• বৃহস্পতিবার, ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১১:৩৯ পূর্বাহ্ন

স্মার্টফোনে যেভাবে ভালো ছবি তুলবেন

/ ৪৯ বার পঠিত
আপডেট: শনিবার, ২১ জানুয়ারি, ২০২৩

আলোকচিত্রী বা ছবিপ্রেমীরা বর্তমান সময়ে ছবি তুলতে বেছে নিচ্ছেন স্মার্টফোন। স্মার্টফোন সঙ্গে থাকলে ছবি তোলার জন্য এখন আলাদা করে ক্যামেরা প্রয়োজন পড়ে না। তবে ফোনের ক্যামেরা যত ভালোই হোক না কেন, ছবি তোলার কিছু নিয়ম জানা না থাকলে ছবি মনমতো আসবে না।

তাহলে এখন প্রশ্ন করতে পারেন- স্মার্টফোনে কীভাবে ভালো ছবি তুলতে হয়? স্মার্টফোনে যারা ছবি তোলেন তাদের জন্য এই পরামর্শগুলো প্রয়োজন হতে পারে। এগুলো মনে রাখলে ভালোমানের ছবি তুলতে পারবেন।

আলো

ছবির ক্ষেত্রে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ উপাদানগুলোর একটি আলো। শুধু আলোর তারতম্যের কারণে একটি ছবি মাস্টারপিস হতে পারে কিংবা নষ্ট হয়ে যেতে পারে। অনেকে আলোর জন্য ফোনের ফ্ল্যাশ ব্যবহার করেন। অনেক ক্ষেত্রে ফ্ল্যাশ রঙের স্যাচুরেশন কমিয়ে দেয়। সবচেয়ে সুন্দর ছবি আসে সকাল ৯টার দিকে বা সূর্যাস্তের সময়, যখন প্রকৃতি সোনালী আভায় ছেয়ে যায়। এই সময়গুলোতে তোলা ছবির রং সবচেয়ে ফুটে ওঠে।

অ্যাঙ্গেল

আলোর মতো কোন অ্যাঙ্গেল থেকে ছবিটি তোলা হচ্ছে তাও গুরুত্বপূর্ণ। নান্দনিক ছবি তোলার অন্যতম মূল উপাদান এটি। একটি কোণ আপনাকে ছবির একটি ভিন্ন দৃষ্টিকোণ, ভিন্ন অর্থ দিতে পারে। কোন ছবিতে কোন অ্যাঙ্গেল ভালো লাগবে তা নিশ্চিত হয়ে ছবি তোলা ভালো।

থিম

ইনস্টাগ্রাম এবং পিন্টারেস্টের ইনফ্লুয়েন্সার কিংবা ফটোগ্রাফারদের ছবি দেখে নিশ্চয়ই ইচ্ছা হয়- এমন নান্দনিক ছবি তুলতে। খেয়াল করে দেখবেন, সব ছবিরই কোন না কোন থিম থাকে। কখনো অন্ধকার, কখনো আলোকিত, কখনো বা অতীতের মত সাদাকালো ছবি। কোনো ছবির দিকে তাকালে যদি আপনি বুঝতে না পারেন আসলে ছবিতে কী বোঝানো হচ্ছে, তাহলে বুঝবেন সেই ছবিটি সম্পূর্ণভাবে অর্থহীন।

খুঁটিনাটি

ছবির ফোকাস ঠিক রেখে আশপাশের খুঁটিনাটি নিয়েও মনযোগী হতে হবে। একটি ছবির খুঁটিনাটি যত বেশি স্পষ্ট, সেটি তত ভালো ছবি। ছবির প্রতিটি ছোটখাটো বিবরণ দর্শককে সেই ছবির প্রতি আগ্রহী করে তুলবে। যেমন- একটি ছবির পুরোটা জুড়ে শুধু আপনাকেই দেখা যাচ্ছে, আবার অন্য একটি ছবিতে আপনার পাশাপাশি আকাশের মেঘগুলোও ভীষণ স্পষ্ট। নিঃসন্দেহে মেঘসহ আপনার ছবিটিই সবার বেশি ভালো লাগবে।

এডিটিং

ছবি তোলার পাশাপাশি ভালো এডিটিং জানাও অন্যতম কাজ। কারণ অনেক সময় একটি শৈল্পিক ছবিও খারাপ এডিটিংয়ের কারণে নষ্ট হয়ে যায়। ছবির থিম, ফোকাস এবং অন্যান্য বিষয় মাথায় রেখে আপনাকে এডিট করতে হবে। তবে মনে রাখা জরুরি, কখনোই অতিরিক্ত এডিট করে ছবির মূলভাব বিকৃত করে ফেলা উচিত নয়। প্রকৃত ছবির সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে এডিট করা উচিত।

ক্যামেরা সম্পর্কে জানা

ছবি তোলার জন্যে আপনি ক্যামেরা ব্যবহার করছেন নাকি স্মার্টফোন, তা বিবেচ্য বিষয় নয়। আপনার প্রথম করণীয় হলো ক্যামেরার বিভিন্ন ফিচার বা বৈশিষ্ট্য জানা। কারণ সেগুলো কখন কাজে আসতে পারে জানা থাকলে ছবি তোলার কাজটা সহজ হয়ে যায়। কখন ব্রাইটনেস বাড়াবেন, কমাবেন বা কোন মুডে ছবি তুলবেন সেসব আগে থেকেই ক্যামেরা সেটিংসে দেখে নেওয়া ভালো। শুধু মোবাইলের কিছু সেটিংস ব্যবহার করেই ফোনে চমৎকার নান্দনিক ছবি পাওয়া সম্ভব।


আরো পড়ুন