• রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ১০:৩৩ পূর্বাহ্ন

ছাত্রলীগ নেতাকে পিটিয়ে হাসপাতালে পাঠিয়েছে আওয়ামী লীগ কর্মীরা

/ ২৮১ বার পঠিত
আপডেট: শুক্রবার, ৩০ আগস্ট, ২০১৯

আব্দুল ইমরানঃ- নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় ছাত্রলীগ নেতা নুর মোহাম্মদ হিরণকে (২১) হাত-পা বেঁধে বেদম পিটিয়ে হাসপাতালে পাঠিয়েছে আওয়ামী লীগ কর্মীরা। আহত ছাত্রলীগ নেতা হিরণ নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। হিরণ উপজেলার চরএলাহী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সদস্য। ঘটনাটি ঘটে মঙ্গলবার রাতে চরএলাহী বাজারে।

এ ঘটনায় দোষীদের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করার প্রস্তুতি চলছে বলে ভিকটিম হিরণ জানান। আহত ছাত্রলীগ নেতা নুর মোহাম্মদ হিরণ জানান, মঙ্গলবার তিনি তার এক আত্মীয় রিনা মেম্বারের বাড়িতে ব্যবহারের জিনিসপত্র পৌঁছাতে যান। এ সময় পরিকল্পিতভাবে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবদুল গণির ভাই আওয়ামী লীগ কর্মী বাহার, চরএলাহী ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের মেম্বার ও আওয়ামী লীগ কর্মী হেলাল উদ্দিন, রুবেল, মিঠুর নেতৃত্বে কয়েকজন ছাত্রলীগ নেতা হিরণকে আটক করে।

পরে তার হাত-পা বেঁধে বেদম পিটিয়ে জখম করে। এরপর তারা আহত হিরণকে ইভটিজার বলে স্থানীয় কোস্টগার্ডের কাছে হস্তান্তর করে। পরে কোস্টগার্ড তাকে পুলিশে সোপর্দ করে। পরে তদন্তে হিরণের বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা ও পূর্ব পরিকল্পিত সাজানো বলে প্রমাণিত হয় বলে পুলিশ জানায়।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত ইউপি সদস্য হেলালের সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, ছাত্রলীগ নেতা নুর মোহাম্মদ হিরণ খুবই খারাপ প্রকৃতির ছেলে। তাকে পিটিয়ে আহত করার ঘটনার সঙ্গে আমার কোনো সম্পৃক্ততা নেই। আমি তাকে উদ্ধার করে কোস্টগার্ডের হাতে তুলে দেই। কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি মো. আসাদুজ্জামান জানান, আহত হিরণ ও দোষীদের থানায় আনার পর উভয়পক্ষের মধ্যে বিষয়টি নিয়ে সমঝোতা হয়। তবে আহত হিরণ মামলা করলে যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


আরো পড়ুন