• শনিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ০৯:১২ পূর্বাহ্ন




ব্যবসায়ী বসতঘরে  হামলা-ভাঙচুর, আটক ৩

/ ৪৮ বার পঠিত
আপডেট: রবিবার, ১৬ অক্টোবর, ২০২২
ব্যবসায়ী বসতঘরে  হামলা-ভাঙচুর, আটক ৩

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি:

 লক্ষ্মীপুরে সুমন হোসেনের বসত ঘরে দফায় দফায় হামলা চালিয়ে ভাঙচুর ও হালিমা বেগম নামে এক বৃদ্ধ নারী সহ ৩ জনকে পিটিয়ে আহত করা হয়েছে। এসময় নগদ টাকাসহ ২ লাখ টাকার স্বর্ণালংকার লুটে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে।

শুক্রবার (১৪ অক্টোবর) সকাল ১০:৩০ মিনিটের সময়  উপজেলার ৪নং চররুহিতা  ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের কাঞ্চনী বাজারের পাশে মনু মিয়া আমিন বাড়িতে ব্যবসায়ী সুমনের বসত ঘরে একদল লোক এ ঘটনা ঘটায়। এটি ডাকাতি বলে অভিযোগ করেছেন ভূক্তভোগীরা।

এদিকে চিৎকার শুনে আশপাশের লোকজন  ও গ্রাম পুলিশ নুরুজ্জামান, দুলাল,আরিফ ৩ জনকে আটক করে। পরে আটক ব্যক্তিকে ছাড়িয়ে নিতে এসে দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্রে সজ্জিত ২০-২৫ জনের একদল লোক ভোরে ফের হামলা চালায়।

আহতরা হলেন সুমন, রেনু আক্তার, হালিমা বেগম। পুলিশ ও ভূক্তভোগীরা জানায়, ঘটনার সময় ৮-৯ জনের একদল ‘ডাকাত’ সুমন বসত ঘরে ঢুকে পড়ে। ওই সময় রেনু  আক্তার গলা-কান থেকে স্বর্ণের চেইন-দুল ও আংটি ছিনিয়ে নেয়। এই সময় বাধা দিলে রেনুকে কাঠ দিয়ে পিটিয়ে গুরুত্বর আহত করে। তাদের চিৎকারে আশপাশের লোকজন গ্রাম পুলিশ জড়ো হয়ে ৩ জনকে আটক করে। পরে আটক ব্যক্তিকে ছাড়িয়ে নিতে দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্রে সজ্জিত ২০-২৫ জনের একদল লোক ফের এসে হামলা চালায়। হামলাকারীরা ঘরে থাকা নগদ ২ লাখ টাকা, ১টি পাসপোর্টও নিয়ে যায়। আটক ৩ ব্যক্তিকে পুলিশের কাছে সৌপর্দ করা হয়েছে। ১ রাসেদ অন্য ২জনের নাম-পরিচয় জানা যায়নি।

স্থানীয়রা জানায়, প্রতিবেশি মো: রাসেদ সঙ্গে সুমনেদের ১৮ শতাংশ জমি নিয়ে বিরোধ রয়েছে। এ ঘটনায় লক্ষ্মীপুর আদালতে মামলা চলমান। এর জের ধরেই রাসেদ ভাড়াটে লোকজন এনে সুমনের ঘরে হামলা করায়। হামলাকারীদের মধ্যে আটক ব্যক্তি ঘটনাটি স্বীকার করেছে।

হালিমা বেগম বলেন, জমি নিয়ে বিরোধের ঘটনায় উভয়পক্ষের আদালতে মামলা চলমান। পরিকল্পিতভাবে রাসেদ আমাদের ঘরে হামলা চালিয়েছে। এটি ডাকাতি। আমার ১ টি পাসপোর্ট নিয়ে গেছে ডাকাতরা। রাসেদ নির্দেশে ডাকাতি করতে এসেছে বলে আটক ব্যক্তি জানিয়েছে। এই ঘটনায় আমরা সুষ্ঠু বিচার চাই।

অভিযোগ অস্বীকার করে রাসেদ বলেন, আমার বাবার কেনা ১৮ শতাংশ জমি পরান ও তার বোনেরা দখল করেছে। এনিয়ে আদালতে মামলা চলছে। হামলার বিষয়ে আমি কিছু জানি না। যারা হামলা করেছে তাদেরকেও আমি চিনি না। তারা নিজেরাই পরিকল্পিতভাবে আমাকে ফাঁসানোর জন্য এসব ছড়িয়েছে।

লক্ষ্মীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোসলে উদ্দিন  বলেন, জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে হামলা ঘটনা ঘটেছে। এটি ডাকাতি নয়। ঘটনাস্থল গিয়ে পুলিশ উভয় পক্ষের সঙ্গে কথা বলেছে। এ ঘটনায় স্থানীয়রা গ্রাম পুলিশ ৩জনকে আটক করে আমাদের কাছে সৌপর্দ করেছে। ঘটনাটি তদন্তপূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।





আরো পড়ুন