তে বিডি ক্লিন – উলানিয়া সদস্যদের ভূমিকা” বেনাপোলে সাংবাদিক বুরহান উদ্দিন মুজাক্কির হত্যাকান্ডের প্রতিবাদে মানববন্ধন! সাংবাদিক হত্যা ও নির্যাতনের প্রতিবাদে ২ মার্চ দেশব্যাপী কলমবিরতি ঘোষণা নওগাঁর বদলগাছীতে ছাগল কিনতে এসে গৃহবধূকে  হাত মুখ বেধে ধর্ষণের চেষ্টা !

ভ্যাকসিন তৈরিতে প্রাণ যেতে পারে ৫ লাখ হাঙ্গরের !

Reporter Name / ১৩০ Time View
Update : সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০
ভ্যাকসিন তৈরিতে প্রাণ যেতে পারে ৫ লাখ হাঙ্গরের !
ভ্যাকসিন তৈরিতে প্রাণ যেতে পারে ৫ লাখ হাঙ্গরের !

মহামারি করোনার একটি প্রতিষেধক তৈরির জন্য যখন বিশ্বজুড়ে চলছে তীব্র প্রতিযোগিতা, তখন বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞদের কপালে একটি শঙ্কা চিন্তার ভাঁজ ফেলেছে। তাদের শঙ্কা, করোনার ভ্যাকসিন তৈরির জন্য প্রাণ দিতে হতে পারে প্রায় পাঁচ লাখ হাঙ্গরকে।

মার্কিন সংবাদমাধ্যম স্কাই নিউজের খবরে প্রকাশ, ভ্যাকসিন তৈরির যে চেষ্টা চলছে, সেগুলোর কয়েকটিতে স্কোয়ালিন নামে এক ধরনের উপাদান ব্যবহার করা হচ্ছে। স্কোয়ালিন হলো প্রাকৃতিক তেল, যা হাঙরের যকৃতে তৈরি হয়। বর্তমানে ওষুধে সহায়ক হিসেবে ব্যবহৃত হয় এই তেল। শক্তিশালী রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরির মাধ্যমে এই তেল কার্যকারিতা বাড়িয়ে দেয় ভ্যাকসিনের।

ব্রিটিশ ওষুধ প্রস্তুতকারী সংস্থা গ্ল্যাক্সোস্মিথক্লাইন এখন ফ্লু ভ্যাকসিন তৈরির ক্ষেত্রে স্কোয়ালিন ব্যবহার করছে। কোম্পানিটি জানিয়েছে, তারা করোনা ভ্যাকসিনে সম্ভাব্য ব্যবহারের জন্য স্কোয়ালিনের একশো কোটি ডোজ তৈরির লক্ষ্যমাত্র নির্ধারণ করেছে। এক টন স্কোয়ালিন পেতে প্রায় তিন হাজার হাঙরের প্রয়োজন হয়।

ক্যালিফোর্নিয়াভিত্তিক প্রাণী সংরক্ষণ সংস্থা ‘শার্ক অ্যালায়েজ’ হিসাব কষে বলেছে, সমগ্র বিশ্বের জনগোষ্ঠীকে যকৃতের তেলের উপাদানসহ করোনাভাইরাস ভ্যাকসিনের একটা ডোজ দিতেই আড়াই লাখ হাঙ্গর মারা পড়বে।

তবে এ ক্ষেত্রে নির্ভর করছে স্কোয়ালিন কী মাত্রায় ব্যবহার করা হতে পারে। জনগোষ্ঠীকে দ্বিতীয়বার ভ্যাকসিনের ডোজ দিতে গেলে ওই সংখ্যাটা কম বেশি দ্বিগুণ অর্থাৎ ৫ লাখে দাঁড়াবে বলে শঙ্কা তাদের।

অবশ্য হাঙ্গরের সংখ্যা হ্রাস পাওয়ার আশঙ্কার পরিপ্রেক্ষিতে বিজ্ঞানীরা স্কোয়ালিনের বিকল্পও পরীক্ষা করে দেখছেন। বিকল্প হিসেবে আখ থেকে তৈরি সিন্থেটিক স্কোয়ালিন পরীক্ষা করে দেখা হচ্ছে।

শার্ক অ্যালায়াজের প্রতিষ্ঠাতা স্টিফনি ব্রেন্ডিল বলছেন, বন্যপ্রাণীদের মেরে কোনো কিছুর ব্যবহার দীর্ঘস্থায়ী হয় না। বিশেষ করে হাঙরের সংখ্যা খুবই কম। এ জন্য তিনি বিকল্প খোঁজার ওপর জোর দিয়েছেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category