• শুক্রবার, ২৭ নভেম্বর ২০২০, ০৪:৩৯ অপরাহ্ন
Headline
করোনা ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট নিয়ে রিসার্চ হলে শেখ হাসিনার নাম সেখানে লেখা হবে: আ ক ম বাহাউদ্দীন বাহার গলাচিপার আমখোলায় বাস ও অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষ, নিহত ১ মৃত ব্যক্তির পরিচয় পেতে শেয়ার করুন! কৃষি পুনর্বাসন ও প্রণোদনা কর্মসূচিতে কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে বীজ ও সার বিতরণ। উজিরপুরে দক্ষিণ আহমেদ আলী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নব নির্মিত ভবন উদ্বোধ! “টুঙ্গিপাড়া বঙ্গবন্ধুর সমাধি’তে শ্রদ্ধাঞ্জলি জানান উত্তরা পূর্বথানা সেচ্ছাসেবক লীগ” পলাশ বাড়ীতে সরকারী খাদ্য ধান ও চাউল ক্রয়ের মূল্য নির্ধারণ, উদ্বোধন অনুষ্ঠান। রংপুরে  সিন্ডিকেটের নিয়ন্ত্রণে থাকা অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ,সড়ক প্রশস্তকরণ ও ড্রেন পুন:নির্মাণের দাবিতে “ঝালকাঠি নাগরিক ফোরামের উদ্যোগে করোনারোধে মাক্স ও লিফলেট বিতরণ” মালিকানাধীন ভূমির অধিকার ফিরে পেতে গৃহবধূর সংবাদ সম্মেলন! সাংবাদিকদের দাবী ও অধিকার রক্ষায় ১৪ দফার বিকল্প নেই: বিএমএসএফ

মুরাদনগরে ৩কিশোরকে নির্যাতনের অভিযোগে ইউপি চেয়ারম্যানসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে মামলাঃ আটক-২

Reporter Name / ৫৯ Time View
Update : সোমবার, ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

নিজস্ব সংবাদদাতাঃ
কুমিল্লা মুরাদনগর সন্দেহে তিন কিশোরকে চার দিন  আটকে রেখে নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় বুধবার উপজেলার কামেল্লা গ্রামের মৃত শহীদ মিয়ার ছেলে ইউপি সদস্য কামাল উদ্দিন ও গফুর চৌধুরীর ছেলে দরবেশ চৌধুরীকে আটক করে পুলিশ। নির্যাতনের শিকার জেলার হোমনা উপজেলার ওপার চর গ্রামের চান মিয়ার মিয়ার গ্রামের চান মিয়ার মিয়ার ছেলে আমানুল্লাহ(১৪), আনোয়ার হোসেনের ছেলে জাহাঙ্গীর আলম(১২) ও ওমর ফারুকের ছেলে আসাদুল্লাহ(১১)।

২০ সেপ্টেম্বর দুপুরে কামাল আহমেদ চৌধুরী জামে মসজিদের সামনে পরিত্যক্ত প্লাস্টিকের বোতল ঢুকানো অবস্থায় ওই তিন কিশোরকে চোর সন্দেহে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ফিরোজ খানের নেতৃত্বে ইউপি সদস্য কামাল উদ্দিন চৌধুরীসহ কয়েকজন লোক আটক করে।
আটক করার পর তাদের মারধর করে নান্টু ঠাকুরের বাড়ি নিয়ে যায়। সেখানেও তাদের কে দ্বিতীয় দফায় মারধর করা হয়। পরে সন্ধ্যায় তাদের কামাল্লা ইউনিয়ন পরিষদ ভবনের দ্বিতীয় তলায় একটি রুমে আটকে রাখা হয়।

ঘটনাস্থল থেকে আমানুল্লাহ মা আসমা বেগম কে ফোন করে আসতে বলা হয়।
খবর পেয়ে আসমা বেগম চেয়ারম্যানের সঙ্গে দেখা করেন। এ সময় ছেড়ে তাদেরকে দেওয়ার শর্তে, আসমা বেগমের কাছে জরিমানা বাবদ ৬০ হাজার টাকা দাবি করেন চেয়ারম্যান ফিরোজ খান। আসমা বেগম তার দারিদ্রতার কথা বলে তিন কিশোরকে খাবার খাওয়ানোর জন্য ২ হাজার টাকা দিয়ে যান। আর বলে যান তারা যদি কোন অপরাধ করে থাকে তাহলে তাদেরকে প্রয়োজনে আইনের হাতে তুলে দিন। কিন্তু আমি কোন টাকা দিতে পারবো না।

জরিমানা টাকা না পেয়ে চেয়ারম্যান ও তার লোকজন ২ হাজার টাকা ওই তিন কিশোরকে খাবার না দিয়ে উল্টো তাদেরকে মারধর করে আটকে রাখে। বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হলে খবর পেয়ে মুরাদনগর থানার এসআই নাজমুল আলমসহ একদল পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে সোমবার দুপুরে তিন কিশোরকে উদ্ধার করে। পরে আসমা বেগম বাদী হয়ে ওই দিন রাতেই ইউপি চেয়ারম্যান ফিরোজ খান, ইউপি সদস্য কামাল উদ্দিন, নান্টু ঠাকুর, দরবেশ চৌধুরীর নাম উল্লেখ করে থানায় একটি মামলা করেন।
অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ অভিযান চালিয়ে দুই জনকে গ্রেপ্তার করে। এবিষয়ে- মুরাদনগর থানার ওসি একেএম মনজুর আলম বলেন, এ ঘটনায় আসমা বেগম নামে এক কিশোরের মা বাদী হয়ে মামলা করেছেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category