• বৃহস্পতিবার, ২১ জানুয়ারী ২০২১, ০৪:৩৯ অপরাহ্ন

‘নারায়ণগঞ্জের সব সাংবাদিকরে খাইয়া দিমু’ এমন বক্তব্যের প্রতিবাদ জানিয়েছে বিএমএসএফ

Reporter Name / ৬৪ Time View
Update : রবিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

নারায়নগঞ্জের সব সাংবাদিকরে খাইয়া দিমু’ ছাত্রলীগের এমন বক্তব্যের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম-বিএমএসএফ। রোববার বিএমএসএফ’র পক্ষ থেকে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে কেন্দ্রীয় সভাপতি শহীদুল ইসলাম পাইলট ও সাধারণ সম্পাদক আহমেদ আবু জাফর বলেন, সংগ্রাম আর গৌরবের ছাত্রলীগের দ্বারা এই ধরনের আচরণ সাংবাদিকরা আশা করেনা। অবিলম্বে আপনাদের এই বক্তব্যের জন্য ক্ষমা না চাইলে সারাদেশের সাংবাদিকরা এই বক্তব্যের প্রতিবাদে মাঠে নামবেন।

গত শনিবার নারায়নগঞ্জ তোলারাম কলেজে সৌরভ হোসেন সিয়াম নামের এক সাংবাদিককে প্রকাশ্যে পেটান নারায়নগঞ্জ মহানগর ছাত্রলীগের কয়েক নেতা। মহানগর ছাত্রলীগের পদধারী ওই নেতারা এক সাংবাদিককে পেটাতে পেটাতে বলতে থাকেন ‘এই কলেজেই পড়ো আবার সাংবাদিকতা করো। সততা দেখাও? নারায়ণগঞ্জের সব সাংবাদিকরে খাইয়া দিমু।’

ছাত্রলীগের ওই সকল নেতাদের উদ্দেশ্যে বিএমএসএফ’র পক্ষ থেকে বলা হয়েছে আপনারা কত খেতে পারেন? আপনারা দল ও সরকারের ভাবমূর্তি রক্ষায় কাজ করুন। সাংবাদিকদের সাথে খেলতে যাবেন না।

উল্লেখ্য, কয়েকদিন আগে তোলারাম কলেজে মার্কশিট তুলতে গিয়ে এক ছাত্রকে বেধড়ক পেটানোর ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়। সেটি নিয়ে স্থানীয় ও জাতীয় পত্রিকা ও অনলাইনগুলোতে সংবাদ প্রকাশিত হয়।

ওই সংবাদের জের ধরে তারা আমার ওপর হামলা করে নারায়ণগঞ্জ মহানগর ছাত্রলীগের প্রচার সম্পাদক পিয়াস প্রধান, সহ সম্পাদক তামিম, উপ সাংস্কৃতিক সম্পাদক মেহেদী প্রিন্স, তোলারাম কলেজ ছাত্র সংসদের লোক হিসেবে কলেজে পরিচিত মেহেদী হাসান প্রিন্স ও শাহরিয়ার পরশ (হৃদয়), সার্থক আহমেদ তোফা, শেখ হাবিবুর রহমান। সৌরভ জানান, এর আগেও গত বছরের ২৩ এপ্রিল সংবাদ প্রকাশের জেরে তোলারাম কলেজের ছাত্রছাত্রী সংসদ কক্ষের ভেতরে নিয়ে গিয়ে তাকে বেধরক মারধর করে। পিয়াস প্রধান, পরশ, মেহেদী। এ ঘটনায় ফতুল্লা মডেল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরিও করা হয়েছিল। জিডি নম্বরÑ ১৩৩২। তারিখ-২৪/০৪/২০১৮।

এদিকে আশুলিয়ায় ছাত্রলীগ সভাপতি শামীম ও তার পালিত ক্যাডার কর্তৃক মাইটিভি প্রতিনিধি আব্দুল্লাহ আল ওয়াহিদের ওপর অতর্কিত হামলার ঘটনায় সুষ্ঠু তদন্তপূর্বক বিচার দাবি করা হয়েছে। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে শামিমকে আটক করলেও অদৃ্শ্য কারনে তাকে কেন থানা থেকে ছেড়ে দেয়া হল তার কারন জানতে চেয়েছে বিএমএসএফ। পুলিশের উর্ধবতন কর্তৃপক্ষের নিকট আটক বানিজ্যের ব্যাপারে তদন্ত করারও দাবি করা হয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category