• রবিবার, ০২ অক্টোবর ২০২২, ০৮:৫৬ পূর্বাহ্ন
171764904_843966756543169_3638091190458102178_n

প্রতিপক্ষকে খায়েল করতে আদালতে রাজাকার পরিবারের মিথ্যা মামলা।

/ ১২ বার পঠিত
আপডেট: শুক্রবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২২
IMG-20220911-WA0004

ষ্টাফ রিপোর্টারঃ

ভোলার বোরহানউদ্দিন উপজেলায় এবার প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করতে আদালতে মিথ্যা মামলা দায়ের করলেন এক রাজাকার পরিবার। এই ঘটনায় ভুক্তভোগী পরিবার ও সচেতনমহল উদ্দ্যেগ উৎকন্ঠা প্রকাশ করেছেন।

সুত্র মতে- উপজেলার কাচিয়া ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের জনৈক ইলিয়াছের নিকট চাদা দাবী করে একই এলাকার রাজাকার মোঃ মোস্তফা রারির ছেলে মোঃ ফয়জুল্লাহ, তার শ্যালক মোঃ হারুন  গোলদার। ইলিয়াছ  চাদা দিতে অস্বীকৃতি জানালে  ফয়জুল্লার, হারুন ও ফারুক গোলদারের নেতৃত্বে গত ১১ সেপ্টেম্বর  ইলিয়াছের ভোগদখলীয় সম্পতিতে থাকা বসতঘর ভাংচুর লুটপাট হামলা ও অবশেষে উচ্ছেদের মত ঘটনা ঘটিয়েছে।

এ ঘটনার ভিডিও এবং স্হীর চিত্র সোস্যাল মিডিয়া ও প্রিন্ট মিডিয়া ব্যাপক ভাবে প্রচার হয়। ইলিয়াছ চাকুরীর সুবাদে ঢাকায় অবস্হান করায় ইলিয়াছের ভাই আব্বাস বাদী হয়ে থানায় অভিযোগ করে।  ঘটনার ৭দিন অতিবাহিত হলেও পুলিশ মামলা রুজু না করায় ইলিয়াছের পরিবার গত ১৮ সেপেম্বর আদালতে চাদাবাজীর মামলা দায়ের করেন। এ সংবাদ পেয়ে ফয়জুল্লাহ গতকাল বুধবার তার স্ত্রীকে বাদী করে ইলিয়াছকে ১নং আসামী করে ১১জনের নামে আদালতে একটি মারামারি, লুটপাঠের মামলা করেন। আদালত মামলাটি তদন্ত পূর্বক প্রতিবেদন দাখিল করার জন্য ওসি বোরহানউদ্দিনকে নির্দেশ প্রদান করেন।

এ বিষয়ে ইলিয়াছ বলেন-  একজন স্বীকৃত রাজাকারের ছেলে আমার নিকট চাদা দাবী করে না পেয়ে আমার বসতঘরে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করে বসতঘরটিকে উচ্ছেদ করে এমনকি আমি ঢাকায় থাকায় আমার পরিবারের লোকজন বাধা দিলে তাদেরকে মারধর করে। থানা পুলিশ এ ঘটনায় মামলা না নেওয়ায় আদালতে স্বরনাপন্ন হই। বিষয়টি ভিন্ন খাতে নেওয়ার জন্য কুচক্রিমহলের ইন্ধনে উল্টো আমাদের পরিবারের বিরুদ্ধে ১০ দিন পর আদালতে মিথ্যা মামলা দায়ের করে। আমি ঢাকা থাকা সত্বেও আমাকে অভিযুক্ত করা হয় যা খুবই দূঃখ জনক। 

প্রকৃত ঘটনায় যে থানা পুলিশ মামলা নেয়নি সেই পুলিশ আবার মিথ্যা মামলার তদন্ত রির্পোট নিয়ে উদ্ধেগ প্রকাশ করে মামলাটি থানা পুলিশ নয় অন্য যে কোন সংস্হাকে তদন্তভার দেওয়ার জন্য আদালতের প্রতি আস্হা রেখে অনুরোধ জানান।

অন্যদিকে ইলিয়াসের পিতা মাওলানা মফিজুল ইসলাম বলেন- ফয়জুল্লাহ ও তার লোকজন প্রতিনিয়ত মামলা তুলে নেওয়ার জন্য বলে অন্যথায় আমাদেরকে একাধীক মিথ্যা মামলা সহ প্রাননাশের হুমকি দেওয়ায় বর্তমানে তারা নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে বলে ও জানায়।


আরো পড়ুন