• মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২, ১১:০০ অপরাহ্ন




সারাদেশে আরও ৩-৪ দিন বৃষ্টি হতে পারে

/ ১২ বার পঠিত
আপডেট: সোমবার, ৩ অক্টোবর, ২০২২
সারাদেশে আরও ৩-৪ দিন বৃষ্টি হতে পারে

মৌসুমি বায়ু ও বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট লঘুচাপের প্রভাবে আরও তিন-চার দিন সারাদেশে মাঝারি মাত্রায় বৃষ্টিপাত হতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস।  

অধিদপ্তরের উপপরিচালক ছানাউল হক মণ্ডল জানান, রোববার দেশের সর্বোচ্চ ৫০ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত হয়েছে শ্রীমঙ্গলে। তিনি বলেন, ‌‘অক্টোবর মাসের মাঝামাঝি পর্যন্ত বর্ষা মৌসুম থাকায় এ সময়ে সারাদেশে থেমে থেমে, কোথাও ভারি, কোথাও মাঝারি মাত্রায় বৃষ্টিপাত হবে। এরপর ধীরে ধীরে কমতে থাকবে তাপমাত্রা।

নভেম্বর মাসের শেষের দিকে শুরু হবে শীতের মৌসুম।

আবহাওয়া অফিস বলছে, ঢাকাসহ দেশের ১৫ জেলার ওপর দিয়ে ৪৫ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে অস্থায়ীভাবে দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রবৃষ্টি হতে পারে। দেশের অভ্যন্তরীণ নদীবন্দরগুলোর আবহাওয়ার পূর্বাভাসে এ তথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়, পাবনা, টাঙ্গাইল, ময়মনসিংহ, ঢাকা, ফরিদপুর, কুষ্টিয়া, যশোর, খুলনা, বরিশাল, পটুয়াখালী, কুমিল্লা, নোয়াখালী, চট্টগ্রাম, কক্সবাজার এবং সিলেট জেলার ওপর দিয়ে দক্ষিণ অথবা দক্ষিণ-পূর্ব দিক থেকে ঘণ্টায় ৪৫ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে অস্থায়ীভাবে দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রবৃষ্টি হতে পারে। তাই এসব এলাকার নদীবন্দরগুলোকে ১ নম্বর সতর্কতা সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, উত্তর বঙ্গোপসাগর এবং তার কাছাকাছি মধ্যবঙ্গোপসাগর এলাকায় একটি লঘুচাপ সৃষ্টি হয়েছে। এর প্রভাবে ঝড়বৃষ্টি হতে পারে। রোববার সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত খুলনা, বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগের অনেক জায়গায়, ঢাকা, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং রংপুর ও রাজশাহী বিভাগের দু-এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়া ও বিজলি চমকানোসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি অথবা বজ্রবৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও বিচ্ছিন্নভাবে মাঝারি ধরনের ভারি থেকে ভারি বর্ষণ হতে পারে। বৃষ্টিপাতের এ প্রবণতা সোমবার (৩ অক্টোবর) পর্যন্ত অব্যাহত থাকতে পারে।

এ সময় সারাদেশে তাপমাত্রা সামান্য কমতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস।  

আবহাওয়ার বিজ্ঞপ্তিতে আরো জানানো হয়, মৌসুমি বায়ুর অক্ষ উত্তরপ্রদেশ, বিহার, পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশের মধ্যাঞ্চল হয়ে আসাম পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। মৌসুমি বায়ু বাংলাদেশের ওপর মোটামুটি সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরে মাঝারি অবস্থায় রয়েছে।





আরো পড়ুন