• বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২:৫৬ পূর্বাহ্ন

সংগীতে বিশেষ অবদানের জন্য “কলের গান ষ্টার এ্যাওয়ার্ড- ২০২৩ অনুষ্ঠিত”

/ ২৬ বার পঠিত
আপডেট: মঙ্গলবার, ২৮ নভেম্বর, ২০২৩

রিয়াজুল ইসলাম বাচ্চু, ঝালকাঠি: গতকাল ২৭ নভেম্বর অপরাহ্নে ঢাকা সেগুনবাগিচায় কচি কাঁচার মেলা মিলনায়তনে কলের গান মাল্টিমিডিয়া ও এটিএন বাংলার আয়োজনে বৃহত্তর বরিশাল বিভাগ থেকে সংগীতে বিশেষ অবদানের জন্য বিশিষ্ট গীতিকার, সুরকার, কবি ও কথাসাহিত্যিক ডাঃ জহিরুল ইসলাম বাদল এবং জনপ্রিয় কন্ঠ শিল্পী ও জনপ্রতিনিধি অপরাজিতা মোসাঃ ছালমা বেগম (বাউল ছালমা) “কলের গান ষ্টার এ্যাওয়ার্ড- ২০২৩ পেলেন। এ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশের বিখ্যাত গীতিকার ও সুর হাসান মশিউর রহমান, অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন কলের গান মাল্টিমিডিয়ার পরিচালক বিশিষ্ট গীতিকার ও সুরকার রবিউল হাসান। অনুষ্ঠানে দেশের বিশেষ ব্যাক্তিত্ব গীতিকার, সুরকার, কন্ঠ শিল্পী, কবি ও সাহিত্যিকরা উপস্থিত ছিলেন।

গীতিকার, সুরকার, কবি ও কথাসাহিত্যিক ডাঃ জহিরুল ইসলাম বাদল এর সংক্ষিপ্ত পরিচিতি:-
ঝালকাঠি জেলার উত্তর পিপলিতা গ্রামে ১৯৭৭ সালের ২০ ডিসেম্বর জন্ম গ্রহণ করেন, পিতার নাম মোঃ কাসেম হাওলাদার ও মাতার নাম মোসাঃ সালেহা খাতুন।

মাধ্যমিক স্কুলের ছাত্র জীবন থেকেই লেখা লেখি শুরু করেণ ও নিয়মিত পত্র-পত্রিকায় তার লেখা ছোট গল্প, প্রবন্ধ, ছড়া এবং কবিতা সমূহ প্রকাশিত হয়।

ডাঃ জহিরুল ইসলাম বাদল চিকিৎসা বিজ্ঞান নিয়ে পড়াশোনা করেন, পেশাগত ভাবে একজন চিকিৎসক, তিনি এমবিবিএস সমমানের ডিগ্রী ব্যাচেলার অব আয়ুর্বেদিক মেডিসিন এন্ড সার্জারি (বিএএমএস) পাস করেন এবং রি-প্রোডাকটিভ এন্ড চাইল্ড হেলথ নিয়ে মাষ্টার্স অফ পাবলিক হেলথ (এমপিএইচ) অধ্যয়ন করেন।

ডাঃ জহিরুল ইসলাম বাদলের প্রথম প্রকাশনা ১৯৯৭ সালে প্রকাশিত হয়। তার প্রকাশিত গ্রন্থ মোট ৯ (নয়) টি, নিম্মে গ্রন্থ সমূহের নাম ও প্রকাশকাল উল্লেখ করা হলো-

১/ অরণ্যর হাতছানি, কাব্যগ্রন্থ, প্রকাশ কাল- ১৯৯৭ সাল
২/ বিবর্ণ তুষার, কাব্যগ্রন্থ, প্রকাশ কাল- ২০০৪ সাল
৩/ মেঘনার মাঝি, উপন্যাস, প্রকাশ কাল- ২০০৮ সাল
৪/ অবরুদ্ধ, কাব্যগ্রন্থ, প্রকাশকাল- ২০১৬ সাল
৫/ লোক সুরে জহিরগীতি, গীতিগ্রন্থ, প্রকাশকাল- ২০১৯ সাল
৬/ জহিরগীতি পাঁচমিশালী , গীতিগ্রন্থ, প্রকাশকাল- ২০২২ সাল
৭/ ভাব সাগর, গীতিগ্রন্থ, প্রকাশকাল- ২০২৩ সাল
৮/ মনমাঝি, কাব্যগ্রন্থ, প্রকাশকাল- ২০২৩ সাল
৯/ শত জহিরগীতি, গীতিগ্রন্থ, প্রকাশকাল- ২০২৩ সাল।

ডাঃ জহিরুল ইসলাম বাদল সংঙ্গীতাঙ্গনে গীতিকার ও সুরকার হিসাবে ইতিমধ্যে দেশ বিদেশ থেকে ভুয়সী প্রসংশা অর্জন করেছেন, সাহিত্য চর্চায় দেশ বিদেশ থেকে সরকারি ও বেসরকারি ভাবে বহু সম্মাননায় ভূষিত হয়েছেন।

কন্ঠ শিল্পী ও জনপ্রতিনিধি অপরাজিতা মোসাঃ ছালমা বেগম (বাউল ছালমা) সংক্ষিপ্ত পরিচিতি:-
ঝালকাঠি জেলার রাজাপুর উপজেলায় দক্ষিণ বড়ইয়া গ্রামে ১৭ আগষ্ট ১৯৮৮ সালে জন্ম গ্রহণ করেন। পিতার নাম মোঃ ইয়াকুব আলী ও মায়ের নাম মোসাঃ মমতাজ বেগম।

তিনি ঝালকাঠি জেলা শিল্পকলা একাডেমি, বরিশাল বিভাগীয় শিল্পকলা একাডেমি ও রাজাপুর উপজেলা শিল্পকলা একাডেমিতে সংগীত চর্চা করে দক্ষিণ বাংলায় একজন গুণী সংগীত শিল্পী হিসেবে পরিচিতি অর্জনসহ বহু পুরস্কার ও সম্মাননা সনদ অর্জন করেছেন। মোসাঃ ছালমা বেগম একজন সৃষ্টিশীল গীতিকার ও সুরকার হিসাবে বেশ কিছু গান নির্মাণ করেছেন। তিনি রাজাপুর উপজেলার বড়ইয়া ইউনিয়ন পরিষদের সংরক্ষিত মহিলা আসনের ইউপি সদস্য হিসাবে বর্তমানে কর্মরত আছেন।

মোসাঃ ছালমা বেগম (বাউল ছালমা) একজন দক্ষ সংগঠক, সাংবাদিক ও সমাজকর্মী হিসাবে স্থানীয় ভাবে যথেষ্ট সুনাম অর্জন করেছেন। ঝালকাঠির রাজাপুরে প্রতিষ্ঠীত ছালমা যুব সংস্থা ও শিল্পী গোষ্ঠীর সভাপতির দায়িত্বে নিয়োজিত আছেন, এছাড়াও আন্তর্জাতিক সংগঠন অপরাজিতা নারী নেটওয়ার্কের রাজাপুর উপজেলার সাধারণ সম্পাদক, রাজাপুর উপজেলা যুব মহিলা লীগের সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক ও রাজাপুর সাংবাদিক ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য। তিনি ঝালকাঠি জেলা ও রাজাপুর উপজেলার শ্রেষ্ঠ জয়িতা সম্মাননা অর্জন করেন।

উল্লেখ্য মোসাঃ ছালমা বেগম (বাউল ছালমা) রাজাপুরের বিশিষ্ট সাংবাদিক, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ও সমাজ সেবক মোঃ আলমগীর শরীফের সহধর্মিণী।


আরো পড়ুন