• রবিবার, ০৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১০:৩৯ অপরাহ্ন

বিএনপি আক্রমণ করলে পাল্টা আক্রমণ নিয়ে ভাববে আওয়ামী লীগ

/ ৩০ বার পঠিত
আপডেট: রবিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০২২

জনসভার একদিন আগেই চট্টগ্রাম পৌঁছে রাতে জনসভাস্থল পরিদর্শন করলেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। শনিবার শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে নেমেই রাত দশটার দিকে সরাসরি পলোগ্রাউন্ড মাঠে চলে যান তিনি।

সভাস্থল পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, চট্টগ্রামের জনসভা থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সাম্প্রদায়িক জঙ্গি গোষ্ঠীর উত্থানের বিরুদ্ধে বৃহত্তর ঐক্যের ডাক দেবেন।

ঢাকায় সমাবেশের নামে বিএনপি ৬ দিন আগে থেকেই বাড়াবাড়ি শুরু করেছে মন্তব্য করে তিনি বলেন, বিএনপি আক্রমণ করলে আওয়ামী লীগ পাল্টা আক্রমণের কথা ভাববে। সারা দেশে মহল্লায় মহল্লায় আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা প্রস্তুত আছে।

বিমান বন্দরে দলের সাধারণ সম্পাদককে বরণ করতে যান হুইপ সামশুল হক চৌধুরী, নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দীনসহ স্থানীয় নেতারা।

পলোগ্রাউন্ড মাঠে তার সঙ্গে ছিলেন দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মোছলেম উদ্দিন আহম্মদ, শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, রাউজান উপজেলা চেয়ারম্যান এহেছানুল হায়দার চৌধুরী বাবুল, শাহজাদা মহিউদ্দিন প্রমুখ।

চট্টগ্রাম মহানগর, উত্তর ও দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে রোববার পলোগ্রাউন্ড মাঠের জনসভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রধান অতিথির বক্তব্য প্রদান করবেন।

সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘বিএনপি আজ বাড়াবাড়িটা বেশি করে ফেলেছে। সমাবেশ হবে এক সপ্তাহ পর। অথচ তারা আজ (শনিবার) থেকে তাঁবু খাটিয়ে বালিশ-বিছানা, মশারি এনে একটা নাটক করছে। পাড়া-মহল্লায়, শহরে, দেশের প্রতি জেলা, উপজেলায়, থানা, ইউনিয়নে, গ্রামে-ওয়ার্ডে আমাদের নেতাকর্মীরা প্রস্তুত আছে। এখন ছাড় দিচ্ছি, বাড়াবাড়ি করলে আর ছাড় দেব না।’

সাম্প্রদায়িক শক্তি-জঙ্গিগোষ্ঠীর উত্থানের বিরুদ্ধে চট্টগ্রামের জনসভায় প্রধানমন্ত্রী মুক্তিযুদ্ধের সপক্ষের শক্তির বৃহত্তর ঐক্যের ডাক দেবেন বলেও জানান ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, বাংলাদেশে জঙ্গিবাদী, সাম্প্রদায়িক শক্তির ‍উত্থান বিএনপির পৃষ্ঠপোষকতায় হয়েছে। মুক্তিযুদ্ধের মূল্যবোধ, স্বাধীনতার আদর্শে যারা বিশ্বাস করে না তারা আজ ঐক্যবদ্ধ। অবশ্যই প্রধানমন্ত্রী এ বিষয়ে কথা বলবেন।

চট্টগ্রামের স্মরণকালের বড় মহাসমাবেশ বা জনসভা হবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি। বলেন, আজ যেদিকে তাকাই সেদিকে উন্নয়ন আর উন্নয়ন। চট্টগ্রামে কর্ণফুলী টানেল হয়েছে। কেউ তা কল্পনাও করেনি। চট্টগ্রাম-কক্সবাজার সড়ক সিক্স লেন হবে। জাইকার সঙ্গে এ বিষয়ে কথা হচ্ছে। এমএ আজিজ, জহুর আহমদ চৌধুরীর চট্টগ্রামের প্রতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার একটি মায়াবি টান আছে।


আরো পড়ুন