• রবিবার, ০৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১০:৩১ অপরাহ্ন

কন্টেইনারে মালয়েশিয়া যাওয়া কিশোরের পরিচয় মিলেছে

/ ৮৭ বার পঠিত
আপডেট: শনিবার, ২১ জানুয়ারি, ২০২৩

জাহাজের একটি খালি কন্টেইনারে মালয়েশিয়ার কেলাং বন্দরে উদ্ধার হওয়া কিশোরের পরিচয় পাওয়া গেছে। প্রথমে তাকে রোহিঙ্গা শিশু ধারণা করা হলেও অবশেষে মিলেছে তার পরিচয়।

শনিবার (২১ জানুয়ারি) মনোহরগঞ্জের স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আশিকুর রহমান হাওলাদার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এর আগে গত ১৬ জানুয়ারি ওই কিশোরকে উদ্ধারের পর বিষয়টি নিয়ে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হয়।

উদ্ধার হওয়া ব্যক্তি হলেন, কুমিল্লার মনোহরগঞ্জ উপজেলার সাতপুকুরিয়া এলাকার দিনমজুর ফারুক মিয়া ছেলে রাতুল (১৫)। সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত ছবি দেখে ছেলেকে শনাক্ত করেছে রাতুলের বাবা ফারুক মিয়া। তার দাবি, রাতুল মানসিক ভারসাম্যহীন। জানা গেছে, রাতুল চট্টগ্রাম বন্দর থেকে গত ১২ জানুয়ারি ছেড়ে যাওয়া ‘এমভি ইন্টেগ্রা’ জাহাজের একটি খালি কনটেইনারে আটকা পড়ে। জাহাজটি মালয়েশিয়ার কেলাং বন্দরে যাওয়ার পর গত ১৬ জানুয়ারি কন্টেইনারের ভেতর থেকে শব্দ শুনতে পান নাবিকরা। এরপরই কেলাং বন্দরকে অবহিত করা হয়। পরদিন গত ১৭ জানুয়ারি বাংলাদেশ সময় রাত ১০টায় জাহাজটি জেটিতে এনে কন্টেইনার খুলে রাতুলকে উদ্ধার করা হয়। বর্তমানে রাতুল মালয়েশিয়ার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে।

রাতুলের বাবা ফারুক মিয়া জানান, রাতুল প্রায় ২ মাস আগে বাসা থেকে বের হয়। এরপর থেকে খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না। সন্তানকে খুঁজে পেতে তারা সব আত্মীয় স্বজনদের বাসায় খোঁজ নেন। কোথাও কোনো সন্ধান মেলেনি রাতুলের। কিন্তু ছেলে হারানোর পর থানায় জিডি করেননি।

মনোহরগঞ্জের স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আশিকুর রহমান হাওলাদার জানান, ওয়ার্ড মেম্বারের মাধ্যমে যতটুকু জেনেছি রাতুল মানসিক ভারসাম্যহীন। তাকে দেশে ফিরিয়ে আনতে সরকারের সহায়তা প্রয়োজন।


আরো পড়ুন