• শনিবার, ০১ অক্টোবর ২০২২, ১০:৩৭ পূর্বাহ্ন
171764904_843966756543169_3638091190458102178_n

গ্যাস সরবরাহ পুরোপুরি বন্ধ করল রাশিয়া

/ ৩৬ বার পঠিত
আপডেট: বুধবার, ৩১ আগস্ট, ২০২২
1661908708-0000111

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ

ফ্রান্সে গ্যাস রপ্তানি বন্ধ করেছে রাশিয়া। ফ্রান্সের জ্বালানি ক্রয় ও বিতরণ বিষয়ক সরকারি কোম্পানি এঞ্জির বরাত দিয়ে এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে দেশটির জাতীয় দৈনিক লা ফিগারো। ফ্রান্সে গ্যাস সরবরাহ বন্ধের তথ্যটি স্বীকার করেছে রাশিয়ার গ্যাস অনুসন্ধান, উত্তোলন ও বিতরণ বিষয়ক সরকারি কোম্পানি গ্যাজপ্রমও।

এক বিবৃতিতে গ্যাজপ্রমের পক্ষ থেকে বলা হয়, ফ্রান্সের সরকারি কোম্পানি রুবলে গ্যাস কিনতে আপত্তি করায় ৩০ আগস্ট থেকে দেশটিতে গ্যাস সরবরাহ বন্ধ করা হয়েছে।

এঞ্জি’র পক্ষ থেকে বলা হয়, গ্যাজপ্রম তাদের জানিয়েছে যে, রুশ মুদ্রা রুবলে গ্যাসের মূল্য পরিশোধসহ চুক্তির কিছু শর্ত নিয়ে মতবিরোধের কারণে গ্যাস সরবরাহ বন্ধ করা হচ্ছে, যা মঙ্গলবার (৩০ আগস্ট) থেকেই কার্যকর হয়।

ফ্রান্সের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান এবং আবাসিক ভবনের জন্য গ্যাসের বৃহত্তম সরবরাহকারী হলো এঞ্জি। তাদের বড় প্রতিদ্বন্দ্বী ‘টোটালএনার্জিস’ এবং ‘ইডিএফ’।

ফিন্যান্সিয়াল টাইমস বলছে, ফ্রান্স দীর্ঘদিন ধরে জার্মানির মতো প্রতিবেশী দেশগুলোর তুলনায় রাশিয়ার গ্যাসের ওপর কম নির্ভরশীল। কিন্তু তারপরও অন্য সরবরাহকারীদের কাছ থেকে আমদানি বাড়িয়ে রাশিয়ার বিকল্প খুঁজতে শুরু করেছে দেশটি।

এদিকে সরবরাহ বন্ধ করার পর রাশিয়া গ্যাসকে ‘অস্ত্র’ হিসেবে ব্যবহার করছে বলে অভিযোগ করেছে ফ্রান্স। মঙ্গলবার ফরাসি জ্বালানিমন্ত্রী অ্যাগনেস প্যানিয়ের-রুনাচের বলেন, খুব স্পষ্টভাবে রাশিয়া গ্যাসকে যুদ্ধের একটি অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করছে। আরও খারাপ পরিস্থিতির জন্য আমাদের প্রস্তুত হতে হবে।

এর আগে, মেরামতের জন্য ৩১ আগস্ট থেকে ২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত তিনদিন গ্যাস সরবরাহ বন্ধের ঘোষণা দেয় রাশিয়ার গ্যাজপ্রম ও ইউরোপের সবচেয়ে বড় গ্যাস সরবরাহের পাইপলাইন নর্ডস্ট্রিম-১। তবে পশ্চিমা বিশ্বের অভিযোগ, পাইপলাইনের মেরামত নয়, রাশিয়া বর্তমান জ্বালানি সংকট নিয়ে খেলছে।


আরো পড়ুন