• শুক্রবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২২, ০৫:৫৭ পূর্বাহ্ন




গুলি করে হত্যা মামলার চিহ্নিত প্রধান কামাল উদ্দিন-গাছ কামাল ও ইউসুফ আটক

/ ১২ বার পঠিত
আপডেট: রবিবার, ২ অক্টোবর, ২০২২
গুলি করে হত্যা মামলার চিহ্নিত প্রধান কামাল উদ্দিন-গাছ কামাল ও ইউসুফ আটক

ডেস্ক রিপোর্টঃ

ভুক্তভোগী নিহত ভিকটিম এনাম উদ্দিনের সাথে ধৃত আসামী কামাল উদ্দিন ওরফে গাছ কামাল এবং মোঃ ইউসুফ এর সহিত পারিপার্শ্বিক বিভিন্ন বিষয়ে নিয়ে অভ্যন্তরীণ কোন্দল চলে আসছিল। গত ১৯ জুলাই ২০২২খ্রিঃ তারিখ রাত আনুমানিক ১১.০০ ঘটিকায় ভিকটিম এনাম বসত ঘরের কক্ষে ঘুমানোর প্রস্তুতি নেওয়ার সময় কামাল উদ্দিন ওরফে গাছ কামাল এবং মোঃ ইউসুফ তাদের দলবল নিয়ে দরজায় এসে ভিকটিম এর নাম ধরে ডাকা-ডাকি করলে তখন ভিকটিম এর স্ত্রী রুনা আক্তার ঘরের দরজা খুলে এভাবে চিৎকার করে ডাকার কারণ জানতে চাওয়া মাত্রই তাকে ধাক্কা মেরে ফেলে দিয়ে দুস্কৃতিকারীরা তাদের হাতে থাকা আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে ভিকটিম এর ঘরের ভিতর প্রবেশ করে লাঠি দিয়ে ভিকটিমের বুকে উপর্যুপরি আঘাত করতে থাকে।

এক পর্যায়ে ভিকটিম মাটিতে পড়ে গেলে তার স্ত্রী রুনা আক্তার কৌশলে ঘরের বৈদ্যুতিক লাইট বন্ধ করে দিলে ভিকটিম এনাম আত্মরক্ষার্থে মাটি হতে উঠে ঘর থেকে বের হওয়ার চেষ্টাকালে ভিকটিমকে আটকানোর চেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে দুস্কৃতিকারীদের হাতে থাকা আগ্নেয়াস্ত্র এবং বাহিরে পূর্বপরিকল্পিতভাবে অবস্থানরত অপরাপর অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিরদের হাতে থাকা আগ্নেয়াস্ত্র দ্বারা ভিকটিমকে উদ্দেশ্যে করে এলোপাতাড়ী গুলি বর্ষণ করে। তখন ভিকটিম দিশেহারা হয়ে বাড়ির পাশর্^বর্তী জনৈক জাহাঙ্গীরের বসত ঘরে প্রবেশ করে খাটের নিচে লুকিয়ে আত্মরক্ষার চেষ্টা করে। কিন্তু ঘাতক পাষন্ড সশস্ত্র দুস্কৃতিকারীরা জাহাঙ্গীরের বসত ঘরে প্রবেশ করে খাটের নিচ হতে বের করে ভিকটিম এনামের ডান বুকের উপর গুলি করলে মাটিতে পড়ে ছটপট করকে থাকে।

পরবর্তীতে মৃত্যু নিশ্চিত করার জন্য বুকের উপর পা দ্বারা চাপ দিয়ে কপালে ও নাকের উপর গুলি করে যা মাথা ছিদ্র হয়ে মাথার বাম পাশের পিছন দিক দিয়ে বের হয়। তৎক্ষণাত এলাকার লোকজন ভিকটিমকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় ঘটনাস্থল হতে উদ্ধার করে রাজারহাট বাজারে উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিক্যাল অফিসার ডাঃ আশিষ কুমার সরকারের কাছে নিয়ে গেলে তখন ভিকটিম এনামকে পরীক্ষা করে মৃত ঘোষণা করেন। উক্ত ঘটনায় ভিকটিমের ছোট ভাই বাদী হয়ে চট্টগ্রাম জেলার রাঙ্গুনিয়া থানায় ঘটনার সাথে প্রত্যক্ষভাবে জড়িত ০৫ জন নামীয় এবং অজ্ঞাত নামা ৭/৮ জনকে আসামী করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। যার মামলা নং-০৭, তারিখ: ২০ জুলাই ২০২২খ্রি:, ধারা: ৩০২/৩৪ দ-বিধি।

বর্ণিত মামলাটি রুজু হওয়ার পর থেকে ঘটনার সাথে জড়িত আসামীদের গ্রেফতারের জন্য র‍্যাব-৭, চট্টগ্রাম ছায়াতদন্ত ও গোয়েন্দা নজরদারী অব্যাহত রাখে। এরই ধারাবাহিকতায় র‍্যাব-৭, চট্টগ্রাম এর একটি আভিযানিক দল গত ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২খ্রিঃ তারিখ ভোর আনুমানিক ৪.০০ ঘটিকায় চট্টগ্রাম মহানগরীর বায়োজিদ বোস্তামি থানাধীন ক্যান্টনমেন্ট রেলস্টেশন এলাকায় এবং চান্দগাঁও থানাধীন কাপ্তাই রাস্তার মাথা এলাকায় বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে হতে উক্ত মামলার এজাহার নামীয় ০২ নং অন্যতম প্রধান আসামী ১/ কামাল উদ্দিন ওরফে গাছ কামাল (৩৮), পিতাঃ মৃত বাদশা মিয়া ২/ মোঃ ইউসুফ (২৪), পিতাঃ মোঃ নুরুল ইসলাম, উভয় সাং-মাইশাবাম, থানাঃ দক্ষিণ রাঙ্গুনিয়া, জেলঃ চট্টগ্রামদ্বয়কে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়।

পরবর্তীতে উপস্থিত স্বাক্ষীদের সম্মুখে আটককৃত আসামীদের জিজ্ঞাসাবাদে উভয়ই উক্ত নির্মম ও নৃশংসভাবে হত্যা কান্ডের ঘটনার সাথে সরাসরি জড়িত ছিল মর্মে অকপটে স্বীকার করে। গ্রেফতারকৃত আসামী সংক্রান্তে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের নিমিত্তে চট্টগ্রাম জেলার সংশ্লিষ্ট থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।





আরো পড়ুন