• মঙ্গলবার, ০২ মার্চ ২০২১, ০৩:৫৫ পূর্বাহ্ন
Headline
গাইবান্ধা ফুলছড়িতে আওয়ামীলীগের নেতা লাল মিয়া সরকারের খুনিদের দ্রুত গ্রেফতারের দাবিতে সড়কে বিক্ষোভ অবরোধ জামালপুরের তিনটি পৌরসভা নির্বাচনে নৌকার বিজয়! জয়পুরহাটে দ্বিতীয় বারের মতো পৌর পিতা হলেন- মেয়র মোস্তাক ২০০০ ব্যাগ রক্তদান কর্মসূচি সম্পন্ন করেছেন নেছারাবাদ   ব্লাড ডোনার্স ক্লাব কেক শুভেচ্ছা জানানো হয় শান্তিপূর্ণ পরিবেশে অনুষ্ঠিত হলো জয়পুরহাট পৌরসভা নির্বাচন”পুনরায় নির্বাচনের দাবী বিএনপির কোরআনের পাখি ইমন ব্লাড ক্যান্সারে আক্রান্ত, ব্যয়বহুল খরচ চালাতে অক্ষম, সাহায্যের আবেদন “পরিচ্ছন্ন বাংলাদেশ গড়তে বিডি ক্লিন – উলানিয়া সদস্যদের ভূমিকা” বেনাপোলে সাংবাদিক বুরহান উদ্দিন মুজাক্কির হত্যাকান্ডের প্রতিবাদে মানববন্ধন! সাংবাদিক হত্যা ও নির্যাতনের প্রতিবাদে ২ মার্চ দেশব্যাপী কলমবিরতি ঘোষণা নওগাঁর বদলগাছীতে ছাগল কিনতে এসে গৃহবধূকে  হাত মুখ বেধে ধর্ষণের চেষ্টা !

বিদ্যালয়ে অ্যাসাইনমেন্ট জমা দিতে ফি না নেয়ার নির্দেশ!

Reporter Name / ১৭৮ Time View
Update : সোমবার, ৯ নভেম্বর, ২০২০

ষষ্ঠ থেকে নবম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের শিখনফল মূল্যায়নে অ্যাসাইনমেন্ট নিতে বলা হয়েছে। এ জন্য কোনো ফি আদায় করা যাবে না বলে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোকে নির্দেশনা দিয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদফতর (মাউশি)। রোববার (৮ নভেম্বর) এ সংক্রান্ত নির্দেশনা জারি করা হয়েছে মাউশি।

 

করোনাভাইরাসের কারণে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে প্রায় ৭-৮ মাস। এ অবস্থায় শিক্ষা কার্যক্রমের ক্ষতি কিছুটা পুষিয়ে নিতে শিক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট করানোর নির্দেশ দিয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদফতর।

সে অনুযায়ী, সপ্তাহে একদিন প্রতিষ্ঠান থেকে অ্যাসাইনমেন্টের কাজ সংগ্রহ ও জমা দেবে শিক্ষার্থীরা। কিন্তু অভিযোগ উঠেছে, এটিকেই সুযোগ হিসেবে নিয়ে বাড়তি অর্থ আয় করছেন কিছু শিক্ষক। আবার স্কুলে যেতেও বাধ্য করা হচ্ছে কোথাও কোথাও।

নির্দেশনায় বলা হয়েছে, সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অ্যাসাইনমেন্ট চলাকালীন পরবর্তী নির্দেশনা না আসা পর্যন্ত কোনো অর্থ বা ফি শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে না নেয়ার বিষয়ে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। প্রতি সপ্তাহে তিনটি বিষয়ের ওপর শিক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট দিতে হবে। সপ্তাহে একদিন তা গ্রহণ করতে হবে। এ জন্য কোনো ধরনের আর্থিক লেনদেন করা যাবে না।

করোনার কারণে এবার বার্ষিক পরীক্ষা না নিয়েই মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষার্থীদের উপরের শ্রেণিতে তোলা হবে। ষষ্ঠ থেকে দশম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের ঘাটতি পূরণের জন্য ৩০ কর্মদিবসে শেষ করা যায় এমন একটি সিলেবাস প্রণয়ন করেছে জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্য পুস্তক বোর্ড (এনসিটিবি)। সিলেবাসের আলোকে শিক্ষার্থীদের প্রতি সপ্তাহে তিনটি করে অ্যাসাইনমেন্ট দেয়া হচ্ছে, যার উত্তর শিক্ষার্থীদের পাঠ্যপুস্তক অনুসরণ করে লিখতে হবে।

মাউশির মহাপরিচালক সৈয়দ মো. গোলাম ফারুক জানান, শিক্ষার্থীদের শিখনফল মূল্যায়ন করতে যে অ্যাসাইনমেন্ট নেয়া হচ্ছে সেজন্য শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে কোনো ফি নেয়া যাবে না। আর টিউশন ফি আদায় করা নিয়ে শিগগিরই একটি নির্দেশনা দেয়া হবে বলে জানান মহাপরিচালক। করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে কীভাবে টিউশন ফি আদায় করবে, সে বিষয়ে শিগগিরই নির্দেশনা দেয়া হবে বলে জানান তিনি।

 


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category