• বুধবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ১১:৪০ অপরাহ্ন
Headline
বাউফলে সন্ত্রাসী হামলার শিকার সাংবাদিক হারুনের পাশে বিএমএসএফ কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ পাপুলের আসন শুণ্য এক ডজন নেতার মনোনয়ন পেতে দৌড়ঝাঁপ! লক্ষ্মীপুরে সালিশদারকে কুপিয়ে জখম করার অভিযোগ! গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জে ট্রাক্টরের ধাক্কায় বাইসাইকেল আরোহীর মৃত্যু ! নওগাঁয় বাবার বাড়ি থেকে স্বামীর বাড়ি যাওয়ার কথা বলে সন্তানসহ উধাও গৃহবধূ ! নোয়াখালীতে সাংবাদিক বুরহান উদ্দিন হত্যার প্রতিবাদে কুমিল্লায় মানবন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত দেওয়ানগঞ্জ পৌর নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দুই বিদ্রোহী প্রার্থীকে দল থেকে বহিষ্কার রাস্তার কাজে অনিয়ম কাজ বন্ধ করলেন ইউএনও ৪ দিনের নবজাতক শিশুর লাশ হাসপাতালে রেখে লাপাত্তা বাবা-মা বানারীপাড়ায় শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী সাবেক কাউন্সিলর আনোয়ার হোসেন ৪০০ পিস ইয়াবাসহ আটক!

বানারীপাড়া ব্রাহ্মণকাঠির অশীতিপর বৃদ্ধ আলফাজ সরদারের জীবন সংগ্রাম…

Reporter Name / ২২৩ Time View
Update : বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর, ২০২০
বানারীপাড়া ব্রাহ্মণকাঠির অশীতিপর বৃদ্ধ আলফাজ সরদারের জীবন সংগ্রাম...
বানারীপাড়া ব্রাহ্মণকাঠির অশীতিপর বৃদ্ধ আলফাজ সরদারের জীবন সংগ্রাম...

রিপোর্টার সুমন খান : “ঝালাইকার” হিসেবেই তাকে সবাই চেনে। তিনি অশীতিপর বৃদ্ধ আলফাজ উদ্দিন সরদার। বয়স প্রায় নব্বই ছুঁই ছুঁই। বানারীপাড়া পৌর শহরে থানা ও প্রধান ডাকঘরের সামনের ফুটপাতে ৩৮ বছর ধরে লোহার/প্লাস্টিকের তৈরি গৃহস্থালির ভাঙাচোরা জিনিসপত্র ঝালাইয়ের কাজ করছেন তিনি। আগে লোহা-লক্কর ও রাবারের জুতা-স্যান্ডেলের কাজও করতেন। এখন আর লোহা-লক্কর ও জুতো-স্যান্ডেল কেউ নিয়ে আসে না। এখন শুধু প্লাস্টিকের ব্যবহার্য জিনিসপত্রই ঝালাই করেন।

তাও আবার সংখ্যায় খুবই নগন্য। কারণ প্লাস্টিকের কোনো কিছু ভেঙে গেলে মেরামত করে আর কেউ ব্যবহার করতে চান না।এ কাজ এখন বিলুপ্তির পথে। লোহার/প্লাস্টিকের তৈরি গৃহস্থালির ভাঙাচোরা জিনিসপত্র ঝালাইয়ের কাজ সুনিপুনভাবে করে জোড়া লাগাতে পারলেও নিজের পোড়া কপাল জোড়া লাগাতে পারেননি তিনি। তাইতো জীবনের শুরু থেকে শেষ বেলায় এসেও দুমুঠো ভাতের জন্য জীবিকার প্রয়োজনে তাকে ফুটপাতে ঝালাইকার হিসেবে লড়াই-সংগ্রাম চালিয়ে যেতে হচ্ছে। এ প্রসঙ্গে আলফাজ উদ্দিন সরদার জানান,এখন আর আগের মতো আয় হয় না। প্রতিদিন ৫০টাকা থেকে ১০০টাকা আবার কখনো কখনো ২০০টাকাও আয় হয়।

আগে যখন লোহা-লক্কর ঝালাইয়ের কাজ করতেন তখন ৬০০ থেকে ৭০০টাকা আয় হতো। সামান্য এ আয়েই স্ত্রী পরিজন নিয়ে তার অনাহারে-অর্ধাহারে মানবেতর জীবন চলে। সংসারে তার নুন আনতে পান্তা ফুরায় অবস্থা। ছেলে-মেয়েরাও যার যার সংসার নিয়ে ব্যস্ত। আলফাজ উদ্দিন সরদারের বাড়ি বানারীপাড়া সদর ইউনিয়নের ব্রাহ্মণকাঠি গ্রামে। স্ত্রী, ২ ছেলে, ৩ মেয়ে রয়েছে তার। তিনি আর্থিকভাবে নিতান্তই অস্বচ্ছল। বয়সের ভারে একদম ন্যূজ। চলতে ফিরতে কষ্ট হয়। শারীরিক অবস্থাও ভালো না। কিডনির সমস্যা ও শ্বাসকষ্টে ভুগছেন তিনি। অনেকটা কংকালসারে পরিণত হয়েছে তার শরীর। নিয়মিত ঔষধ খেতে হয় তাকে। ঔষধ কেনার টাকা নেই তার। টাকার অভাবে চিকিৎসাও করাতে পারছেন না। তিনি সমাজের বিত্তবানদের কাছে সাহায্যের অনুরোধ জানিয়েছেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category