• বুধবার, ২৮ অক্টোবর ২০২০, ০৩:৪৫ পূর্বাহ্ন
Headline
উজিরপুর উপজেলা গুঠিয়া বন্ধরে রাস্তাটি বেহাল অবস্থায় পড়ে আছে। রংপুরে ডিবি পুলিশের একজন এ এস আই এর নেতৃত্বে শিক্ষার্থীকে গণ ধর্ষনের অভিযোগে মহিলা আটক! নওগাঁয় একই মাচায় করলা ও পটল চাষ করে সফলতার সপ্ন দেখছেন কৃষক! কোটচাঁদপুরে সরকারি কে এম এইচ ডিগ্রী কলেজের লিংটন ধসে একজন শ্রমিকের মৃত্যু! কোঁটচাদপুরে দুটি মালবাহি ট্রেনের মুখোমুখি সংঘর্ষ ভোগান্তির পর রেল যোগাযোগ স্বাভাবিক! অনলাইন গণমাধ্যমগুলোকে শিল্পে পরিণত করা উচিত দৈনিক অন্য দিগন্ত পত্রিকা সম্পাদককে প্রাণনাশের হুমকির অভিযোগ মহিলা কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে! মৎস্য ও প্রাণী সম্পদ মন্ত্রী বিষয়টি আমলে নিলে ইলিশ রক্ষা পাবে। নাটোরে ফ্রি চিকিৎসা সেবা প্রদান করবে আ: হালিম মেমোরিয়াল ক্লিনিক ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় প্রথম অনলাইনে জিডি কার্যক্রম শুভ উদ্বোধন। বরিশাল সংসদ সদস্য শাহে আলম উজিরপুরের বিভিন্ন স্থানে শারর্দীয় দুর্গাপূজা মন্ডব পর্যবেক্ষণ করেন।

স্কুলছাত্রীকে ‌‘ধর্ষণ’, সংবাদ সম্মেলনে ‘চরিত্রহীন মেয়ে’ বললেন ছাত্রলীগ নেতা!

Reporter Name / ৮৯ Time View
Update : শুক্রবার, ২১ আগস্ট, ২০২০
স্কুলছাত্রীকে ‌‘ধর্ষণ’, সংবাদ সম্মেলনে ‘চরিত্রহীন মেয়ে’ বললেন ছাত্রলীগ নেতা
স্কুলছাত্রীকে ‌‘ধর্ষণ’, সংবাদ সম্মেলনে ‘চরিত্রহীন মেয়ে’ বললেন ছাত্রলীগ নেতা

বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে দশম শ্রেণির এক স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা দায়ের হয়েছে সাতক্ষীরার কলারোয়া উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা শেখ মেহেদী হাসান নাইচের বিরুদ্ধে।

গত মঙ্গলবার কলারোয়া থানায় ওই স্কুলছাত্রী বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন।

মামলার খবর শুনে ওই স্কুলছাত্রীর বিরুদ্ধে গত বুধবার সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেন নাইচ।

ছাত্রলীগের সাবেক নেতা শেখ মেহেদী হাসান নাইচ (২৭) উপজেলার পরানপুর গ্রামের শেখ মোশারফ হোসেনের ছেলে।

উপজেলার হেলাতলা ইউনিয়নের দশম শ্রেণির ছাত্রী ওই ভুক্তভোগী জানান, বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ছাত্রলীগ নেতা শেখ মেহেদী হাসান নাইচ তাকে প্রায় চার বছর ধরে ধর্ষণ করে আসছেন। সম্প্রতি পরিবারের চাপে মোটা অংকের যৌতুক নিয়ে তিনি অন্যত্র বিয়ে করেন।

স্কুলছাত্রী জানান, ২০১৭ সালের জানুয়ারিতে তার মা-বাবা বাড়িতে না থাকায় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে নাইচ তাকে প্রথমবারের মতো ধর্ষণ করেন। এভাবে প্রায় চার বছর চলতে থাকায় সর্বশেষ গত ৩ জুলাই রাতে তাকে তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে ছাত্রলীগ নেতা নাইচ ধর্ষণ করেন এবং অসদাচরণ করেন। এ সময় তিনি প্রতারণার শিকার হতে যাচ্ছেন বলে সন্দেহ করেন। পরে পরিবারের সবাইকে জানিয়ে তিনি কয়েক দফা ছাত্রলীগ নেতা নাইচদের বাড়িতে যান। নাইচসহ তার পরিবারের লোকজন তাকে অপমান করে তাড়িয়ে দেন।

পরে বিষয়টি কলারোয়া উপজেলা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানকে জানানো হয়। উপজেলা চেয়ারম্যান দুই পক্ষকে ডাকার পরও বিষয়টি নিষ্পত্তি না হওয়ায় অবশেষে গত মঙ্গলবার তিনি বাদী হয়ে কলারোয়া থানায় নারী নির্যাতন দমন আইনে নাইচের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেন।

এদিকে, মামলার খবর জানতে পেরে গত বুধবার  উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক নাইচ সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে ওই স্কুলছাত্রীকে ‘চরিত্রহীন মেয়ে’ বলে উল্লেখ করেন। এ সময় নাইচ বলেন, ‘ওই চরিত্রহীন মেয়ে তার রাজনৈতিক সুনাম ক্ষুণ্ন করার জন্য চক্রান্ত করে আসছে।’

এ বিষয়ে জানতে সাবেক ছাত্রলীগ নেতা মেহেদী হাসান নাইচকে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তার ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়। তবে তার মায়ের সঙ্গে কথা বলা হলে তিনি জানান, মেয়েটি তাদের বাড়িতে দুই দফা বিয়ের দাবি নিয়ে এসেছিল। তিনি গুরুত্ব দেননি।

কলারোয়া উপজেলা পরিষদের চেয়াম্যান আমিনুল ইসলাম লাল্টু জানান, এ বিষয়ে দুই পক্ষকে নিয়ে বসার পর দুই পরিবারের লোকজন ১৫ দিনের মধ্যে বিষয়টি নিষ্পত্তি করবেন বলে তার কাছ থেকে সময় নেন। কিন্তু বিষয়টি নিষ্পত্তি না হওয়ায় মেয়েটি আইনের আশ্রয় নিতে বাধ্য হন।

কলারোয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ মুনীর উল গীয়াস মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ভুক্তভোগী স্কুলছাত্রীর অভিযোগের ভিত্তিতে মামলা গ্রহণ করা হয়েছে। পুলিশ আসামিকে গ্রেপ্তারের জন্য অভিযান পরিচালনা করছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category