• বুধবার, ২৩ জুন ২০২১, ১১:৩২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
ঐক্যবদ্ধের কারণে নির্বাচনে সাংবাদিক নির্যাতন হ্রাস পাচ্ছে: বিএমএসএফ সাংবাদিকদের নামে মামলা-হামলা নির্যাতনের প্রতিবাদে মানববন্ধন আলোচিত লক্ষ্মীপুর-২ আসনে আজ ভোট গ্রহন-উপ-নির্বাচনে নৌকার সাথে লাঙ্গলের খেলা মধুখালীতে দ্বিতীয় ধাপে ৪০ টি গৃহহীন পরিবার পেল প্রধানমন্ত্রীর উপহার  চুরি করতে গিয়ে গণপিটুনিতে মৃত্যু, চেয়ারম্যানকে জড়িয়ে হত্যা মামলা! নওগাঁর আত্রাইয়ে দেয়াল ধসে (৬) বছর বয়সী শিশুর মর্মান্তিক মৃত্যু ফোন দিলেই করোনা রোগীদের কাছে বিনামূল্যে যাবে অক্সিজেন সিলিন্ডার-পুলিশ সুপার মাছুম আহাম্মদ-ভূঞা সাংবাদিকদের পর্যবেক্ষন কার্ড প্রদানে গড়িমসির অভিযোগ বিগো লাইভ-ফ্রি ফায়ার-পাবজি-টিকটক বন্ধে লিগ্যাল নোটিশ বদলগাছীতে নির্মাণের এক সপ্তাহে বেহাল অবস্থা সড়কের,  ভেঙ্গে পড়ছে সড়কের দুপাড়

বিশ্ব জুড়ে মুসলিমদের নির্যাতিত হবার কারণ হলো শিক্ষা বিমুখিতা

অনলাইন ডেস্ক / ৪৫ Time View
Update : সোমবার, ১৭ মে, ২০২১

ফিলিস্তিন ইজরায়েলের যুদ্ধ ( আসলে যুদ্ধ না। এটা ইজরায়েল দ্বারা সংঘটিত গণহত্যা) বেশ কয়েকদিন ধরে চলছে।

প্রায় ২০০ ফিলিস্তিনিকে হত্যা করা হয়েছে, যার ৫৫ জনই শিশু।

যুক্তরাষ্ট্র এ ব্যাপারে ইজরায়েলকে “ নিজের আত্মরক্ষার অধিকার আছে” বলে গণহত্যার অধিকার নিশ্চিত করেছে। আবার এই যুক্তরাষ্ট্রই চীনের উইঘুনে মুসলমান নির্যাতন নিয়ে কঠিন ভাবে চিন্তিত।

আসলে তারা ( অথবা যে কেউ) কাউকে নিয়েই ততক্ষণ চিন্তিত হয় না, যতক্ষণ না সেখানে নিজের স্বার্থ থাকে।

মুসলিম বিশ্বের কিছু দেশ বেশ গলাবাজি করে প্রতিবাদ করেছে দেখা গেলো, কিন্তু তাদের কে বিশ্ব পাত্তা দেয় না। কারণ জাতি হিসেবে তারা বেশ মূর্খ। অর্থ এসব দেশের আছে। কিন্তু জ্ঞান নেই। তাই বিশ্বে তাদের মূল্যও নেই।

কাতার বিশ্বের সবচেয়ে ধনী দেশ, সৌদি একাই তেলের বাজার ওলোটপালট করে ফেলতে পারে। কিন্তু এসব দেশের কারোরই জ্ঞান নেই। তারা না পেরেছে বিজ্ঞান চর্চা করে নিজেদের জন্য হলেও নতুন জ্ঞান তৈরি করতে করতে, না পেরেছে সৃষ্ট জ্ঞানের সর্বোচ্চ ব্যবহার করতে ।

মুসলমানদের বিশ্ব জুড়ে নির্যাতিত হবার প্রধান কারণই হলো তাদের জ্ঞান এবং শিক্ষা বিমুখিতা। তারা টাংখুর উপরে প্যান্ট পরা নিয়ে যতটা চিন্তিত , তার হাজার ভাগের এক ভাগও চিন্তিত না নতুন কোনো ঔষধ তৈরিতে। তারা মেয়েদের হিজাব নিয়ে যতটা স্পর্শকাতর তার লক্ষ ভাগের এক ভাগও স্পর্শকাতর না, সেই মেয়েদের অংক শিখতে না পারার অধিকারের ব্যাপারে।

এসবের ফল ভোগ করছে ফিলিস্তিন- আফগানিস্তান – সিরিয়া- ইরান- ইরাক- লিবিয়া- ইয়েমেন। সামনে আরো দেশ ভোগ করবে।

আমরা কতটুকু দীর্ঘ  দাড়ি রাখা ঠিক তা নিয়ে গবেষণা করতে থাকি, আর তারা আমাদের দেশের দৈর্ঘ্য পরিবর্ত করে দিক।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category