• বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ০৬:৩২ পূর্বাহ্ন




ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা নিয়ে বিবেধ কাম্য নয়- যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী

/ ১৪ বার পঠিত
আপডেট: শুক্রবার, ২৫ নভেম্বর, ২০২২
যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী

নোয়াখালী প্রতিনিধি: 

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের  প্রতিমন্ত্রী মো. জাহিদ আহসান রাসেল এমপি বলেছেন, বর্তমানে ফুটবল বিশ্বকাপ টুর্নামেন্ট চলছে। এই ঝড়ে আমরা সবাই ভুগছি। কেউ ব্রাজিল- কেউ আর্জেন্টিনা অথবা কেউ অন্য দলকে সমর্থন করছি।  ব্রাজিল- আর্জেন্টিনা নিয়ে বিবেধ কাম্য নয়। যেই দলই সাপোর্ট করিনা কেনো আমরা একে অপরের ভাই। আমাদের মধ্যে যেনো কোনো দন্ধ না হয়। 

শুক্রবার (২৫ নভেম্বর) বিকেলে নোয়াখালী পুলিশ লাইন্সে আন্তঃ থানা পুলিশ সুপার গোল্ডকাপ ফুটবল টুনামেন্টের পুরুষ্কার বিতরনী শেষে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী মো. জাহিদ আহসান রাসেল আরও বলেন, ফুটবল বিশ্বকাপ নিয়ে ফেসবুকে একে অপরের বিরুদ্ধে কুৎসা রটনা করা হচ্ছে। একটা দলকে ভালবাসতেই পারি কিন্তু আমরা সীমার মধ্যে থাকবো। আমরা অবশ্যই ফুটবল বিশ্বকাপ উপভোগ করবো। অপ্রীতিকর কিছু যেনো না ঘটে সেদিকে নজর রাখতে হবে। 

খেলাধুলা তরুণদের মাদক থেকে দূরে রাখে উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, সারাদেশে জেলা প্রশাসক ফুটবল জনপ্রিয়তা পেয়েছে। নোয়াখালীর পুলিশ সুপার গোল্ডকাপ টুর্নামেন্টের আয়োজন সুন্দর হয়েছে। আগামীতে দেশব্যাপী এই টুর্নামেন্টটিও জনপ্রিয়তা পাবে। খেলাধুলা যতবেশি আয়োজিত হবে ততবেশি তরুণরা যুক্ত হবে। খেলাধুলা তরুণদের মাদক থেকে দূরে রাখে।

এসময় পুলিশ সুপার (এসপি) মো. শহীদুল ইসলাম বলেন, নোয়াখালীতে আন্তঃ থানা পুলিশ সুপার গোল্ডকাপ ফুটবল টুনামেন্টের মাধ্যমে নতুন করে ফুটবল উন্মদনা হয়েছে। নোয়াখালীর প্রতিটা উপজেলা থেকে একটি করে ফুটবল দল অংশগ্রহণ করে। প্রত্যেকটা দলই ভাল খেলেছে। এমন আয়োজন অব্যাহত থাকবে বলেও জানান এ কর্মকর্তা। 

এরপর প্রতিমন্ত্রী মো. জাহিদ আহসান রাসেল এমপি আন্তঃ থানা পুলিশ সুপার গোল্ডকাপ ফুটবল টুনামেন্টের চ্যাম্পিয়ন  দল সুধারাম মডেল থানা ও রানার্সআপ কবিরহাট থানার খেলোয়াড়দেরকে ট্রফি তুলে দেন। 

এর আগে পুলিশ লাইন্সে বৃক্ষরোপণ ও মাছের পোনা অবমুক্ত করেন  প্রতিমন্ত্রী মো. জাহিদ আহসান রাসেল এমপি।  অনুষ্ঠানের পৃষ্ঠপোষক 

প্রধানমন্ত্রীর ব্যাক্তিগত সহকারী ও জেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য জাহাঙ্গীর আলম।  এছাড়া  নোয়াখালী-৪ আসনের (সদর-সুবর্ণচর) সংসদ সদস্য একরামুল করিম চৌধুরীর, নোয়াখালী জেলা প্রশাসক দেওয়ান মাহবুবুর রহমান, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুল ওয়াদুদ পিন্টু,  জেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক কমিটির আহ্বায়ক এইচ এম খাইরুল আনম চৌধুরী সেলিম, নোয়াখালী পৌরসভার মেয়র ও  আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক কমিটির যুগ্ন আহ্বায়ক সহিদ উল্যাহ খান সোহেল, আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক কমিটির যুগ্ন আহ্বায়ক এডভোকেট শিহাব উদ্দিন শাহিন, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান একেএম সামছুদ্দিন জেহান প্রমূখ পস্থিত ছিলেন।





আরো পড়ুন