• সোমবার, ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১২:১১ পূর্বাহ্ন

পীরগঞ্জে হত্যা মামলায় গ্রেফতার ৭

/ ২৭ বার পঠিত
আপডেট: রবিবার, ২৭ নভেম্বর, ২০২২

রংপুরের পীরগঞ্জে গরু ব্যবসায়ী হযরত আলী হত্যা মামলায় ৭ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শুক্রবার হযরত আলীর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এক ঘটনায় নিহতের বড় ছেলে নওশাদ আলী বাদী হয়ে ৭ জনকে আসামী করে মামলা করলে শুক্রবার রাতেই তাদের গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন ঘনশ্যামপুর গ্রামের মফিজ উদ্দিনের পুত্র আনারুল ইসলাম, মতিয়ার রহমানের পুত্র হযরত আলী, আলম মিয়া, আব্দুর রাজ্জাক, রোস্তম আলী, রব্বানী ও তারা মিয়া শনিবার এদেরকে রংপুর জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে বলে পুলিশ জানায়।

মামলা সূত্রে জানাগেছে, শুক্রবার দুপুরে পীরগঞ্জ ও পলাশবাড়ীর সীমান্তবর্তী মানাসী বাধ (সুইচগেট) আখিরা নদী সংলগ্ন গাছের গোড়ায় বাঁধা অবস্থায় হয়রত আলীর মৃতদেহ দেখতে পান স্থানীয়রা। নিহত হযরত আলী উপজেলার কাবিলপুর ইউনিয়নের হলদিবাড়ি গ্রামের মৃত- খালেক উদ্দিনের পত্র। সে পেশায় এক একজন গরু ব্যবসায়ী ছিলেন। তার দুই ছেলে এবং তিন কন্যা সন্তানের জনক। বৃহস্পতিবার দিনাজপুর জেলার রানীগঞ্জ হাটে গরু ক্রয়/বিক্রয় করতে যান। সবাই একসঙ্গে গরুর গাড়িতে চড়ে ফেরার পথে পলাশবাড়ী থানাধীন মহেশপুর গ্রামের একটি জায়গায় তিনি তার মেয়ের বাড়িতে যাবার কথা বলে গরুর গাড়ি থেকে নেমে পড়েন। শুক্রবার সকাল আনুমানিক ১১ টার দিকে তার লাশ পাওয়া গেলে জরুরী সেবা-৯৯৯ নম্বরে ফোন দিলে পীরগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে লাশের সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করে ময়নাতদন্তের জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করে।
এ ব্যাপারে পীরগঞ্জ থানার ওসি জাকির হোসেন জানান, নিহতের বড় ছেলে নওশাদ আলী পীরগঞ্জ থানায় বাদী হয়ে মামলা করায় ৭ জনকে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে।


আরো পড়ুন