• শুক্রবার, ২৭ নভেম্বর ২০২০, ০৬:০৯ পূর্বাহ্ন
Headline
করোনা ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট নিয়ে রিসার্চ হলে শেখ হাসিনার নাম সেখানে লেখা হবে: আ ক ম বাহাউদ্দীন বাহার গলাচিপার আমখোলায় বাস ও অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষ, নিহত ১ মৃত ব্যক্তির পরিচয় পেতে শেয়ার করুন! কৃষি পুনর্বাসন ও প্রণোদনা কর্মসূচিতে কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে বীজ ও সার বিতরণ। উজিরপুরে দক্ষিণ আহমেদ আলী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নব নির্মিত ভবন উদ্বোধ! “টুঙ্গিপাড়া বঙ্গবন্ধুর সমাধি’তে শ্রদ্ধাঞ্জলি জানান উত্তরা পূর্বথানা সেচ্ছাসেবক লীগ” পলাশ বাড়ীতে সরকারী খাদ্য ধান ও চাউল ক্রয়ের মূল্য নির্ধারণ, উদ্বোধন অনুষ্ঠান। রংপুরে  সিন্ডিকেটের নিয়ন্ত্রণে থাকা অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ,সড়ক প্রশস্তকরণ ও ড্রেন পুন:নির্মাণের দাবিতে “ঝালকাঠি নাগরিক ফোরামের উদ্যোগে করোনারোধে মাক্স ও লিফলেট বিতরণ” মালিকানাধীন ভূমির অধিকার ফিরে পেতে গৃহবধূর সংবাদ সম্মেলন! সাংবাদিকদের দাবী ও অধিকার রক্ষায় ১৪ দফার বিকল্প নেই: বিএমএসএফ

কুমিল্লায় মহাসড়কে তিনচাকার বাহনের পৃথক লেন নির্মাণের দাবীতে চালকদের মানববন্ধন।।

Reporter Name / ৫২ Time View
Update : বুধবার, ১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

আব্দুল্লাহ আল মামুন ভূঁইয়া(বাবু)-(কুমিল্লা জেলা প্রতিনিধি):ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পাশে থ্রি-হুইলার চলাচলের জন্য পৃথক লেন নির্মাণের দাবীতে কুমিল্লার চান্দিনায় মানববন্ধন করেছে চালক ও শ্রমিকরা।

বুধবার (১১ সেপ্টেম্বর)বেলা ১১টায় কুমিল্লা জেলার মহাসড়কের চান্দিনা উপজেলাধীন কাঠেরপুল এলাকায় ওই মানববন্ধন শেষে বিক্ষোভ মিছিল করে তারা। তাদের দাবীগুলো বাস্তবায়নের জন্য সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণ করে কুমিল্লা জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।
মানববন্ধনে কুমিল্লা উত্তর জেলা সিএনজি ও ব্যাটারী চালিত অটোরিক্সা মালিক চালক ঐক্য পরিষদ আহবায়ক ও জাতীয় জনমুক্তি পার্টির অাহবায়ক দক্ষিন দেবিদ্বার সুলতানপুরের শ্রমিক নেতা মো. মমতাজ উদ্দিন মজুমদার বলেন,‘রাস্তা আছে যেখানে,রিক্সা চলবে সেখানে। মহাসড়কের পাশে অনেক সংযোগ সড়ক আছে।যাত্রীরা বা পন্য পরিবহনে ওই সংযোগ সড়কগুলো থেকে স্টেশন এলাকায় পৌঁছতে সিএনজি-ব্যাটারী চালিত রিক্সা বা ভ্যানের বিকল্প নেই।

কিন্তু মহাসড়কের পাশে পৃথক লেন তৈরি না করে মহাসড়ক থেকে থ্রি-হুইলার নিষিদ্ধ করে জনদুর্ভোগ সৃষ্টি করা হয়েছে।যাত্রী ও পণ্য পরিবহনের জন্য বাধ্য হয়ে এবং চালকরা পেটের দায়ে রিক্সা নিয়ে মহাসড়কে উঠলেই তাদের রিক্সাগুলো নিয়ে যায় পুলিশ। গত চার বছরে শুধুমাত্র চান্দিনার ডাম্পিং গ্রাউন্ডে প্রায় সাড়ে ৩ হাজার সিএনজি ও ব্যাটারী চালিত অটোরিক্সাসহ প্যাডেল রিক্সা ফেলে রেখে সেগুলো নষ্ট করা হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন,কোন রিক্সা চালকই ধনী নয়।বিভিন্ন এনজিও থেকে লোন নিয়ে রিক্সা কিনে মাথার ঘাম পায়ে ফেলে জীবিকা নির্বাহ করে রিক্সা চালকরা।তাদের রিক্সাগুলো ডাম্পিং গ্রাউন্ডে ফেলে রেখে তাদেরকে আর্থিক ভাবে ক্ষতিগ্রস্থ করা হচ্ছে।

আমরা অবিলম্বে আটক সিএনজি ও ব্যাটারী চালিত রিক্সাগুলো শুধুমাত্র রেকার বিল নিয়ে ফেরত দিয়ে এবং মহাসড়কের পাশে থ্রি-হুইলার চলাচলে পৃথক লেন নির্মাণ করে প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা বাস্তবায়নের দাবী জানাচ্ছি।
এসময় একই বক্তব্য তুলে ধরে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তৃতা করেন শ্রমিক মজনুর রহমান,মনছুর আহমেদ,আবুল হোসেন প্রমুখ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category