• মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারী ২০২৩, ১০:৪৯ অপরাহ্ন




টাইব্রেকারই কী লক্ষ্য স্পেন-মরক্কোর!

/ ২৮ বার পঠিত
আপডেট: মঙ্গলবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০২২

কাতার বিশ্বকাপের মঞ্চে স্পেনের সূচনা ছিল আসরের সবচেয়ে উড়ন্ত পারফরম্যান্স। প্রতিপক্ষ কোস্টারিকাকে ৭-০ গোল ব্যবধানে হারিয়ে চলতি বিশ্বকাপের যাত্রা শুরু করেছিল স্পেন। এরপর গ্রুপ পর্বে খেলা বাকি দুই ম্যাচে মোটে ২ গোল করতে পেরেছে দলটি। যেখানে একটি হারের সঙ্গে একটি ড্র ছিল।

এবার রাউন্ড অব সিক্সটিনে এসে তো নির্ধারিত ৯০ মিনিটে কোনও গোলই আদায় করে নিতে পারেনি দলটি। শেষ ষোলোতে তাদের প্রতিপক্ষ মরক্কোও গোল পায়নি স্পেনের বিপক্ষে। যার ফলে নির্ধারিত সময়ে গোলশূন্য ড্র নিয়েই মাঠ ছেড়েছে দুই দল।

দুই দলই পুরো ম্যাচ কেমন যেন খাপছাড়া হয়েই খেলেছে। ফেভারিট স্পেন শেষদিকে কিছুটা চাপ সৃষ্টি করেছিল বটে, এছাড়াও প্রথমার্ধেও দারুণ দুটি সুযোগ পেয়েছিল। তবে সেটি মরক্কোর জন্য খুব বেশি হুমকির ছিল না।

অন্যদিকে স্পেনের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে লড়া মরক্কো গুটিকয়েক আক্রমণ করেও জালের দেখা মেলাতে পারেনি। খেলার বর্তমান অবস্থা দেখে যে কেউ ভাবতেই পারে, টাইব্রেকারই কী লক্ষ্য স্পেন-মরক্কোর?

কাতারের এডুকেশন সিটি স্টেডিয়ামে এদিন প্রথমার্ধে অবশ্য স্পেনের চেয়ে আক্রমণে কিছুটা এগিয়ে ছিল মরক্কোই। এরমধ্যে ১টি শট গোলমুখে নিতে পেরেছিল আশরাফ হাকিমিরা। অন্যদিকে প্রথমার্ধে স্পেন একটি শটও গোলমুখে রাখতে পারেনি। ১৯৬৬ সালের পর স্পেনের জন্য এই লজ্জা প্রথমবার।

তবে দ্বিতীয়ার্ধে নিজেদের চেনা ছন্দ খুঁজে পেয়েছে ১ বারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। যদিও স্পেনের বল দখলে রেখে আক্রমণে ওঠার চেষ্টা অনেকবারই নস্যাৎ করে দিয়েছে মরক্কোর ডিফেন্ডাররা। এরমধ্যেই জর্দি আলবা, ফেরান তোরেস এবং দানি অলমো তিনটি দারুণ সুযোগ তৈরি করেছিল। তবে মরক্কোর ডিফেন্ডার এবং গোলরক্ষকের কল্যাণে বেঁচে যায় আফ্রিকার দেশটি।

কোয়ার্টার ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে দুই দল এখন নির্ধারিত সময়ের খেলা শেষে অতিরিক্ত সময়ের খেলার জন্য মাঠে নেমেছে। এখানেও কোনো ফল না আসলে টাইব্রেকারই ভরসা হবে স্পেন-মরক্কো দুই দলের জন্য।





আরো পড়ুন