• সোমবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ০৭:১৫ পূর্বাহ্ন




২০১৪ ও ২০১৮ সালের মতো আরেকটি নির্বাচন আওয়ামী লীগও চায় না

/ ২২ বার পঠিত
আপডেট: শুক্রবার, ৭ অক্টোবর, ২০২২
তোফায়েল আহমেদ

দেশে ২০১৪ ও ২০১৮ সালের মতো আরেকটি নির্বাচন হোক এটা আওয়ামী লীগও চায় না। সব দলকে সঙ্গে নিয়েই একটি অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের পক্ষে মত দলটির শীর্ষ স্থানীয় নীতি নির্ধারক মহলের। আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য তোফায়েল আহমেদ নিউজ টোয়েন্টিফোরকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এসব কথা জানান। সাক্ষাতকারটি গ্রহণ করেছেন শাহনাজ ইয়াসমীন

নিচে সাক্ষাতকারের কিছু অংশ তুলে ধরা হলো।  

নিউজ টোয়েন্টিফোর : তত্ত্বাবধায়ক সরকার নিয়ে আপনারা তুমুল আন্দোলন করেছিলেন। সেটার বিরুদ্ধে কথা বলতে এখন কেমন লাগে আপনাদের?

তোফায়েল আহমেদ : তত্ত্বাবধায়ক সরকার নিয়ে আমরা আন্দোলন করেছি। আমি নিজেও জেলখানায় গিয়েছি। আমাকে গ্রেফতার করে রাজশাহী কারাগারে পাঠিয়েছে। এগুলো সত্য। কিন্তু তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সেই দাবি আমরা আদায় করেছি।

কিন্তু ২০০১ সালে যে নির্বাচন হয়েছে সেটা তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আন্ডারে হলেও সঠিকভাবে হয়নি। আরপিওতে (গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ) আইনশৃঙ্খলা বাহিনী অর্থাৎ ‌’ল’ এনফোর্সমেন্ট বাহিনী সম্পর্কে একটি ডেফিনেশন ছিল। সেখানে আর্মি ছিল না। কিন্তু ক্ষমতায় এসেই সে আরপিও চেঞ্জ করে দিয়ে ‘ল’ এন্ড ফোর্সমেন্ট এজেন্সিতে আইন-শৃঙ্খলা সম্পর্কিত যে ধারণা ছিল সেখানে সেনাবাহিনী প্রবেশ করিয়েছে।
পরবর্তী সময় দেখা গেল যে, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনেও অনেক অঘটন ঘটে। সেজন্য আমরা যখন ২০০৮ সালে টু-থার্ড এরও বেশি মেজরিটি নিয়ে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় এসেছি তখন পার্লামেন্টে আমরা সেটা পরিবর্তন করেছি আমেন্ডমেন্টের মাধ্যমে।  

যে দলই ক্ষমতায় থাকুক না কেন তাতে ইলেকশনে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের প্রয়োজন আছে বলে আমি মনে করি না।  

নিউজ টোয়েন্টিফোর : ২০১৪ এবং ২০১৮ সালের মতো নির্বাচন কি আপনারা করতে পারবেন আবার? 
তোফায়েল আহমেদ : আমরা তো সে ধরনের নির্বাচন করতে চাই না। এখন কোন দল যদি নির্বাচনে অংশগ্রহণ না করে তাহলে সাংবিধানিক শূন্যতা হয়ে দেশে অরাজকতা হবে। সেটি তো আমরা করতে দেব না। কেউ নির্বাচন করুক আর না করুক নির্বাচন সংবিধান অনুযায়ী যথাসময়ে অনুষ্ঠিত হবেই।

নিউজ টোয়েন্টিফোর :২০১৮ সালে নির্বাচনের আগে বিএনপির সঙ্গে একটা সংলাপ বা সমঝোতার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছিল। এখন কি আপনারা সে ধরনের সংলাপ বা সমঝোতায় যাবেন? 
তোফায়েল আহমেদ : 
আমি তো মনে করি সংলাপের কোন প্রয়োজন নেই। একেবারে দৃঢ়তার সঙ্গে আমি বলতে পারি, নির্বাচন সংবিধান অনুযায়ী হবেই। এই নির্বাচন কেউ ঠেকাতে পারবে না। কেউ নির্বাচন করুক আর না করুক সেটা তার নিজস্ব দায়িত্ব।

তোফায়েল আহমেদের পুরো ইন্টারভিউ দেখার জন্য আজ রাত নয়টায় চোখ রাখুন নিউজ টোয়েন্টিফোরের পর্দায়।





আরো পড়ুন