• শুক্রবার, ০১ জুলাই ২০২২, ০৫:২৭ অপরাহ্ন
শিরোনাম
কলম যুদ্ধে নামছে দৈনিক “দেশবাংলা”র এক ঝাঁক পেশাদার সংবাদকর্মী একতা মানবিক সোসাইটির পক্ষ থেকে সিলেট বাসীর মাঝে ত্রান সামগ্রী বিতরণ সাপাহারে কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে কৃষি উপকরণ বিতরণ পাঁচবিবি পৌর নির্বাচনের বাছাই পর্বে প্রার্থীর সমর্থককে জোরপূর্বক উঠিয়ে নেওয়ায় প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন সাঁথিয়া ভূমি অফিসের ময়লার ভাগাড়ে প্রধানমন্ত্রীর ছবি মির্জাগঞ্জে মাহিন্দ্রা ট্রাক্টর উল্টে চালক নিহত ময়মনসিংহ পিবিআই এর অভিযানে অটোরিক্সাসহ চোরচক্র গ্রেফতার সাপাহারে কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে কৃষি উপকরণ বিতরণ নড়াইলে পিকআপের ধাক্কায় ইজিবাইক যাত্রীর মৃত্যু; পিকআপসহ চালক আটক করেছে পুলিশ নড়াইলে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে একজনকে কুপিয়ে খুন, আহত ৫; অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন

পিছিয়ে পরা নারী সমাজকে নিয়ে “ভয়েস অব ওমেন”এর বার্তা।

সোহাগ আরফিন, নিজস্ব প্রতিবেদক / ৪৪ Time View
Update : সোমবার, ২৩ মে, ২০২২

২০১৭ সালের ২৬ মার্চ “ভয়েস অব ওমেন” নামে বিভিন্ন পেশার নারীদের নিয়ে একটি অন লাইন গ্রুপ এর আত্মপ্রকাশ ঘটে। গ্রুপটি ক্রিয়েট করেন ইসরাত ইভা,তিনি পেশায় একজন গৃহিণী।

ভয়েস অব ওমেন সম্পর্কে জানতে চাইলে ইসরাত ইভা বলেন – সমাজের সুবিধা বঞ্চিত নারী এবং এতিম অসহায় বাচ্চাদের নিয়ে ১৭ সাল থেকেই ভয়েস অব ওমেন এর মাধ্যমে কাজ করে আসছি। সাড়াও পেয়েছি অনেক। বর্তমানে আমাদের সদস্য সংখ্যা ১০ হাজার ছাড়িয়ে গেছে। এবার বড় পরিধি নিয়ে কাজ করাই আমাদের লক্ষ্য। এ ছাড়াও আমরা বৃহৎ পরিসরে কিছু পরিকল্পনা করেছি যেমন-
অনলাইন সেলারদের জন্য একটা প্লাটফর্ম তৈরি করা। এতিম শিশুদের বৃত্তি প্রদান ও লেখাপড়ার দায়িত্ব গ্রহন। অসহায় ও সুবিধাবঞ্চিত নারীদের স্বাবলম্বী করতে প্রয়োজনীয় সহযোগিতা।
আশ্রয়হীন নারীদের নিরাপদ আশ্রয়ের জন্য বাসস্থানের ব্যবস্থা সহ একটা বৃদ্ধাশ্রম করা।

ইসরাত ইভা আরো বলেন, আমরা চাই আমাদের গ্রুপটিকে সাংগঠনিক রূপরেখায় নিয়ে আসতে যাতে করে সারা বাংলাদেশ ব্যাপী আমরা কাজ করতে পারি। এ জন্য চাই সকলের আন্তরিক সহোযোগিতা।

গ্রুপের কার্যক্রমের সাথে শুরুতে যারা জড়িত আছেন তাদের মধ্যে গ্রুপ এডমিন
রহিমা আক্তার বলেন – আমি একজন গৃহিণী। ক্ষুদ্র পরিসরে ভয়েস অব ওমেন গ্রুপ কে নিয়ে আমাদের যাত্রা শুরু হয়। সামাজিক এবং জনকল্যাণমূলক অনেক কর্মকাণ্ডই আমরা করেছি বিগত দিনগুলোতে। যেমনঃএতিম ও অসহায় বাচ্চাদের পাশে দাঁড়িয়েছি। করোনাকালীন সময়ে ১০০ পরিবারকে ত্রান দেয়া হয়েছে। ক্ষুদ্র থেকে বৃহৎ কিছু করার পরিকল্পনা আমাদের। এর জন্য চাই সকলের আন্তরিক সহযোগিতা। আমরা আরো ভালো কিছু করবো ইনশাআল্লাহ।

গ্রুপের মডারেটর মৌসুমী ইসলাম
বলেন – আমিও পেশায় একজন গৃহিনী।বিগত ৪ বছর ধরে আমি ভয়েস অব ওমেন গ্রুপ পরিবারের সদস্য। এই গ্রুপটি শুরু থেকে বিভিন্ন মানবিক কাজে সহযোগিতা করে আসছে। ভবিষ্যতে নারীদের নিয়ে অনেক অনেক ভালো কিছু করার ইচ্ছে আছে। আমরা নারী আমরা ইচ্ছে করলে সব করতে পারি এ লক্ষ্যে সামনে এগিয়ে যেতে চাই।

গ্রুপের আরেক মডারেটর
রোজী আহসান বলেন – আমি পেশায় একজন শিক্ষিকা, কুমিল্লা শহরে বসবাস করি। ভয়েস অব ওমেনের সাথে অনলাইনের মাধ্যমে আছি ২০১৭ সাল থেকে।
ভয়েস অব ওমেনের মুল স্লোগান ” আমরা নারী, আমরা সব পারি”
তারই ধারাবাহিকতা বজায় রেখে বিভিন্ন স্তরে মানবিক কাজের সাথে যুক্ত আছি আমরা। আগামীতে স্বপ্ন দেখি বৃহৎ পরিসরে কাজ করার। সকলের সহযোগীতা পেলে আমরা এগিয়ে যেতো পারবো ইনশাআল্লাহ।

গ্রুপের আরেক মডারেটর
রুকশানা রিপা বলেন – আমি
পেশায় একজন গৃহিণী,,
২০১৭ সাল থেকে আমি ভয়েস অব ওমেন পরিবারে আছি। প্রায় ১০ হাজারের ও বেশী মেম্বার নিয়ে আমাদের এই গ্রুপ।আমরা এই মহিলাদের সাথে নিয়ে বিভিন্ন সময় বেশ কিছু মানবিক কাজ করে আসছি, আমরা ভবিষ্যতেও আরও বড় পরিসরে মানবিক কাজ করতে চাই, সকলের সহযোগীতা আমাদের একান্তই কাম্য।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category