• বুধবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ০৭:২৮ অপরাহ্ন




বিএনপির মহাসমাবেশ ঘিরে অঘোষিত অবরোধ দূর্ভোগে সাধারন মানুষ

/ ৬৩ বার পঠিত
আপডেট: রবিবার, ১৬ অক্টোবর, ২০২২
বিএনপির মহাসমাবেশ ঘিরে অঘোষিত অবরোধ দূর্ভোগে সাধারন মানুষ

ত্রিশাল(ময়মনসিংহ)প্রতিনিধিঃ
ময়মনসিংহে  ডাকা বিএনপির বিভাগীয় গণসমাবেশকে কেন্দ্র করে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের ত্রিশাল অংশে সকাল  থেকে গনপরিবহনসহ ছোট খাটো সকল পরিবহন বন্ধ রয়েছে। এতে চাকুরীজীবিসহ বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষকে চরম দুর্ভোগ পুহাতে হচ্ছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, সকাল থেকে কিছু বাস, ট্রাক,অটো, সিএনজি ময়মনসিংহমুখি যাত্রা করলে তাদের সড়কে আটকে দেওয়া হয়েছে। কোন পরিবহনকে ময়মনসিংহের দিকে যেতে দেওয়া হচ্ছেনা।আর ঢাকা মুখি কিছু পরিবহন ছেড়ে যাচ্ছে। গতকাল শুক্রবার সরকারী ছুটির দিন থাকায় অনেক কর্মজীবী মানুষ বাড়িতে এসেছিলেন। তারা সকাল থেকে দাড়িয়ে থেকে কোন পরিবহন না পেয়ে বেকায়দায় পড়েছেন। আবার অন্য দিকে বিএনপি কর্মী যারা মহাসমাবেশে যাবেন তারা কেউ কেউ রিকসা, ভ্যান ও অনেকেই পায়ে হেটেই রওনা হয়েছেন।

দরিরামপুর বাসস্ট্যান্ড এলাকায় আবু রায়হান, মুঞ্জুরুল ইসলাম, আছমা বেগমসহ কয়েকজন যাত্রীর সাথে কথা বললে তারা জানান,গত বৃহস্পতিবার ঢাকা থেকে বাড়িতে আসছি, আজকে চলে যাবো। সকাল ৫ টা থেকে দাড়িয়ে আছি কোন গাড়ী পাচ্ছিনা। আজকে তো কোন হরতাল নেই বা আগে থেকে গাড়ী বন্ধ থাকার কোন ঘোষনা দেই নাই। বিএনপির সমাবেশের কারনে গাড়ী বন্ধ করা হয়েছে। আমরা সময়মত অফিসে পৌছাতে না পারলে আজকের বেতন কেটে রাখবে। আগে জানলে বাড়িতে আসতাম না। সকাল থেকেই অনেকেই গাড়ীর জন্য অপেক্ষা করে চলে গেছে।
বিএনপি সমাবেশগামী সুমন, আপেল, দেলোয়ার, ইলিয়াস, হারুনসহ কয়েকজন কর্মীর সাথে কথা বললে তারা জানান, ত্রিশাল থানা পুলিশ ৭/৮ পুলিশের ব্যারিকেট দিয়ে রিকসা, ভ্যান, অটো, সিএনজি, ট্রাক থামিয়ে চেক করে সকলযাত্রীদের নামিয়ে দিচ্ছে। ত্রিশাল থানা পুলিশ উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে নিয়ে যৌথভাবে সরকারের পেটোয়া বাহিনীতে পরিণত হয়েছে। লগি, বৈঠা নিয়ে বিএনপির সমাবেশকে আটকানো যাবে না।
ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের ত্রিশাল অংশে অবস্থানরত বৈঠা হাতে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক উপজেলা ছাত্রলীগ, যুবলীগের কয়েকজন কর্মীর সাথে কথা বললে তারা জানান, সমাবেশের নামে বিএনপির নেতাকর্মীরা যাতে মহাসড়কে বিশৃংঙ্খলা সৃষ্টি করতে না পারে সেই জন্যে যানবাহন চলাচলে আমরা সহযোগিতা করছি।

ময়মনসিংহ শহরে চাকুরিরত কয়েকজন যাত্রী জানান, সকাল থেকে ময়মনসিংহ যাওয়ার জন্য কোন গাড়ী পাচ্ছিনা। এযেন অঘোষিত হরতাল বা অবরোধ। এই দুই দলের রেসানলে পড়ে আমাদের জান,মাল, পরিবার ধ্বংস হচ্ছে। রিকসা, ভ্যানে বাইপাস পর্যন্ত প্রতিযাত্রী একশ টাকা ভাড়া নিচ্ছে। বাকী পথ কিভাবে যাবো বুঝতে পারছিনা। সড়কে ছোট গাড়ী সিএনজিসহ কোন পরিবহননই চলতে দেওয়া হচ্ছেনা। আজকে যে অবস্থা একজন অসুস্থ রোগীকে হাসপাতালে নেওয়াও সম্ভব হবেনা।





আরো পড়ুন