• বৃহস্পতিবার, ২৬ মে ২০২২, ০১:০১ অপরাহ্ন
শিরোনাম
২দিন আটকে রেখে টাকা না পেয়ে পিটিয়ে হাত ভেঙে কোর্টে চালান ওসিসহ ৪জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ; এলাকাবাসীর মানববন্ধন জয়পুরহাটে ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইন উপলক্ষ্যে জেলা পর্যায়ে সাংবাদিকদের ওরিয়েন্টেশন কর্মশালা জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন ২০২২ উপলক্ষে সাংবাদিকদের ওরিয়েন্টেশন কর্মশালা অনুষ্ঠিত যাত্রাবাড়ী থেকে ২২ কেজি গাঁজাসহ ০৪ জন মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার!  নবাবগঞ্জের ভাইয়ের হাতে ভাই হত্যা মামলার প্রধান আসামী জাহাঙ্গীর কবিরাজ গ্রেফতার ময়মনসিংহে হামলার শিকার কবি সাংবাদিক শরৎ সেলিম ,থানায় অভিযোগ জয়পুরহাটে ধানকাটাকে কেন্দ্র করে কুপিয়ে যখম  প্রতিপক্ষ আতাইকুলা থানায় ৬ লক্ষ পিচ শলাকা নকল আকিজ বিড়ির পিকআপসহ গাড়ী আটক- ৩ কেরাণীগঞ্জের চাঞ্চল্যকর স্বামীর হাতে প্রবাসী স্ত্রী হত্যা মামলার আসামী স্বামী নুরুল কালির বাজারে চেয়ারম্যান ইলেকট্রনিক্স পয়েন্ট ও চেয়ারম্যান সুপার সপের রেফেল ড্র অনুষ্ঠিত

রেল লাইনে বসে ব্রাশ করতে গিয়ে প্রাণ গেল যুবকের

অনলাইন ডেস্ক / ২৯ Time View
Update : শনিবার, ১৯ মার্চ, ২০২২

নীলফামারী সদরে ট্রেনে কাটা পড়ে আবারও এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। শনিবার (১৯ মার্চ) ভোর ৬টার দিকে সদর উপজেলার কুন্দপুকুর ইউনিয়নের মনসাপাড়া বউবাজার রেলস্টেশন এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে মরদেহ উদ্ধার করে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করেছে পুলিশ। নিহত যুবকের নাম লিমন আহমেদ (২৪)।

তিনি ওই এলাকার গুড়গুড়ি গ্রামের মনসাপাড়ার নুর উদ্দীনের ছেলে। সে দুই সন্তানের জনক। উত্তরা ইপিজেডের একজন শ্রমিক ছিল সে। করোনালীন সময়ে শ্রমিক ছাটাঁইয়ের কারণে তার চাকরি চলে যায়। এরপর সে একটি পিকআপের হেলপার হিসেবে কাজ করতো।

স্থানীয়রা জানায়, নিহত লিমন রেললাইনের ওপর বসে ব্রাশ করছিল এ সময় খুলনা থেকে ছেড়ে আসা চিলাহাটিগামী আন্তঃনগর সীমান্ত এক্সপ্রেস ট্রেন তার সামনাসামনি চলে আসে। ট্রেন দেখে লিমন উঠে দাঁড়ালেও ট্রেনের প্রচণ্ড বাতাসে তাকে ট্রেনের নিচে নিয়ে যায়। ঘটনাস্থলেই ট্রেনে কাটা পড়ে ছিন্ন বিছিন্ন  হয়ে যায় তার শরীর।

সৈয়দপুর রেলওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সফিকুল ইসলাম জানান, প্রাথমিক অনুসন্ধানে পারিবারিক কলহের জেরে এটি আত্মহত্যার ঘটনা বলে ধারণা করা হচ্ছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্টে প্রকৃত ঘটনা জানা যাবে। এ ব্যাপারে থানায় একটি ইউডি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

এর আগে গত বছরের ৮ ডিসেম্বর একই স্থানে থেকে চিলাহাটি থেকে খুলনাগামী খুলনা মেইল ট্রেনে কাটা পড়ে একই পরিবারের তিন শিশুসহ মারা যান চারজন।

ওই স্থানে রেললাইন পারাপারের জন্য একটি ফুটওভার ব্রিজ নির্মাণ করা হচ্ছিল। নির্মাণ কাজের জন্য ইট নিয়ে একটি ট্রাক এলে সেটি দেখতে যায় শিশুরা। এ সময় খুলনা থেকে ছেড়ে আসা চিলাহাটিগামী রকেট মেইল ট্রেন তাদের সামনাসামনি চলে আসে। পরে প্রতিবেশী শামীম ওই তিন ভাই-বোনকে বাঁচাতে গেলে তিনিও ট্রেনে কাটা পড়েন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category