• সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ০৯:২৮ পূর্বাহ্ন

তথ্য চাওয়ায় সাংবাদিককে গ্রেপ্তারের পর ছেলেকেও শাসালেন ইউএনও

/ ৪২ বার পঠিত
আপডেট: সোমবার, ১১ মার্চ, ২০২৪

ইহাকেই বলা হয় ক্ষমতার অপব্যবহার, দেশে তথ্য প্রবাহের অবাধ স্বাধীনতা ঘৃণ্য রূপও এটাই

তথ্য চাওয়ায় সাংবাদিককে গ্রেপ্তারের পর ছেলেকেও শাসালেন ইউএনও, শেরপুরের নকলা উপজেলায় শফিউজ্জামান রানা নামে এক সাংবাদিককে ছয় মাসের কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। গত মঙ্গলবার (৫ মার্চ) উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) কার্যালয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে এ কারাদণ্ড দেন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. শিহাবুল আরিফ। এসময় ইউএনও সাদিয়া উম্মুল বানিন ওই সাংবাদিকের ছেলে শাহরিয়ার মাহিনকে ‘তোর বাপের মতো তুইও চোর হতে যাচ্ছিস’ এমন কথা বলেছেন বলে অভিযোগ করেছেন গ্রেপ্তার সাংবাদিকের ছেলে শাহরিয়ার জামান মাহিন।

শেরপুর জেলা ও দায়রা জজ আদালতের সামনে দৈনিক দেশ রূপান্তরের নকলা উপজেলা সংবাদদাতা শফিউজ্জামান রানার ছেলে শাহরিয়ার জামান মাহিনের (১৫) সঙ্গে কথা বললে তিনি এ কথা জানান।

শাহরিয়ার জামান মাহিন বলেন, সেদিন বাবার সঙ্গে আমিও গিয়েছিলাম, আব্বু তথ্যের জন্য একটি কাগজ নিয়ে গিয়েছিলেন। কাগজ নিয়ে যাওয়ার পর অফিসের এক স্টাফকে আব্বু বলছিলেন কাগজে স্বাক্ষর করে দিতে। পরে ওই স্টাফ বলেন, ইউএনও স্যার মিটিংয়ে আছেন, আপনি একটু বসেন। পরে আব্বু বলেন, আমার জরুরি একটু শেরপুর যেতে হবে, আপনি একটু দেখেন। তারপর ওই স্টাফ বলেন কীসের যেন ফি লাগবে। আব্বু বলেন, কোনো নিয়মে তো এই ফি নেই। যদি লাগে তবে আমি দেবো।

মাহিন জানান, এরপর আব্বু ফোন করে এটা কাকে যেন জিজ্ঞেস করছিলেন। তখন ইউএনও ম্যাডাম মিটিং ছেড়ে এসে বলেন, চোরকে এখানে কে ঢুকতে দিয়েছে, পুলিশ ডেকে তাকে গ্রেপ্তার করেন। এসময় তিনি আমাকেও গালিগালাজ করেন। আমাকে তিনি বলেন, তোর বাপের মত তুইও চোর হতে যাচ্ছিস।

পরে পুলিশকে ডেকে আনেন ইউএনও সাদিয়া উম্মুল বানিন। এ সময় উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. শিহাবুল আরিফকে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে কারাদণ্ড দেওয়ার নির্দেশনা দেন। সাংবাদিক শফিউজ্জামান রানাকে ৬ মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়।


আরো পড়ুন