• বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৭:১৩ পূর্বাহ্ন

“কুমিল্লায় লবণ শূন্য,গুজবের পেছনে ক্রয় বিক্রয়তা ছুটছে সবাই”

/ ১৭১ বার পঠিত
আপডেট: মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর, ২০১৯

আব্দুল্লাহ আল মামুন ভূঁইয়া(বাবু)-(নিজস্ব প্রতিনিধি):পেঁয়াজের পর এবার হঠাৎ করে লবনশূন্য হয়ে পড়েছে কুমিল্লা নগরী ও আশপাশের বুড়িচং উপজেলাসহ অন্য উপজেলাগুলোর খুচরা দোকানগুলো।লবনের দাম প্রতি কেজি ১শত থেকে দেড়শ টাকায় বিক্রি হচ্ছে-এমন গুজবে ক্রেতারা হুমড়ি খেয়ে পড়েন লবন কিনতে।

মোঙ্গলবার দিনভর গুজব ছড়ালেও সন্ধ্যা থেকে তা মহামারী আকারে ছড়িয়ে পড়ে।ফলে ক্রেতাদের সামাল দিতে দোকানীদের বেগ পেতে হচ্ছে।
অভিযোগ পাওয়া যায়যে,বিভিন্ন এলাকাভিত্তিক ছোট ছোট দোকানগুলোর ব্যবসায়ীরা অতিরিক্ত মুনাফার লোভে লবন বিক্রি বন্ধ করে দেন সন্ধ্যার পর থেকে।এতে করে গুজব আরো ছড়িয়ে পড়ে।বিভিন্ন এলাকায় সরেজমিনে দেখা যায়,বড় কিংবা ছোট কোনো দোকানেই লবনের মজুদ নেই।একের পর এক ক্রেতা লবন কিনতে অতিরিক্ত টাকা দিয়ে লবন নিতে হচ্ছে।
বুুড়িচং উপজেলার চড়ানল,বারেশ্বর ,পূর্নমতি,লড়িবাগ,শংকুচাইল গ্রামের অনেকে জানান,লবনের দাম বাড়ার কথা শুনে একেকজন ২ থেকে ৫ কেজি এবং প্রতি কেজি ১১০টাকা করে গ্রামের খুচরা দোকান থেকে লবন কিনে নিয়েছেন।৫-৬ ঘণ্টার ব্যবধানে দোকানের সকল লবন শেষ হয়ে যায়।
গুজব এমন ভাবে ছড়িয়েছে, শিক্ষিত-অর্ধশিক্ষিত সকল শ্রেণির মানুষ লবন কিনতে ভিড় করছেন।অনেকে মোটর সাইকেল কিংবা সিএনজি অটোরিকসা করে দূর দূরান্ত থেকে এসে লবন কিনছেন।

কিছু দোকানীরা বলেন,ক্রেতারা কোথায় থেকে যেন শুনেছেন লবণের দাম বেড়ে প্রতি কেজি ১৫০ থেকে ২০০ টাকায় দাঁড়িয়েছে।ফলে তারা পেঁয়াজের মতো দাম বাড়ার আগেই নিত্যপ্রয়োজনীয় এ উপকরণ কিনতে চান।
এই দিকে বুড়িচং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইমরুল হাসান জানান,অামরা লবন দাম বাড়ার গুজবের কথা শুনেছি এবং শোনার সাথে সাথে বিভিন্ন স্থানে যারা অতিরিক্ত দাম রাখছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে এসিল্যান্ড মাঠে থাকবে।


আরো পড়ুন