• সোমবার, ৩০ নভেম্বর ২০২০, ০৫:০৭ পূর্বাহ্ন
Headline
গলাচিপা উপজেলার পৌরসভার সড়কের প্রস্ত কম হওয়ায় লাগাতার যানজট চরম ভোগান্তিতে জনসাধারণ ! স্বরূপকাঠির কৃতি সন্তান যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য হলেন আসাদুজ্জামান খান টুটুল ! কুমিল্লা বুড়িচংয়ে পুকুরে পড়ে এক শিশুর মৃত্যু ! কুমিল্লা ব্রাহ্মণপাড়ায় স্বতন্ত্র ও আ’লীগ প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে!আহত ( ৩) অফিস-গাড়ি ভাংচুর!  মানবাধিকার কর্মীর ব্যাতিক্রম সেবামুলক উদ্যোগ! ইপিজেড নির্মাণের জন্য গলাচিপা উপজেলায় মানববন্ধন ও রোডমার্চ ! সিএন্ডএফ মহাসচিব শিল্পপতি সুলতান হোসেন খানকে ঝালকাঠি নাগরিক ফোরামের অভিনন্দন ”চন্দনাইশে বিএমএসএফ আহবায়ক কমিটি গঠন” ”বিএমএসএফের কেন্দ্রীয় চতুর্থ কাউন্সিলের তারিখ ঘোষণা” অন্যতম একটি ব্রিজের জন্য গলাচিপা উপজেলায় জনগণের ভোগান্তির শেষ নেই !

সমাবেশ ছেড়ে পদ্মার পাড়ে ভ্রমণে ব্যস্ত বিএনপি নেতাকর্মীরা!!

Reporter Name / ৪৩ Time View
Update : রবিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

সৌমেন মন্ডল, রাজশাহী প্রতিনিধিঃ
বিএনপির রাজশাহী বিভাগীয় সমাবেশে চলছে কিন্তু কর্মিরা এসে পদ্মার পাড়ে ঘুরে বেড়াচ্ছেন অনেক নেতাকর্মী।

আর পদ্মার পাড় থেকে কিছুটা দূরে সমাবেশের মঞ্চে বক্তব্য দিচ্ছেন নেতারা। মঞ্চে আছেন বিএনপির মহাসচিব মীর্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, মীর্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায় প্রমুখ। বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসন তারেক রহমানের মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে আয়োজিত এই সমাবেশ উপলক্ষে রাজশাহী এসেছেন বিভাগের আট জেলার নেতাকর্মীরা। সমাবেশ শুরু হলেও এদের অনেকেই ঘুরে বেড়াচ্ছেন পদ্মা নদীর পাড়ে। কেউ কেউ যাচ্ছেন নৌকা ভ্রমণেও।

অনেকেই আবার বসে আছেন পদ্মার পাড়ের লালন শাহ মঞ্চে। এদের একজন পাবনার সাথিয়া পৌরসভার ৫ নম্বর ওয়ার্ডের কর্মী মনু মিয়া। তিনি বলেন, রাজশাহীতে এসে এই জায়গাটা খুব ভাল লাগছে। তাই আমরা কয়েকজন বসে আছি। পেয়ারা খাচ্ছি। পদ্মা নদীর একেবারেই পাড়ে কয়েকজন বসে ছিলেন চেয়ারে। তাদের মধ্যে ছিলেন রাজশাহীর কাটাখালি পৌরসভা বিএনপির সহসম্পাদক কায়সার হামিদ। তিনি বলেন, শহরে ঢোকার আগেই পুলিশ সিএনজি থেকে নামিয়ে দিয়েছে। এখানে আসতে কষ্ট হয়েছে। ক্লান্ত হয়ে গেছি। তাই বাতাসে একটু বসে আছি।

রাজশাহীর চারঘাট উপজেলার শলুয়া ইউনিয়নের চার নম্বর ওয়ার্ড যুবদলের যুবদলের সভাপতি রুবেল আলীকেও পাওয়া যায় পদ্মার পাড়ে। তিনি বলেন, জায়গাটা সুন্দর। কিন্তু সচরাচর আসা হয় না। তাই একটু বসে আছি। তবে গাড়ি না পেয়ে হেঁটে আসার কারণে ক্লান্ত হয়ে তিনি বসে আছেন বলে জানান রুবেল। রোববার দুপুর আড়াইটা থেকে সমাবেশ শুরু হয়েছে। এই সমাবেশে যোগ দিয়েছেন রাজশাহী বিভাগের আট জেলার নেতাকর্মীরা।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category