• বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ০৪:১০ অপরাহ্ন

মালদ্বীপস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসে আলোচনা ও পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে ৭ ই মার্চ উদযাপন

/ ২৭ বার পঠিত
আপডেট: শুক্রবার, ৮ মার্চ, ২০২৪

মোঃ আল আমিন, মালদ্বীপ প্রতিনিধি:
যথাযোগ্য মর্যাদায় বাংলাদেশ হাই কমিশন। মালদ্বীপে ঐতিহাসিক ৭ইমার্চ ২০২৪ উদযাপন করা হয়। দিবস উপলক্ষ্যে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মান্যবর হাইকমিশনার রিয়ার এডমিরাল এস এম আবুল কালাম আজাদ। দুতালয়ের কন্সুলার সহকারী জনাব এবাদ উল্লাহর সঞ্চালনায় আজ ৭ ই মার্চ রোজ বৃহস্পতিবার সকাল ১১ টায় আনুষ্ঠানিকভাবে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের শুভ সূচনা করা হয় । অতঃপর স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পন করেন মান্যবর হাইকমিশনার ও অন্যান্য অতিথিবৃন্দ।


এরপর মহামান্য রাষ্ট্রপতি ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী প্রদত্ত বাণী পাঠ করেন যথাক্রমে হাইকমিশনের কাউন্সিলর (শ্রম) ও দূতালয় প্রধান ও অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি মো: সোহেল পারভেজ দুতালয়ের কল্যাণ সহকারী আল মামুন পাঠান। অতঃপর প্রবাসী বাংলাদেশীদের পক্ষ হতে বক্তব্য প্রদান করেন মালদ্বীপ আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব দুলাল মাতবর ও মালদ্বীপের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী (সি আই পি) মোহাম্মদ সোহেল রানা। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মালদ্বীপ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ দুলাল হোসেন।দিবসটি উপলক্ষ্যে নির্মিত একটি প্রামাণ্যচিত্র অনুষ্ঠানে প্রদর্শন করা হয় এবং সবশেষে প্রধান অতিথি মান্যবর হাইকমিশনার তাঁর মূল্যবান বক্তব্য প্রদান করেন। তিনি তাঁর বক্তব্যে গভীর শ্রদ্ধার সাথে স্মরন করেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও বীর মুক্তিযোদ্ধাদের। তিনি ৭মার্চের ঐতিহাসিক ভাষনের প্রেক্ষাপট তুলে ধরেন ও বঙ্গবন্ধুর ঐন্দ্রজালিক ভাষনের বিভিন্ন শিক্ষনীয় দিক উল্লেখ করেন।

তিনি উল্লেখ করেন বঙ্গবন্ধুর এই ভাষন যেমন ৭১এ একত্রিত করেছিল সকল বাঙ্গালীদের তেমনই ভবিষ্যতের যে কোন সঙ্কটে এই ভাষন সবাইকে অনুপ্রাণিত করবে। ইউনেস্কো কতৃক এই ভাষনের বৈশ্বিক স্বীকৃতি আমাদের সকলের জন্য গৌরবের। এই ভাষন আমাদের ভবিষ্যত প্রজন্মকে অনুপ্রাণিত করবে একই সাথে বিশ্বের যেকোন মুক্তিকামী মানুষকে উদ্বেলিত করবে। অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন দোতালয়ের কল্যাণ সহকারী মোঃ জসিম উদ্দিন কন্সুলার সহকারী মোঃ ময়নাল হোসেন সহ অনুষ্ঠানে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক প্রবাসী বাংলাদেশী নাগরিকবৃন্দ অংশগ্রহণ করেন।পরিশেষে আপ্যায়নের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।


আরো পড়ুন