• বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৮:২৪ পূর্বাহ্ন

নৌকা সমর্থককে মারধরের মামলায় জামিন পেলেন ইউপি চেয়ারম্যান ও বিএনপি নেতাসহ ৩ জন

/ ১৩২ বার পঠিত
আপডেট: মঙ্গলবার, ৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪

কুমিল্লা দেবীদ্বার প্রতিনিধিঃ
কুমিল্লার দেবীদ্বারে নৌকা মার্কার সমর্থককে মারধর ঘটনার জের ধরে দায়ের করা মামলায় অভিযুক্ত ১১ নং রাজামেহার ইউপি চেয়ারম্যান মো. জসীম উদ্দিন সরকার ও বিএনপি নেতসসহ ৩ অভিযুক্ত জামিনে মুক্তি পেয়েছেন।
জামিনে মুক্তিপ্রাপ্ত অন্যান্যরা হলেন, মামলায় এজহারভুক্ত ৬ নং অভিযুক্ত বেতরা গ্রামের মো. খলিলুর রহমানের পুত্র ও ইউনিয়ন যুবদলের যুগ্ম আহব্বায়ক মো. আবু বক্কর এবং ৭ নং অভিযুক্ত উখারী গ্রামের মো. মফিজের পুত্র ও ইউনিয়ন সেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক মো. মোশারফ হোসেন।
৫ ফেব্রুয়ারী (সোমবার) দুপুরে কুমিল্লা ৪ নং আমলী আদালতে হাজির হয়ে উল্লেখিত ৩ অভিযুক্ত জামিন আবেদন করলে ওই আদালতের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট মো. বেলাল হোসেন তাদের জামিন মঞ্জুর করেন। উল্লেখিত মামলার এজাহারভুক্ত ৮ নং আসামি উপজেলা বিএনপি আহ্বায়ক কমিটির যুগ্ম আহব্বায়ক মোঃ সালাউদ্দিনসহ আরো ৬ জন আসামি পলাতক আছে।
ইউপি চেয়ারম্যানসহ ৩ আসামি জামিন পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আসামী পক্ষের আইনজীবী এডভোকেট মো. জাহাঙ্গীর আলম।
জামিনে আসা ইউপি চেয়ারম্যান মো. জসীম উদ্দিন জানান, মানিকের উপর হামলার বিষয়ে আমি কিছুই জানতামনা, একদিন পরে বিষয়টি শুনলেও এখন দেখি ওই মামলার ৯ নম্বর আসামী আমাকে করা হয়েছে। গত ইউপি নির্বাচনে পরাজিত এক প্রার্থীর প্ররোচনায় আমাকে হয়রানী করতেই ওই মামলায় আমাকে জড়ানো হয়েছে।
উল্লেখ্য, গত ২১ জানুয়ারী উপজেলার ১২ নং রাজামেহার ইউনিয়নের মরিচা গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল হোসেন সরকারের ছেলে মোফাজ্জল হোসেন সরকার মানিক (যুবলীগ নেতা) ফজরের নামাজ পড়তে মরিচা কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে যাওয়ার পথে মসজিদের পশ্চিম পাশে সড়কের উপর ১৬/১৭ জনের একটি সশস্ত্র সংঘবদ্ধ দল অতর্কীত হামলা চালায়। এসময় হামলাকারীরা যুবলীগ নেতা মানিকের এক হাত ভেঙ্গে দেয় এবং দু’পায়ের হাটুর বাটি,বাম পা ভেঙ্গে দেয়, নাকে আঘাত করে রক্তাক্ত জখম ও মাথা ফাটিয়ে রক্তাক্ত জখম করে দেয়।
ওই ঘটনায় যুবলীগ নেতা আহত মানিকের ভাই মো. জাবেদ হোসেন সরকার বাদী হয়ে রাজামেহার ইউপি চেয়ারম্যান মো. জসীম উদ্দিন সরকারসহ ৯ জনকে এজহারভূক্ত করে দেবীদ্বার থানায় ০২/০২/২০২৪ইং তারিখ একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা নং- ৩/২৫।


আরো পড়ুন