• রবিবার, ০৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১০:৪৫ অপরাহ্ন

এমবাপ্পে ঝড়ে পোল্যান্ডের বিদায়, সহজ জয়ে কোয়ার্টারে ফ্রান্স

/ ২৮ বার পঠিত
আপডেট: সোমবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০২২

অনলাইন ডেস্ক:
রোববার শেষ ষোলর ম্যাচে পোলিশদের ৩-১ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে ফরাসিরা। আল থুমামা স্টেডিয়ামে দলের জয়ে জোড়া গোল করেছেন কিলিয়ান এমবাপ্পে। অপর গোলটি আসে অলিভিয়ের জিরুর পা থেকে।

যে গোলেও প্রত্যক্ষ অবদান ছিল এমবাপ্পের।
মূলত এমবাপ্পে ঝড়ে বিদায় ঘটে পোল্যান্ডের। প্রথমার্ধে অনেক চেষ্টার পরও ফরাসিরা যখন জালের দেখা খুঁজে পাচ্ছিল না, তখন এমবাপ্পের কল্যাণেই ভাঙে ‘ডেডলক’। তার বাড়ানো বল থেকে গোলখাতা খোলেন জিরু। দ্বিতীয়ার্ধে আলোটা একাই নিজের দিকে কেড়ে নেন এমবাপ্পে। করেন দর্শনীয় দুটি গোল। ওসমান দেম্বেলের পাস থেকে প্রথম গোলটি করার পর, মার্কাস থুরামের পাস থেকে চলতি বিশ্বকাপে নিজের পঞ্চম গোলটি করেন এই তারকা ফরোয়ার্ড।

এগিয়ে থেকে বিরতিতে যাওয়া ফ্রান্স দ্বিতীয় গোলটি পায় ম্যাচের ৭৪ মিনিটে। পাল্টা আক্রমণে উঠে উসমান দেম্বেলে খুঁজে নেন বাঁ প্রান্তে ফাঁকায় দাঁড়িয়ে থাকা এমবাপ্পেকে। বেশ সময় নিয়েই জোরালো শটে বল জালে পাঠান এমবাপ্পে। এই ফরোয়ার্ড ম্যাচে দ্বিতীয় গোলটি পান ইনজুরি সময়ের প্রথম মিনিটে। বাঁ প্রান্ত থেকে মার্কাস থুরামের পাস নিয়ন্ত্রণে নিয়ে বাঁকানো শটে পোলিশ গোলরক্ষক ওয়েচেক সেজনিকে ফাঁকি দেন তিনি।

এর আগে, জিরুর রেকর্ড গোলের কারিগর ছিলেন এমবাপ্পে। ৪৪তম মিনিটে তার থ্রু বল ধরেই চোখের পলকে বল জালে পাঠান জিরু। এই গোলেই কিংবদন্তি স্ট্রাইকার থিয়েরি অরিকে পেছনে ফেলেন জিরু। ফ্রান্সের জার্সি গায়ে এখন রেকর্ড ৫২ গোলের মালিক তিনি।

প্রথমার্ধে পোল্যান্ড বেশ ভালোই লড়েছিল শক্তিশালী ফ্রান্সের সঙ্গে। ভাগ্য সহায় থাকলে তারাই এগিয়ে যেতে পারতো। কিন্তু তা হয়নি। পোল্যান্ড একটি গোল শোধ দেয় ইনজুরি সময়ে পেরিয়ে যাওয়ার পর। ডি বক্সে দায়োট উপামিকানোর হ্যান্ডবলের কারণে পেনাল্টি পায় পোল্যান্ড। সেই পেনাল্টি নিয়েও হয় নাটকীয়তা।

স্পটকিক থেকে রবার্ট লেভানডস্কির শট রুখে দিয়েছিলেন হুগো লরিস। তবে লেভা শট নেওয়ার আগেই গোললাইন ক্রস করায় ফের পেনাল্টি নেওয়ার সুযোগ পায় পোল্যান্ড। এ যাত্রায় গোল করেন লেভানডস্কি। কমে পোল্যান্ডের হারের ব্যবধানও।


আরো পড়ুন