• রবিবার, ২৯ নভেম্বর ২০২০, ০৫:০৭ অপরাহ্ন
Headline
”চন্দনাইশে বিএমএসএফ আহবায়ক কমিটি গঠন” ”বিএমএসএফের কেন্দ্রীয় চতুর্থ কাউন্সিলের তারিখ ঘোষণা” অন্যতম একটি ব্রিজের জন্য গলাচিপা উপজেলায় জনগণের ভোগান্তির শেষ নেই ! উদযাপিত হলো ইচ্ছা মানব উন্নয়ন সংস্থার ৬ষ্ঠ বর্ষপূর্তি ও স্বেচ্ছাসেবী মিলনমেলা-২০ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্বপ্ন বাস্তবায়নের লক্ষ্যে সাদুল্যাপুর উপজেলার গৃহহীন মানুষদের সন্ধানে মাঠে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও ইউএনও কুমিল্লায় সড়ক দুর্ঘটনায় ২ তরুণ সংগঠক নিহত, আহত ১ শ্রীনগর পুরাতন ফেরীঘাট ফুটওভার ব্রীজের দাবীতে মানববন্ধন! ঢাকায় মাদ্রাসা ছাত্রদের উপর পুলিশের হামলা ও গ্রেফতারের প্রতিবাদে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বিক্ষোভ! ইসলামী আন্দোলনের আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে প্রার্থীর দোয়া ও সহযোগিতা কামনা কুমিল্লায় ভারতীয় শাড়ী পাচারকালে ৭জন গ্রেফতার

বানারীপাড়ায় ৭১ এর পাকহানাদার বাহিনীকে নিয়ে, আসে বিএনপি দলীয় সাবেক হুইপ জামালের বিচার দাবী!

Reporter Name / ৩২ Time View
Update : বুধবার, ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

রিপোর্টার সুমন খান:-
১৯৭১ সালে বানারীপাড়ায় প্রথম পাকহানাদার বাহিনীকে নিয়ে এসে হরিসভা মন্দিরে সভা করে পিস কমিটি গঠন করায় বানারীপাড়া-স্বরূপকাঠি আসনের বিএনপি দলীয় সাবেক সংসদ সদস্য ও সাবেক হুইপ সৈয়দ শহীদুল হক জামালের যুদ্ধাপরাধ ট্রাইব্যুনালে বিচার দাবী করেছেন মুক্তিযোদ্ধারা।

বুধবার বেলা ১১টায় বানারীপাড়া উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদে অনুষ্ঠিত মুক্তিযোদ্ধাদের মতবিনিময় সভায় তারা এ দাবী জানান।

মুক্তিযুদ্ধকালীণ বেজ কমান্ডার বেণী লাল দাস গুপ্ত বেণুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় অতিথি ছিলেন জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক ডেপুটি কমান্ডার কেএসএ মহিউদ্দিন মানিক বীর প্রতিক ও মুক্তিযুদ্ধকালীণ বানারীপাড়া থানা ফিল্ড কমান্ডার আলহাজ্ব কাজী হায়দার আলী। এছাড়াও বক্তৃতা করেন উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক সহকারী কমান্ডার মীর সাইদুর রহমান শাহজাহান, বানারীপাড়া সদর ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আইনুল হক, বাইশারী ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার জগন্নাথ, উদয়কাঠি ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার শাহ আলম, চাখার ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার সুলতান হোসেন, সৈয়দকাঠি ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার রফিকুল ইসলাম, সলিয়াবাকপুর ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার হাবিবুর রহমান ও ইলুহার ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মাষ্টার আ,সালাম, মুক্তিযোদ্ধা আ.লতিফ সরদার, আ.জলিল, ইসমাইল রাড়ী প্রমুখ।

সভায় জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক ডেপুটি কমান্ডার কেএসএ মহিউদ্দিন মানিক বীর ,মুক্তিযুদ্ধকালীণ বেজ কমান্ডার বেণী লাল দাস গুপ্ত বেণু ও মুক্তিযুদ্ধকালীণ থানা ফিল্ড কমান্ডার আলহাজ্ব কাজী হায়দার আলী তাদের বক্তৃতায় বলেন, ১৯৭১ সালে সৈয়দ শহীদুল হক জামাল সর্বপ্রথম বানারীপাড়ায় পাকহানাদার বাহিনী নিয়ে এসে বন্দর বাজারের হরিসভা মন্দিরে বসে তার ভগ্নিপতি আলী মিয়াকে সভাপতি ও আ.রব হাফেজকে সাধারণ সম্পাদক করে উপজেলা পিস কমিটি গঠন করেন। ঢাকার বাসায় স্ত্রী-সন্তানদের রেখে যুদ্ধের পুরো ৯ মাস শহীদুল হক জামাল বরিশালে অবস্থান করে নেপথ্যে থেকে পাকবাহিনীকে নেতৃত্ব দেন।

এরফলে পাকবাহিনী ও রাজাকার আলবদর আলশামসরা বানারীপাড়ার গাভা নরেকাঠি ও তালাপ্রসাদে গণহত্যা,বন্দর বাজারে অগ্নিসংযোগ,স্বরূপকাঠির সংখ্যালঘু অধ্যুষিত আটঘর-কুড়িয়ানা এলাকায় পেয়াবাগান কেটে ফেলা, লুটপাট, ধর্ষণ,হত্যা ও অগ্নিসংযোগের মাধ্যমে ব্যপক ধ্বংসযজ্ঞ চালায়।

এসব কারণে যুদ্ধাপরাধের বিচার ট্রাইব্যুনালের মাধ্যমে তদন্তপূর্ব সৈয়দ শহীদুল হক জামাল সহ অন্যান্য রাজাকারদের বিচার হওয়া উচিত বলে তারা মন্তব্য করেন। এসময় সভায় উপস্থিত মুক্তিযোদ্ধারাও একই দাবী জানান।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category