• বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১০:৩৬ পূর্বাহ্ন
171764904_843966756543169_3638091190458102178_n

মোনাজাত ধরাই কাল হলো ডিসি মমিনুরের

/ ২ বার পঠিত
আপডেট: রবিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২২
ডিসি মমিনুর

জেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী প্রার্থীর পক্ষে মোনাজাত ধরেছিলেন চট্টগ্রাম জেলার ডিসি মমিনুর রহমান। গণমাধ্যমে সেই খবর প্রকাশের জেরে এবার জেলা পরিষদে নির্বাচনে রিটার্নিং অফিসারের পদ থেকে সরিয়ে দেয়া হলো তাকে।

রোববার (১৮ সেপ্টেম্বর) আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনের নিজ দফতরে নির্বাচন কমিশনার বেগম রাশেদা সুলতানা সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান। এসময় তিনি বলেন, চট্টগ্রাম জেলা পরিষদ নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক (ডিসি) মোহাম্মদ মমিনুর রহমানকে ভোটের দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। পরবর্তী সময়ে তার বিরুদ্ধে তদন্তপূর্বক শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হতে পারে।
তিনি বলেন, মমিনুর রহমানকে তার পদ থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে। শিগগিরই আপনারা জানতে পারবেন। ওনাকে আমরা সরিয়ে দেব। তাৎক্ষণিকভাবে অন্য কোনো শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া কঠিন। এ জন্য তদন্ত হতে হবে। এটা লঘু শাস্তি নয়। এ মুহূর্তে করণীয় একটাই, তাকে সরিয়ে দেয়া। তাকে সরিয়ে দিয়ে উপযুক্ত অন্য একজনকে নিয়োগ দেয়া।

উল্লেখ্য, জেলা পরিষদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিতে এলে ডিসি মমিনুর রহমান ওই প্রার্থীর পক্ষে মোনাজাত ও ভোট চেয়েছেন বলে অভিযোগ ওঠে। গণমাধ্যমে এমন খবর প্রকাশিত হলে নির্বাচন কমিশন তাকে সরিয়ে দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়।

এদিকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় প্রার্থী নির্বাচিত হওয়ার বিষয়ে ইসি রাশেদা সুলতানা বলেন, ‘বিদ্রোহী যারা আসছে তারা একই দলের। দীর্ঘদিন ধরে জেলা পরিষদ নির্বাচন নেই। এ অবস্থায় তো চলা যায় না। প্রশাসক আর নির্বাচিত প্রতিনিধির মধ্যে কিন্তু অনেক পার্থক্য আছে। মন্ত্রণালয় থেকে বলার পর আমরা নির্বাচন দিলাম। আমাদের কাজ শুধু নির্বাচনটা করা। তাই দলীয়ভাবে হচ্ছে কি না, সেটা দেখার দায়িত্ব আমাদের নয়। ‘

ইসি বলেন, ‘একজন দাঁড়াচ্ছে, আরেকজন দাঁড়াচ্ছেন না। কাজেই বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হওয়াটা বেআইনি নয়। আবার নির্বাচনে কেউ অংশ নিতে পারবে না, এমন অবস্থা তৈরি হয়েছে, তা তো নয়। আমরা চাচ্ছি সবাই নির্বাচনে আসুক। কিন্তু কেউ যদি না আসে, কেমন করে তাদের আমরা আনব।


আরো পড়ুন