• বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২:৫৪ পূর্বাহ্ন

বাকলিয়ার ইয়াবা খোকন গ্রেপ্তার পলাতক কিশোর গ্যাং লিডার ফারুক ও চোরা সেলু

/ ২৯৩ বার পঠিত
আপডেট: রবিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০২৩

বিশেষ প্রতিনিধি:
চট্টগ্রাম মহানগরীর পশ্চিম বাকলিয়া এলাকা থেকে মারামারি, চাঁদাবাজি, হত্যা প্রচেষ্টাসহ পিংকু নির্যাতন মামলার ২ নং আসামী মোঃ খোকন (৩৪) প্রকাশ ইয়াবা খোকন কে গ্রেফতার করেছে চকবাজার থানা পুলিশ।

শনিবার দিনগত রাতে বাকলিয়া এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। তার নামে আগেও মাদকসহ বিভিন্ন থানায় ৭-৮টি মামলা রয়েছে। গ্রেফতারকৃত খোকন নগরীর বাকলিয়া থানার বগারবিল এলাকার শান্তিনগরের ইসলাম ভিলার বাসিন্দা মৃত মোঃ আব্দুর রউফের ছেলে। সূত্র বলছে, খোকনের বিরুদ্ধে নগরীর বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা রয়েছে। খোকন অত্র এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাস হিসেবে খুব সু-পরিচিত!

উল্লেখ্য ইমতিয়াজ হাসান পিংকু নির্যাতন মামলায় খোকনসহ ৩ আসামি গ্রেফতার করে পুলিশ । এরআগে ২৬ অক্টোবর মামলার পলাতক ৬ নং আসামী মোঃ কামাল (৪০) ও ৭ নং আসামি মোঃ তারেক (২৪) গ্রেফতার করেছিল থানা পুলিশ ও আদালতে জামিন নিতে গেলে অত্র আসামিকে জামিন না দিয়ে জেল হাজতে প্রেরণ করেন। অত্র মামলার ১,২,৪ ও ৫ নং আসামীরা কোন রাজনৈতিকের সাথে জড়িত নয় যে ক্ষমতার দলই আসবে তাদের রাজনৈতিকের ছত্রছায়া হয়ে বিভিন্ন অপকর্ম করা তাদের মূল পেশা।

সম্প্রতি বাকলিয়ার কুখ্যাত সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজ ও একাধিক মামলার আসামি বাকলিয়ার শান্তি নগর বগার বিল এলাকার মৃত মোহন মাঝির ছেলে স্থানীয় কিশোর গ্যাং লিডার ১৭ মামলার আসামি ও চিহ্নিত মাদক ব্যাবসায়ী সোহেল আহমদ সেলু(৩৭), একি এলাকার মৃত আব্দুর রউফ এর ছেলে বহু মামলার আসামি, চিহ্নিত চাঁদাবাজ, সন্ত্রসী মোঃ খোকন (৩৪), সন্ত্রাসী ও এলাকার ত্রাস সাহাবু মিয়া (৩০), মৃত মোঃ আব্দুর রউফের ছেলে এলাকায় জুয়ার বোর্ডের নিয়ন্ত্রণকারী ও চিহ্নিত সন্ত্রাসীর ও বহু মামলার আসামি মোঃ সোলেমান (৩৮), মৃত আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে একাধিক মামলার আসামি, কিশোর গ্যং লিডার মোঃ ফারুক (২৭), মৃত মোহনের ছেলে মোঃ কামাল (৪০) ও মৃত আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে একাধিক মামলার আসামি, সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজ মোঃ তারেক (২৪) সহ ৩/৪ জন অজ্ঞাতনামা সন্ত্রসীর বিরুদ্ধে নগরীর পশ্চিম বাকলিয়া শান্তিনগর বগারবিল এলাকায় মাদকের আধিপত্য বিস্তার ও পূর্ব শত্রুতার জেরে ইমতিয়াজ হাসান পিংকু (২৬) নামে এক যুবকের উপর মধ্যযুগীয় কায়দায় শতাধিক সন্ত্রাসী নিয়ে হামলা চালায় স্থানীয় সন্ত্রাসী বহু মামলার আসামি ও মাদক কারবারিরা। হামলায় ইমতিয়াজ হাসান পিংকু গুরুতর আহত হন। এই ঘটনার ইমতিয়াজ হাসান পিংকুর বাবা স্থানীয় রিক্সা গ্যারেজ মালিক মোঃ মোস্তফা (৫২) বাদি হয়ে ২১ অক্টোবর চকবাজার থানার ৭ জনকে আসামি করে ৩/৪ জনকে অজ্ঞাত দেখিয়ে মামলা করেন। এই মামলায় শনিবার দিবাগত রাতে মোঃ খোকনকে গ্রেফতার করে চকবাজার থানা পুলিশ।

মামলার বাদী মোঃ মোস্তফা দাবী করেন, হামলার পর থেকে মামলার ১ নং আসামি চিহ্নিত মাদক ব্যাবসায়ী অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী ছিনতাইকারী চোরা সোহেল আহমদ সেলু এলাকার আরেক মাস্টার মাইন্ড, সোহেল আহমেদ সেলুর ভাগিনা কিশোর গ্যাং লিডার বর্তমানে পলাতক আছেন।


আরো পড়ুন