• শনিবার, ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০২:৪২ অপরাহ্ন

নাসিরের ফিফটি সত্ত্বেও পাঁচে পাঁচ জয় সাকিবের

/ ২৯ বার পঠিত
আপডেট: শুক্রবার, ২০ জানুয়ারি, ২০২৩

নাসির হোসেন ক্যারিয়ারের সেরা ফর্মেই আছেন বোধহয়। দীর্ঘ তিন বছরের অপেক্ষা শেষে গত ম্যাচেই পেয়েছেন বিপিএলে ফিফটি। এবার ফরচুন বরিশালের বিপক্ষে ব্যাক টু ব্যাক ফিফটির দেখা পেলেন নাসির। তবে ঢাকা ডমিনেটর্সের ফিফটি সত্ত্বেও জয় পেল না দলটি।

ঢাকার বিপক্ষে নিজেদের পঞ্চম জয় তুলে নিলো সাকিব আল হাসানের ফরচুন বরিশাল। অন্যদিকে এই ম্যাচ নিয়ে টানা পাঁচ ম্যাচ হেরে টুর্নামেন্ট থেকে বাদ পড়ার শঙ্কায় রয়েছে ঢাকা।

চট্টগ্রাম পর্বের শেষ ম্যাচে আজ (২০ জানুয়ারি) মাঠে নামে বরিশাল এবং ঢাকা। যেখানে জয়ের ধারায় ফেরার লক্ষ্যে টসে জিতে আগে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন ঢাকার অধিনায়ক নাসির। বরিশালের দুর্দান্ত ব্যাটিং আক্রমণকে ১৭৩/৫ স্কোরে আটকেও রাখে তার দলের বোলাররা।

এরপর ব্যাট হাতে দেড়শ স্ট্রাইক রেটে ফিফটি তুলে জয়ের সর্বোচ্চ চেষ্টা করেন নাসির। কিন্তু বাকিদের থেকে যথেষ্ট সঙ্গ না পাওয়ায় ১৩ রানের হার নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয়েছে নাসিরদের। নির্ধারিত ২০ ওভারে নাসিরের দল তুলতে পারে ৪ উইকেট হারিয়ে ১৬০ রান।

১৭৪ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ঢাকার দুই ওপেনার উসমান গণি ও সৌম্য ভালো শুরু এনে দেন। ৫ ওভারে তুলে ফেলেন ৪৬ রান। উসমান ১৯ বলে ৩০ রান করে ফিরলে ভাঙে জুটিটি। এরপর সৌম্যও ফেরেন ১৫ বলে ১৬ করে। চারে নেমে ইমরান ৩ রান করতে ৮ বল খেলে আউট হয়ে ফেরেন।

এরপর মিথুনকে নিয়ে ৮৯ রানের জুটি গড়েন নাসির। এই দুইজনের মধ্যে মিথুন বেশি বল হজম করে ফেলায় সমস্যা তৈরি হয়। তবে শেষদিকে পুষিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করেন মিথুন। আউট হওয়ার আগে ৩৮ বলে ২ চার ও ৩ ছয়ে ৪৭ রান করেন তিনি।

মিথুন আউট হলেও শেষ পর্যন্ত লড়াই করেন নাসির। আরিফুল হক ৫ বলে ৫ রান না করলে ফলাফল ভিন্নও আসতে পারতো। তবে অপরপ্রান্তে ব্যাক টু ব্যাক ফিফটি তুলে নাসির ৩৬ বলে ৩ চার ও ২ ছয়ে ৫৪ রান করে অপরাজিত থেকে মাঠ ছাড়েন।

এর আগে প্রথমে ব্যাটিং করতে নেমে অবশ্য শুরুতে বিপদে পড়ে যায় বরিশাল। পাওয়ারপ্লেতে ৪৪ রান তুলতেই ৩ উইকেট হারায় দলটি। এরমধ্যে সাইফ হোসেন ১০, আনামুল হক ৬ এবং চতুরঙ্গ ডি সিলভা ১০ রান করে আউট হয়ে ফেরেন।

এরমধ্যে দুই উইকেটের সম্পূর্ণ কৃতিত্ব দেওয়া যায় তাসকিন আহমেদ। টাইগার এই পেসার অসাধারণ দুটি ক্যাচ ধরেছেন। দলীয় ৬৩ রানের মধ্যে ৪র্থ উইকেট হারায় বরিশাল। মিরাজ ফেরেন ১৭ রান করে।

এরপরে আবারও ব্যাট হাতে ঝড় তোলেন সাকিব এবং ইফতিখার। এরমধ্যে সাকিব ১৭ বলে ৪টি চার ও ১টি ছয়ে ৩০ রান করে ফেরেন। ৮৯ রানের মধ্যে ৫ উইকেট হারিয়ে ফেলে বরিশাল।

তবে এরপর ৬ষ্ঠ উইকেট জুটিতে মাহমুদ উল্লাহকে নিয়ে অবিচ্ছিন্ন ৮৪ রানের জুটি গড়েন ইফতিখার। এরমধ্যে মাহমুদউল্লাহ ৩৫ রান করে অপরাজিত থাকেন। অন্যপ্রান্তে ফিফটি তুলে নিয়ে ইফতিখার অপরাজিত থাকেন ৩৪ বলে ৫টি চার ও ২টি ছয়ে ৫৬ রান করে।


আরো পড়ুন