• মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারী ২০২৩, ১১:২৫ অপরাহ্ন




জাবিতে দুই হলের শিক্ষার্থীদের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ, আহত ৩০

/ ২৩ বার পঠিত
আপডেট: মঙ্গলবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০২২

ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) মওলানা ভাসানী হল এবং আ ফ ম কামালউদ্দিন হলের শিক্ষার্থীদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে অন্তত ৩০ জন শিক্ষার্থী আহত হয়েছেন।

মঙ্গলবার (৬ ডিসেম্বর) বিকেল ৫টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে আফম কামালউদ্দিন হল ও মওলানা ভাসানী হলের মধ্যকার চ্যান্সেলর কাপ ফুটবল টুনার্মেন্টের প্রথম পর্বের খেলা চলাকালে সংঘর্ষের সূত্রপাত হয়। এরমধ্যে গুরুতর আহত চারজনকে সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীদের সূত্রমতে, দুই হলের মধ্যকার খেলা চলাকালীন কামালউদ্দিন হল একটি গোল দিলে রেফারি ফাউলের সংকেত দিলে তারা বিবাদে জড়িয়ে পড়ে৷ খেলার মাঠে সংঘর্ষের ঘটনার পর বিবাদমান দুই হলের শিক্ষার্থীরা হলে ফেরার পথে সন্ধ্যা ৬ টার দিকে ক্যাম্পাসের বটতলায় অবস্থান নেয়।

এ সময় বটতলার মূল সড়কের কামাল উদ্দিন হল সংলগ্ন এলাকার দোকান ভাঙচুর করে ভাসানী হলের ছাত্ররা৷ এ সময় অন্তত ৭/৮ টি দোকান ভাঙচুর করা হয়। এ সময় দুই পক্ষের মধ্যে ইট-পাটকেল বিনিময় হয়। সংঘর্ষের সময় শিক্ষার্থীরা দেশীয় অস্ত্র নিয়ে মহড়া দিতে দেখা যায়।

জাবি চিকিৎসা কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত মেডিকেল অফিসার শামসুর রহমান জানিয়েছেন, এখন পর্যন্ত ৩০ জন আহত হয়ে মেডিকেল সেন্টারে চিকিৎসা নিয়েছেন। এদের মধ্যে চারজনকে আশংকাজনক অবস্থায় সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজে পাঠানো হয়েছে।

প্রক্টর আ স ম ফিরোজ উল হাসান বলেন, বিকালে খেলার মাঠে রেফারির সিদ্ধান্ত নিয়ে ঘটনার সূত্রপাত বলে জানতে পেরেছি। আমরা ঘটনার শুরু থেকেই দুই গ্রুপের সঙ্গে কথা বলছি। মীমাংসার চেষ্টা করছি। সর্বশেষ তারা হলে ফিরে গিয়েছে। এখন পরিস্থিতি কিছুটা শান্ত।

এ বিষয়ে প্রভোস্ট কমিটির সভাপতি অধ্যাপক আব্দুল্লাহ হেল কাফি বলেন, আমরা শিক্ষার্থীদের শান্ত করেছি। সবাইকে নিয়ে বসে ঘটনার প্রকৃত কারণ উদঘাটন করে যথাযথ ব্যবস্থা নিবো।

জাবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. নূরুল আলম বলেন, খেলার মাঠ থেকে এ ধরণের ঘটনা খুবই দুঃখজনক। আমরা বিষয়টির ওপর নজর রাখছি।





আরো পড়ুন