• মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৮:২৩ অপরাহ্ন

বিশেষ অভিযানে ১৫০ বোতল ফেনসিডিল ও ২০ কেজি গাঁজাসহ ০১ মাদক ব্যবসায়ী আটক; প্রাইভেট কার জব্দ!

/ ৬৫ বার পঠিত
আপডেট: বুধবার, ৬ সেপ্টেম্বর, ২০২৩

নিজস্ব প্রতিবেদক:
র‍্যাব-৭, চট্টগ্রাম বিশেষ গোয়েন্দা সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে যে, কতিপয় মাদক ব্যবসায়ী ফেনী জেলার সীমান্তবর্তী এলাকা হতে প্রাইভেটকার এবং পিকআপ যোগে অবৈধ মাদকদ্রব্য ফেনসিডিল এবং গাঁজা বহন করে চট্টগ্রামের দিকে নিয়ে আসছে। উক্ত তথ্যের ভিত্তিতে র‍্যাব-৭, চট্টগ্রামের একটি আভিযানি দল গত ০৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩ইং তারিখ চট্টগ্রাম মহানগরীর চান্দগাঁও থানাধীন নতুন ব্রীজ-বহদ্দারহাট পাকা রাস্তার উপর একটি অস্থায়ী চেকপোস্ট স্থাপন করে গাড়ী তল্লাশী শুরু করে।

এসময় চেক পোস্টের দিকে আসা সন্দেহজনক ০১টি প্রাইভেটকার এবং ০১টি পিকআপকে থামার সংকেত দিলে প্রাইভেটকার এবং পিকআপ না থামিয়ে পালানোর চেষ্টাকালে আসামী মোঃ সুমন প্রকাশ সবুজ (৩০), পিতা-মৃত নুরুল হক, সাং-দুর্গাপুর থানা-জোরারগঞ্জ, জেলা-চট্টগ্রাম’কে আটক করতে সক্ষম হয়। পরবর্তীতে উপস্থিত সাক্ষীদের সম্মুখে আটককৃত আসামীর দেখানো ও নিজ হাতে প্রাইভেটকারের ব্যাক ঢালার ভিতর হতে বের করে দেয়া মতে ০২টি প্লাস্টিকের বস্তা হতে ১৫০ বোতল ফেনসিডিল এবং পিকআপের ড্রাইভিং সিটের পাশের খালি জায়গা হতে ২০ কেজি গাঁজা উদ্ধারসহ মাদক পরিবহনের কাজে ব্যবহৃত পিকআপটি জব্দ করা হয় এবং চালক পালিয়ে যায়।

গ্রেফতারকৃত আসামীকে জিজ্ঞাসাবাদে আরো জানা যায় যে, সে এবং পলাতক আসামী ড্রাইভিং পেশার আড়ালে পরস্পর যোগসাজসে ফেনী জেলার সীমান্তবর্তী এলাকা হতে মাদকদ্রব্য ফেনসিডিল এবং গাঁজা সংগ্রহ করে পরবর্তীতে চট্টগ্রাম জেলার বিভিন্ন মাদক সেবনকারী এবং মাদক ব্যবসায়ীদের নিকট পাইকারি এবং খুচরা বিক্রয় করে থাকে। উদ্ধারকৃত মাদকদ্রব্যের আনুমানিক মূল্য ৪ লাখ ৫০ হাজার টাকা।

গ্রেফতারকৃত আসামী এবং উদ্ধারকৃত মাদকদ্রব্য সংক্রান্তে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের নিমিত্তে সংশ্লিষ্ট থানায় হস্তান্তার করা হয়েছে।


আরো পড়ুন