• মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারী ২০২৩, ১১:৩৬ অপরাহ্ন




সাড়ে ৪ বছর পর মিলল ডবল মার্ডারের দুই খুনি

/ ৪০ বার পঠিত
আপডেট: বুধবার, ২৫ জানুয়ারি, ২০২৩

সিরাজগঞ্জে ভুট্টা বোঝাই ট্রাক ছিনতাই এবং চালক ও হেলপারকে খুনের ঘটনায় জড়িত দুই হত্যাকারীকে গ্রেপ্তার করেছে সিরাজগঞ্জ পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।

মঙ্গলবার (২৪ জানুয়ারি) গ্রেপ্তারকৃত আসামিরা হত্যাকাণ্ডের দোষ স্বীকার করে আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। সিরাজগঞ্জ পিবিআইয়ের পুলিশ সুপার রেজাউল করিম বিষয়টি নিশ্চিত করেন। গ্রেপ্তারকৃতরা হলো রংপুর সদরের খলেয়া গ্রামের মালেক মিয়ার ছেলে আবদুল কাদের ওরফে ড্রাইভার বাবু (২৭) ও একই জেলার হাজির হাট উপজেলার উত্তম বাওয়াইপাড়ার নুর হোসেনের ছেলে হানিফ ইসলাম ওরফে শুকরানা (২৪)।

পুলিশ সুপার জানান, সাড়ে ৪ বছর আগে হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়েছিলেন রংপুর জেলার ভুরারঘাট ফতেপুর গ্রামের ট্রাক চালক আল আমিন (২৪) ও হেলপার একই এলাকার সোহেল মিয়া (২৫)। সোমবার (২৩ জানুয়ারি) গ্রেপ্তারকৃতদের সিরাজগঞ্জ আদালতে হাজির করা হলে তারা ঘটনার সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেন।

জবানবন্দিতে আসামিরা বলেছেন, চালক ও হেলপার তাদের পূর্বপরিচিত। ট্রাক ও ভুট্টা ছিনতাইয়ের জন্যই তারা কৌশলে ট্রাকে উঠেছিল। পথিমধ্যে জুসের সাথে অতিরিক্ত ঘুমের ট্রাবলেট মিশিয়ে চালক ও হেলপারকে খাইয়ে দিয়ে তাদের হত্যা করা হয়েছিল। এরপর ট্রাকটি নিজেদের নিয়ন্ত্রণে নিয়ে সিরাজগঞ্জের হাটিকুমরুল মোড়ে তারা ট্রাকে থাকা ৩০ বস্তা ভুট্টা বিক্রি করেন। পরবর্তীতে ট্রাকের কেবিনে দুইজনের লাশ লুকিয়ে রেখে অবশিষ্ট ভুট্টাসহ ট্রাকটি বঙ্গবন্ধু সেতুর পশ্চিমপাড় সায়দাবাদ এলাকায় রেখে পালিয়ে যায়।

গ্রেপ্তারকৃতরা বর্তমানে সিরাজগঞ্জ জেলা কারাগারে রয়েছেন বলেও জানান পিবিআই পুলিশ সুপার।

উল্লেখ্য, ২০১৮ সালের ১ অক্টোবর বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম থানা পুলিশের সহযোগিতায় ট্রাকের কেবিন থেকে চালক ও হেলপারের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়।

এ ঘটনায় নিহত আল আমিনের ছোট ভাই আনিছুর রহমান বাদী হয়ে বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম থানায় মামলা দায়ের করেন। কিছুদিনের ব্যবধানে তিনি মামলার সন্দেহভাজন আসামি রংপুর সদরের সরদারপাড়ার আনিছুর রহমানের ছেলে রফিকুল ইসলামকে (২৭) গ্রেপ্তার করেন। সে আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দিতে মামলার বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য প্রদান করে আদালতে স্বীকারোক্তি দেন। পরে মামলার প্রধান আসামী আব্দুল কাদের ওরফে বাবু ড্রাইভারকে ২০ জানুয়ারি রাতে ঢাকার দোহার এলাকায় পলাতক থাকা অবস্থায় গ্রেপ্তার করেন। এরপর তার দেওয়া তথ্যমতে হানিফ ইসলাম ওরফে শুকরানকে রংপুর থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।





আরো পড়ুন