• সোমবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ১১:১৪ অপরাহ্ন




মানিকগঞ্জে লবণের বাজারে আগুন, প্রতি কেজি ৫০-৭০টাকায় বিক্রি!

/ ১২৬ বার পঠিত
আপডেট: মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর, ২০১৯

এম রাসেল হোসাইন,নিজস্ব প্রতিবেদকঃ লবনের দাম বেড়েছে এমন গুজব ছড়িয়ে পড়েছে সাটুরিয়া উপজেলা সহ মানিকগঞ্জ জেলার পুরোটা জুরে। প্রতি কেজি লবনের দাম বেড়ে ৫০ থেকে ৭০ টাকা হয়ে গেছে। এ গুজব ছড়িয়ে পড়েছে মানিকগঞ্জের বিভিন্ন হাট বাজার থেকে শুরু করে প্রতিটি গ্রামে।

সোমবার বিকাল থেকে এমন গুজবে পাত্তা দিয়ে কতিপয় অসাধু ব্যবসায়ীরা মানিকগঞ্জ পাইকারি বাজার,সাটুরিয়া বাজার,দৌলতপুর বাজার সহ বিভিন্ন হাট বাজারে লবন বেশী দামে বিক্রি শুরু করছে । এতে সাধারণ মানুষের মাঝে বিরূপ প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। লবনের দাম বৃদ্ধি পাচ্ছে এমন খবরে সাধারণ মানুষ মুদি দোকানগুলোতে লবন ক্রয়ের জন্য ভীড় জমাচ্ছেন। কেউ কেউ বস্তা বস্তা লবন বেশীদামে ক্রয় করছে।

এ নিয়ে কয়েকজন ক্রেতাদের সাথে কথা হলে তারা জানায়, ‘শুনেছি লবনের দাম বেড়ে প্রতি কেজি ৫০ থেকে ৭০ টাকায় দাঁড়িয়েছে। আরও বাড়বে বলে শুনা যাচ্ছে।এমন খবরে আমরা লবন কিনে রাখছি, যাতে দাম বাড়লে আর কিনতে না হয়৷

সাটুরিয়া বাজারের ক্রেতা রাশিদুল বলেন,পেয়াজের দাম বেড়ে ২৪০ টাকা হয়েছিলো এজন্য পেয়াজ ছাড়া রান্না করে খেয়েছি।কিন্তু লবণের দাম বাড়লে লবণ ছাড়া কোন ভাবেই রান্না করে খাওয়া সম্ভব নয়।তাই দাম বাড়ার আগেই লবণ কিনে রাখছি।যেনো দাম বাড়লেও লবণ ছাড়া রান্না করে না খেতে হয়।

কয়েকজন সচেতন নাগরিকদের সাথে আলাপ হলে তারা জানায়, এটা নিশ্চিত গুজব হতে পারে। তারা মনে করেন বিভ্রান্তি সৃষ্টি করতে কেউ এমন করছে।

সাটুরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, একটু আগে আমি জানতে পেরেছি বেশী দামে লবন বিক্রী হচ্ছে, লবনের দাম বৃদ্ধি এটা সম্পূর্ণ গুজব,লবন বাংলাদেশে চাষ করা হয়, তাই লবন দাম বাড়ার কোন কারণ নেই, এ ধরণের গুজব ছড়িয়ে কেউ বিভ্রান্তি ছড়ানোর চেষ্টা করা হলে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে। আমরা বাজার মনিটরিং করে লবনের দাম স্বাভাবিক রাখবো,এই বিষয়ে স্হানীয় প্রশাসন সজাগ আছে।





আরো পড়ুন