• শুক্রবার, ২৭ মে ২০২২, ০২:৫৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
যাত্রাবাড়ী থেকে ৩৯ কেজি গাঁজা ও ২০১ বোতল ফেনসিডিলসহ ০৩ মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার!  মোহাম্মদ নিজাম উদ্দীন নোয়াখালীর শ্রেষ্ঠ শিক্ষক নির্বাচিত ময়মনসিংহ নগরে ৮নং ওয়ার্ডে অবৈধ মদ নিয়ন্ত্রণকারীরা মদ বিক্রির চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়েছে নদের চরে স্থাপনা নির্মাণ: জানে না জেলা প্রশাসন ২দিন আটকে রেখে টাকা না পেয়ে পিটিয়ে হাত ভেঙে কোর্টে চালান ওসিসহ ৪জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ; এলাকাবাসীর মানববন্ধন জয়পুরহাটে ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইন উপলক্ষ্যে জেলা পর্যায়ে সাংবাদিকদের ওরিয়েন্টেশন কর্মশালা জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন ২০২২ উপলক্ষে সাংবাদিকদের ওরিয়েন্টেশন কর্মশালা অনুষ্ঠিত যাত্রাবাড়ী থেকে ২২ কেজি গাঁজাসহ ০৪ জন মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার!  নবাবগঞ্জের ভাইয়ের হাতে ভাই হত্যা মামলার প্রধান আসামী জাহাঙ্গীর কবিরাজ গ্রেফতার ময়মনসিংহে হামলার শিকার কবি সাংবাদিক শরৎ সেলিম ,থানায় অভিযোগ

‘ইয়াবা দিয়ে ফাঁসানোর চেষ্টা’, পুলিশ কর্মকর্তা (এএসআই) সায়েমের অবরুদ্ধ !

Reporter Name / ২০২ Time View
Update : বৃহস্পতিবার, ১ অক্টোবর, ২০২০
‘ইয়াবা দিয়ে ফাঁসানোর চেষ্টা’, পুলিশ কর্মকর্তা (এএসআই) সায়েমের অবরুদ্ধ !‘ইয়াবা দিয়ে ফাঁসানোর চেষ্টা’, পুলিশ কর্মকর্তা (এএসআই) সায়েমের অবরুদ্ধ !
‘ইয়াবা দিয়ে ফাঁসানোর চেষ্টা’, পুলিশ কর্মকর্তা (এএসআই) সায়েমের অবরুদ্ধ !

রংপুর নগরীতে পুলিশের বিরুদ্ধে ইয়াবা ট্যাবলেট দিয়ে বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের এক কর্মকর্তাকে জোরপূর্বক ফাঁসানোর অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় মেট্রোপলিটন পুলিশের অ্যাসিস্ট্যান্ট সাব ইন্সপেক্টর (এএসআই) সায়েমকে অবরুদ্ধ করে রাখে এলাকাবাসী। পরে পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা গিয়ে তাকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যান।

মঙ্গলবার (৩০ সেপ্টেম্বর) দুপুরে রংপুর মহানগরীর চেকপোস্ট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ওই অভিযোগটি খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন।

চেকপোস্ট এলাকার স্থানীয়রা জানান, মঙ্গলবার দুপুরে বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত ফিরোজ খান রাজু তার অফিসের পাশের একটি চায়ের দোকানে চা খেতে যান। এ সময় সিগারেটের প্যাকেটে ইয়াবা ট্যাবলেট দিয়ে তাকে ফাঁসানোর চেষ্টা করে এবং হাতে হাতকড়া দিয়ে টেনেহেঁচড়ে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন এএসআই সায়েম। ঐ ব্যক্তির সহকর্মীরাসহ এলাকাবাসী এতে বাঁধা দেয়। পরে বিক্ষুব্ধ জনতা ওই পুলিশ কর্মকর্তাকে অবরুদ্ধ করে রাখে।

খবর পেয়ে রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়নন্তন করে ও তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিয়ে তাকে অবরুদ্ধ অবস্থা থেকে উদ্ধার করে নিয়ে যান পুলিশ। রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (অপরাধ) শহিদুল্লাহ্ কাওছার বলেন, আমরা আনিত অভিযোগসহ পুরো ঘটনাটি তদন্ত করে দেখছি। তদন্ত শেষে ওই পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে যথাযথ পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলে তিনি জানান।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category