• রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ১১:২৭ পূর্বাহ্ন

লোকমান চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মিথ্যা সংবাদ প্রকাশে খালিয়াজুরী বাসীর প্রতিবাদ।

/ ২৯৮ বার পঠিত
আপডেট: সোমবার, ২১ অক্টোবর, ২০১৯

খালিয়াজুরী সংবাদ দাতাঃ- নেত্রকোনা জেলা খালিয়াজুরী উপজেলা মেন্দিপুর ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারের উদ্যোক্তা রফিকুল ইসলাম সুলতুর বিরুদ্ধে নানান অভিযোগ আসে। অভিযোগ সততা প্রমাণের জন্য মেন্দিপুর ইউনিয়নের জনপ্রিয় চেয়ারম্যান লোকমান হেকিম গোপনে তার অপকর্মের তথ্য সংগ্রহ করেন।

রফিকুল ইসলামের অপকর্মের সততা প্রমাণ পেয়ে গত ২১/০৮/২০১৯ইং তারিখে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের বরাবর একটি অভিযোগ দাখিল করেন চেয়ারম্যান লোকমান হেকিম। নির্বাহী অফিসারের দায়িত্ব থাকা এসিল্যান্ড সাহেব তদন্ত করেন।

বর্তমানে তাহার দুর্নীতি আরো বেড়ে যাচ্ছে, সে অনুযায়ী চেয়ারম্যান সাহেবের সচিব মুসা মিয়া বাদী হয়ে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে খালিয়াজুরী থানায় মামলা দায়ের করেন। পরদিন খালিয়াজুরীর থানা পুলিশ এসে নুপুর বোয়ালী বাজার হতে থাকে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠান।

মেন্দিপুর ইউনিয়নের সফল দু দুইবারের চেয়ারম্যান লোকমান হেকিম জানান, তাহার বিরুদ্ধে প্রায় ১৩০০ জন্ম নিবন্ধনে জালিয়াতি করার অভিযোগ রয়েছে। সে প্রায় ১৩০০ জন্ম সনদে আমার এবং সচিব এর স্বাক্ষর নিজেই প্রদান করেছে। তাছাড়া অনেকের নিকট হতে মোটা অংকের টাকা খেয়ে বয়স বাড়িয়ে/কমিয়ে দিয়ে সুবিধা ভোগ করেছে। জন্ম নিবন্ধনের আদায়কৃত অর্থ সরকারি কোডে চালান না দিয়ে প্রায় ৫৬,০০০/-টাকা সে আত্মসাদ করেছে।

বর্তমান তার আত্মীয়-স্বজন বিভিন্ন লোকে মুখে আমার বিরুদ্ধে নানান মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে আসছে। গেল ৩/১০/১৯ ইং তারিখে আমার ইউনিয়নের উদ্যোত্তা রফিকুল ইসলাম নেত্রকোনা আদালতে ও জেলা প্রশাসক বরাবর আমার ও সচিব এর বিরুদ্ধে মিথ্যা একটি অভিযোগ দেন। তার মিথ্যা অভিযোগ সততা না পাওয়ায় মাননীয় আদালত ও জেলা প্রশাসক আমলে না নিয়ে তার মিথ্যা অভিযোগ খারিজ করে দেন।
এর পুর্বেই রফিকুল ইসলাম এর কাছে থেকে নুরপুর বোয়ালীর লোকজন আমজাদ, নুরুল হক ও মুক্তিযুদ্ধের কমান্ডার নুরু ভাইসহ বিভিন্ন লোকজন সরকারি টাকা আদায়ের লক্ষে তার কাছে থেকে উক্ত টাকা আদায়ের চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়ে তারা উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর অভিযোগ দেন।

জনপ্রিয় সফল বর্তমান দুই দুইবারে চেয়ারম্যান, তুমুল জনপ্রিয় রাজনীতিবিদ লোকমান হেকিমকে ধ্বংস করতে চায় একটি চক্র, বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়া একটি চক্র নানান মানুষের মিথ্যা মন্তব্য নিয়ে অনলাইন প্রিন্ট এসব পত্রিকায় প্রচার করছে মিথ্যা সংবাদ, এলাকায় খোঁজ নিয়ে দেখাযায়, গুটি কয়েকজন হিংসুখেরা ছাড়া সবাই প্রশংসিত লোকমান হেকিমের।

ভাটি বাংলার রাজনীতিবিদ কুকিল কন্ঠের অধিকারী লোকমান হেকিম কথা বলতে বলতে গলাজড়িয়ে আসেন, তিনি বলেন, স্বপ্ন তো কত কিছু ছিল, কিন্তু সর্বগ্রাসী হিংসা আমার পিছু ছাড়লোনা। লোকমান হেকিম বলেন, বর্তমান একটি শুশাল মিডিয়া একটি দল আমার বিপক্ষের লোকের কিছু বক্তব্য নিয়ে আমার নামে মিথ্যা সংবাদ প্রচার করছে। সাংবাদিকরা হলো জাতির বিভেক সাংবাদিকদের সাথে আমি শ্রদ্ধা সম্মান রেখে কথা বলি।এই যে আমার নামে মিথ্যা সংবাদ প্রকাশ হচ্ছে এটা কি আমার সম্মানের প্রতিদান।

আপনিও একজন সাংবাদিক আপনিও এলাকায় যাচাই করে দেখুন আমি আজ পযন্ত কারো কাছ থেকে একটা টাকা আনছি কি না। মেন্দিপুর ইউনিয়ন সহ খালিয়াজুরী উপজেলা বিভিন্ন এলাকায় গুড়ে দেখা যায়, গ্রাম গঞ্জে হাটে বাজারে এলাকার মানুষেরা বলেন, লোকমান সাহেব একজন ভাল মনের মানুষ, তার মতো মানুষ আমাদের এলাকায় খুবি কমে মিলে। তার চলাফিরা ব্যবহার আমাদের মুগ্ধ করে দেয়, একটি চক্র তার পিছু লেগে থাকে বেকায়দায় ফেলে মানসম্মান মারার জন্য থাকে দংশ করতে চায়। এরকম লোকের প্রতি আমরা প্রতিবাদ ও নিন্দা জানাই।

মেন্দিপুর ইউনিয়নে প্রতি ওয়ার্ডে সরজমিনে পরিদর্শন কালে সাধারণ জনগণে বলেন, পরিষদের দায়িত্ব থাকা সুলতু আমাদের সাথে যে ব্যবহার আচরণ করেছে, আমরা সাধারণ জনগণ লোকমান চেয়ারম্যান কে অবগত করেছি। লোকমান চেয়ারম্যান দুর্নীতির প্রতিবাদ করতে গিয়ে সুলতুর লোকজন নাকি তার বিরুদ্ধে মিথ্যা সংবাদ প্রকাশ করায়, এসব মিথ্যা সংবাদের প্রতি আমরা নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।


আরো পড়ুন