• বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২:২৮ পূর্বাহ্ন

জোর পূর্ব ৪২ বছরের ভোগ দখলকৃত পৈত্রিক সম্পত্তি দখলের চেষ্টা

/ ১১১ বার পঠিত
আপডেট: সোমবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০২৩

মোঃ ফয়সাল  হাওলাদার, নিজস্ব প্রতিবেদক:-
মুন্সিগঞ্জের লৌহজং উপজেলা খিদিরপাড়া ইউনিয়ন হুগলি গ্রামের বাসিন্দা আঃ সালাম বেপারী, রাজ্জাক বেপারী গং এর ৪২ বছর ভোগ দখলকৃত পৈত্রিক সম্পত্তি মুনছুর আহমেদ ও তার সন্তান মাহিম আহমেদ মৃন্ময় দখলের চেষ্টা করছেন বলে এলাকাবাসীর অভিযোগ।

গত ২৬ নভেম্বর ২০২৩ ইং রবিবার বিকালে লৌহজং উপজেলা খিদিরপাড়া ইউনিয়ন হুগলি বাসিন্দা তার পৈত্রিক সম্পত্তি  সিরাজদিখান থানার মালপদিয়া জোরপূর্বক জমি দখল ও রোপণকৃত সরিষা নষ্ট করার অভিযোগ উঠেছে  মুনছুর আহমেূ ও মাহিম আহমেদ মৃন্ময় গং বিরুদ্ধে ।

ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার মধ্যপাড়া ইউনিয়নের হুগলি আদাবাড়ি ধামালিয়া নামক স্থানে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, মালপদিয়া মৌজার আরএস ৫০৮১, ৫০৮২ ও ৫০৮৩ দাগের ফসিল জমি। নাল, পুকুর সহ মোট সম্পত্তি ৯৮ শতাংশ এবং তাদের নামজারি কেস নং ১৯২৪/১৬-১৭।তারা নিয়মিত খাজনা পরিশোধ করে আসছেন ।তাদের পূর্বপুরুষরা এই জমিটি ভোগ দখলকৃত এবং তারা রেকর্ডীয়  মালিক তারা এবং দখলে ছিলেন বঃ সালাম বেপারী, রাজ্জাক বেপারি ছিন্টু বেপারী। তবে মুনছুর আহমেদ ও  সন্তান মৃন্ময় ফসলি জমিতে পাশে তিনটি  সাইনবোর্ড  দিয়ে যায়। ৪০ শতাংশ মালিকানা দাবি করে।

তথ্য সূত্রে জানা যায়, সিরাজদিখান থানাধীন মধ্যপাড়া ইউনিয়নের মালপদিয়া
স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, আমরা যতটুকু জানি, দীর্ঘদিন ধরে জায়গার মালিক ও ভোগ দখলকৃত সালাম বেপারি, রাজ্জাক  বেপারী,  গং। তারাই ভোগ দখল করে আসছে এতদিন ৪২ বছর ধরে। এখন হঠাৎ করে মাহিম আহমেদ মৃন্ময় গংরা নিজেদের জায়গা বলে দাবি করছে। তাই আমাদের মতে, তারা অবৈধভাবে জায়গা দখল করার চেষ্টা করছে। মূলত এই জায়গার মালিক সালাম বেপারী, রাজ্জাক বেপারি গং।এলাকাবাসী আরো জানান, এই জায়গা নিয়ে কিছুদিন আগে মারামারি হয়েছে এবং থানায় উভয়পক্ষ অভিযোগ করেছে।
জমির মালিক সালাম বেপারি   বলেন, ৪২ বছর ধরে এই জায়গা আমরা ভোগ দখল করে আসছি। এই জমি আমাদের পৈত্রিক সম্পত্তি ।আমরা কখনো বিক্রি করিনি অথচ  মুনছুর গংরা  কিভাবে মালিক আমরা জানতে চেয়েছি এবং কাগজ দেখাতে বলেছি তারা দেখাতে পারেনি। তবে তারা একটি নামজারি পেয়েছে বলে জানায় ।আমরা নাম জারির”টি সংগ্রহ করেছি যার  কেসনং ২৭৭/২০২১-২০২২ যা ০৩-০৫-২০২৩ইং তারিখে প্রকাশিত হয়। সিরাজিখান সহকারী কমিশনার ভূমি আমাদের আপিল করার সুযোগ না দেওয়ায় আমরা বিজ্ঞ সিরাজদিখান সিনিয়র সহকারী জজ আদালত মুন্সীগঞ্জ একটি  দেওয়ানী মামলা নং ০৫-২০২৩ করেছি। কিন্তুু  তারা জোর করে আমাদের জায়গা দখল করার চেষ্টা করছে।তাদের কাগজপত্র সম্পূর্ণ ভুয়া। 

অভিযুক্ত মুনছুর আহমেদ ছেলে মাহিম আহমেদ মৃন্ময় বলেন, এই জমি আমাদের। আমরা আঃ সালাম বেপারী, রাজ্জাক বেপারী গং কাছে  থেকে ক্রয় সূত্রে মালিক।আমাদের দলিল আছে এবং আমরা একটি নামজারি পেয়েছি। তবে প্রতিবেদক কাগজপত্র দেখতে চাইলে তারা জানান, সহকারী কমিশনার ভূমি অনুমতি দিলে আমরা কাগজ দেখাবো নয়তো থানায় আসুন আমরা কাগজ দেখাবো।

জৈনসার(মধ্যপাড়া) ইউনিয়ন পরিষদ ভূমি কর্মকর্তা মুহাম্মদ মিজানুর রহমান বলেন, আমি এই ইউনিয়নের কয়েক মাস হয়েছে যোগদান করেছি আমি এ বিষয়ে কিছুই জানিনা।তবে বিষয়টি আমি গুরুত্ব সহকারে দেখবে।

সিরাজদিখান সহকারী কমিশন ভূমি উম্মে হাবিবা ফারজানা বলেন, বিষয়টি আমি নোট করে রাখছি।তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণ করব।


আরো পড়ুন