• রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৪২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
মালয়েশিয়ায় অপহরণের দায়ে মৃত্যুদণ্ডের মুখোমুখি ৪ বাংলাদেশি যুক্তরাষ্ট্রে বাক’র নির্বাচনে নুরু-হুমায়ুন পরিষদের জয়লাভ ৩২ হাজার বিদেশি কর্মী নেবে মালয়েশিয়া ইনফ্লুয়েঞ্জা নিয়ন্ত্রণে ভ্যাকসিন নীতিমালা করছে সরকার এবারও গ্রহণযোগ্য পন্থায় নির্বাচন কমিশন গঠন করা হবে: ওবায়দুল কাদের বাংলাদেশে কোনো নিরপেক্ষ সরকার হবে না : কৃষিমন্ত্রী নিষ্ঠুর শাসন অব্যাহত রেখে সরকার কখনোই পার পাবে না: ফখরুল তত্ত্বাবধায়ক সরকারের স্বপ্ন দেখে লাভ নেই: বিএনপিকে তথ্যমন্ত্রী কুমিল্লা সীমান্ত পথে অবাধে আসছে মরণ নেশা,বাড়ছে সহিংসতা ! সোনাইমুড়ীতে সকাল ১০ টায় বিদ্যুৎস্পৃষ্টে নিহত ৪ জনের দাফন সম্পন্ন

লবণের দাম বেশি চাইলেই “ভোক্তা অভিযোগ কেন্দ্রে” ফোন করুন!!

Reporter Name / ১৪৪ Time View
Update : বুধবার, ২০ নভেম্বর, ২০১৯

পিবিএ: লবণের কেজি ২০০ টাকা হবে’ মঙ্গলবার সকাল থেকেই এমন গুজব ছড়িয়ে পড়েছে সারা দেশে। ফলে অনেকেই অতিরিক্ত লবণ কিনে রাখছেন। দেশের কোথাও কোথাও বেশি দামে লবণ বিক্রিও হচ্ছে। আবার কোনো কোনো এলাকার দোকানদাররা বলছেন, দোকানে লবণই নেই।

লবণ সংক্রান্ত বিষয়ে তদারকির জন্য শিল্প মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প কর্পোরেশন (বিসিক) প্রধান কার্যালয়ে ইতোমধ্যে একটি কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে। এর নাম্বার হচ্ছে: ০২-৯৫৭৩৫০৫ (ল্যান্ড ফোন), ০১৭১৫-২২৩৯৪৯, ০১৬২৪২৭৬০১২ (সেল ফোন)। লবণ সংক্রান্ত যে কোনো তথ্যের প্রয়োজনে কন্ট্রোল রুমের সঙ্গে যোগাযোগের জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছে।

দে‌শে লব‌নের কোন ঘাট‌তি নাই, আগামী ৪ মাস লবন চাষ বন্ধ রাখ‌লেও ১ গ্রাম লব‌নের ঘাট‌তি হ‌বে না বলে বার্তাসংস্থা পিবিএ’কে মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৬:৩০ মিনিটে জা‌নি‌য়ে‌ছে এ‌সিআই ও মোল্লা সল্ট কর্তৃপক্ষ।

এছাড়া লবনের দাম বেশি চাইলে ভোক্তারা সরাসরি এই নম্বরেও ফোন দিয়ে দেখতে পারেন।

জাতীয় ভোক্তা অভিযোগ কেন্দ্র:
ফোন-০২-৫৫০১৩২১৮, ০১৭৭৭-৭৫৩৬৬৮.
এছাড়া ই-মেইল করতে পারেন, nccc@dncrp.gov.bd এই ঠিকানায়।

এর পাশাপাশি নিকটস্থ থানাকে অবহিত করতে পারেন। দেশে পর্যাপ্ত পরিমাণেও চেয়েও অনেক বেশি লবণ মজুদ রয়েছে। এরপরেও কোনো অসাধু ব্যবসায়ী ফায়দা লুটতে চাইলে তার বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ান।

বড় রকমের সমস্যা দেখতে পেলে কোনো উপায় না খুঁজে পেলে জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯-য়ে ফোন করে সহায়তা নিন।

গণমাধ্যমকে এসব তথ্য জানিয়েছেন ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মঞ্জুর শাহরিয়ার।

প্রসঙ্গত, দেশে বর্তমানে সাড়ে ৬ লাখ মেট্রিক টনের বেশি ভোজ্য লবণ মজুদ রয়েছে। এর মধ্যে কক্সবাজার ও চট্টগ্রামের লবণ চাষিদের কাছে ৪ লাখ ৫ হাজার মেট্রিক টন এবং বিভিন্ন লবণ মিলের গুদামে ২ লাখ ৪৫ হাজার মেট্রিক টন লবণ মজুদ রয়েছে।

এছাড়া সারাদেশে বিভিন্ন লবণ কোম্পানির ডিলার, পাইকারী ও খুচরা বিক্রেতাদের কাছে পর্যাপ্ত পরিমাণে লবণ মজুদ রয়েছে। পাশাপাশি চলতি নভেম্বর মাস থেকে লবণের উৎপাদন মওসুম শুরু হয়েছে। ইতোমধ্যে কক্সবাজার জেলার কুতুবদিয়া ও মহেশখালী উপজেলায় উৎপাদিত নতুন লবণও বাজারে আসতে শুরু করেছে।

দেশে প্রতি মাসে ভোজ্য লবণের চাহিদা কম-বেশি ১ লাখ মেট্রিক টন। অন্যদিকে লবণের মজুদ আছে সাড়ে ৬ লাখ মেট্রিক টন। সে হিসাবে লবণের কোনো ধরণের ঘাটতি বা সংকট হবার প্রশ্নই ওঠে না।

একটি স্বার্থান্বেষী মহল লবণের সংকট রয়েছে মর্মে গুজব রটনা করে অধিক মুনাফা লাভের আশায় লবণের দাম অস্থিতিশীল করার অপচেষ্টা চালাচ্ছে বলে প্রতীয়মান হচ্ছে। এ ধরণের গুজবে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য শিল্প মন্ত্রণালয় সকলের দৃষ্টি আকর্ষণ করছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category