• বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২:৫৯ পূর্বাহ্ন

কাপাসিয়ার সাংবাদিক লিটন নাশকতা মামলায় কারাগারে

/ ৪৫ বার পঠিত
আপডেট: শুক্রবার, ২৪ নভেম্বর, ২০২৩

একজন পেশাদার সাংবাদিক কে আটকের পর নাশকতা মামলা দিয়ে কারাগারে পাঠিয়েছে পুলিশ। তিনি গাজীপুরের কাপাসিয়া প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক শামসুল হুদা লিটন (৫২)। তারাগঞ্জ এলাকার নাশেরা গ্রামের শুরু আলীর সন্তান। একই এলাকার তারাগঞ্জ কলেজের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক। গত বুধবার কলেজ থেকে আসার পথে সাদা পোষাকধারী একদল পুলিশ তাকে আটক করে কাপাসিয়া থানায় নিয়ে আসে।

খবর পেয়ে আটককৃত সাংবাদিকের স্ত্রী ও কাপাসিয়ায় কর্মরত সাংবাদিকরা আটকের বিষয়টি জানতে চাইলে থানা পুলিশ জানান, সাংবাদিক শামসুল হুদা লিটন কোনে এজাহার নামিয় আসামি নন। নাশকতা মামলার তদন্তপূর্বক তাকে আটক করা হয়েছে। পরে বৃহস্পতিবার (২৩ নভেম্বর) দুপুরের দিকে কাপাসিয়া থানাপুলিশ নাশকতা মামলার আসামি করে গাজীপুর আদালতে পেরণ সাংবাদিক শামসুলহুদা লিটনকে। পরে আদালত তাকে জেল হাজতে পাঠিয়েছে।

কাপাসিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো: আবু বকর মিয়া জানান, গত বুধবার বিকেলে উপজেলার তারাগঞ্জ কলেজ থেকে বাসায় ফেরার পথে শামসুলহুদা লিটনকে আটক করা হয়েছে। ‘কেনো আটক করা হয়েছে? ‘ শামসুলহুদা লিটন নাকি গত অক্টোবর কাপাসিয়া থানায় দায়েরকৃত রাজনৈতিক নাশকতা মূলক একটি মামলার তদন্তে তার সংশ্লিষ্টতা পাওয়া গেছে, সে কারণে তাকে আটক করা হয়েছে।

কাপাসিয়া প্রেস ক্লাব সভাপতি সঞ্জীব কুমার দাস জানান, সাংবাদিক শামসুল হুদা লিটন গাজীপুর সাংবাদিক ইউনিয়নের (জেইউজি) যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, কাপাসিয়া প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ও দৈনিক ইনকিলাব পত্রিকার কাপাসিয়া প্রতিনিধি এবং তারাগঞ্জ স্কুল অ্যান্ড কলেজের সহকারি অধ্যাপক এবং কেন্দ্রীয় শিক্ষক নেতা। সে কখনোই সরাসরি রাজনৈতিক পদ বহনকারী কোনো নেতা নন। শামসুল হুদা লিটন দীর্ঘদিন ধরে সাংবাদিকতা পেশার পাশাপাশি শিক্ষকতা করে আসছেন।

তার স্ত্রীও একজন শিক্ষক। তাকে ষড়যন্ত্রমূলক ফাঁসানো হয়েছে। সাংবাদিক শামসুল হুদা লিটনের স্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান শিক্ষক মুসলিমা আক্তার সুইটি জানায়, ষড়যন্ত্র মূলক রাজনৈতিক মামলায় তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। কাপাসিয়া তথা পুরো গাজীপুরের সাংবাদিক মহল এ ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। বিভিন্ন সাংবাদিক সংগঠনের নেতারা মিথ্যা মামলায় সাংবাদিক লিটনকে গ্রেফতারের তীব্র নিন্দ ও প্রতিবাদ জানিয়ে অবিলম্বে তার মুক্তির দাবী করেন।
এবিষয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বেশ কয়েকজন সদস্যরা এর তীব্র নিন্দা প্রকাশ করে বলেন, সাংবাদিকদের কেনো গ্রেফতার করতে হবে। গ্রেফতার পরতে হলে বিএনপি – জামায়াত সহ বিভিন্ন রাজনৈতিক যেসব নেতারা বিভিন্ন টেলিভিশনে টকশো করেন আগে তাদের গ্রেফতার করা দরকার।

সাংবাদিক শামসুলহুদা লিটন গ্রেফতারের প্রতিবাদে গাজীপুর প্রেস ক্লাব, গাজীপুর জেলা প্রেসক্লাব, গাজীপুর টেলিভিশন ক্লাব, কাপাসিয়া প্রেসক্লাব, গাজীপুর জেলা রিপোর্টার্স ক্লাব, গাজীপুর জেলা সাংবাদিক ঐক্য পরিষদ, গাজীপুর জেলা ঐক্য ফোরাম, কালিগঞ্জ প্রেসক্লাব, শ্রীপুর প্রেসক্লাব, গাজীপুর সিটি প্রেস ক্লাব, গাজীপুর জেলা আর জে এফ, সম্মিলিত পেশাজীবি পরিষদ সহ বিভিন্ন পেশাজীবি ও সামাজিক সংগঠন গ্রেফতারের নিন্দা জানিয়ে অবিলম্বে নিঃশর্তে তাঁর মুক্তি দাবি করেন।

আসছে ২৬ নবেম্বর রবিবার সকাল দশটায় গাজীপুর জেলার সর্বস্তরের সাংবাদিকদের উপস্থিতিতে সাংবাদিক শামসুল হুদা লিটনের মুক্তি ও কাপাসিয়া থানার ষড়যন্ত্র মূলক মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে গাজীপুর প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছেন গাজীপুর প্রেসক্লাবের সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ।


আরো পড়ুন