লোহাগাড়ার এমপির ভাগ্নে ও ওসি তদন্ত জহিরের পরিচয়ের দাবীদার জুনায়েদের খুটির জোর কোথায়?

0
17

স্টাফ রিপোটার::- একাধিক হত্যা মামলা ও খুনের আসামী ও কুখ্যাত সন্ত্রাসী জুনায়েদ – বেশ কিছু দিন যাবৎ সংবাদ টিভির চট্টগ্রামের ব্যুরো চীফ মহিলা সাংবাদিক মরিয়ম খানমকে ফেইবুকে নানান ভাবে প্রেমের প্রস্তাব দিতেন ও খারাপ কাজে জড়াতে প্রস্তাব দিতেন মোহাম্মদ জুনায়েদ নামের এক প্রতারক। তার উদ্দেশ্য ছিল নারী সাংবাদিককে জিম্মি করে নানান ভাবে ব্যবহার করা সহ অর্থ হাতানো। তার প্রস্তাবে রাজী না হওয়াতে সে রাজী করাতে বাধ্য করানোর চেষ্টা শুরু করেন।মরিয়ম খানমের ফেইচবুক আইডিকে হুবুহু নকল করে আরেকটি আইডি তৈরি করেন। সংবাদ টিভির চ্যানেলের আইডি কার্ডের লগো দিয়ে শুরু করেন মরিয়ম খানম পরিচয়ে বিভিন্ন ভাবে অপপ্রচার সহ ছেলেদের সাথে খারাপ রিলেশন।

সংবাদ টিভির চেয়ারম্যান জুয়েল খন্দকার বিষয়টি জানতে পেরে মরিয়মের নামে ঐ ফেইগ আইডিতে এসএমএস দিলে পরে আইডিটি বন্ধ করে দেয়। আবারো আরেকটি আইডি তৈরী করেন সেই আইডিতে সংস্কার মূলক কথা বললে সংবাদ টিভির চেয়ারম্যানকে মেসেঞ্জারে ডাইরেক্ট কল করে প্রতারক মোহাম্মদ জুনায়েদ। চট্টগ্রামে লোহাগাড়ার থানার বর্তমান এমপির ভাগনি পরিচয়ে একাধিক প্রকাশে হত্যা মামলা সহ নানান খুনের আসামী, আমাকে কিছুই করতে পারবেন না বলে হুমকি দেন প্রতারক জুনায়েদ। শুধু তাই নয় নারী সাংবাদিক মরিয়মকে ইয়াবা দিয়েও ফাঁসাবেন বলে দাবী করেন। এক পর্যায়ে প্রতারক শিকার করেন যে, সে মরিয়মকে ফাঁসাতে চাইছিলেন তবে মরিয়মের ফোন নাম্বারটা বন্ধ করে দিতে হবে। তার কথা মতো ফোন নাম্বারটাও বন্ধ করে দিলে। পরের দিন আবারো মরিয়মের নামে আইডি খুললে প্রতারক মোহাম্মদ জুনায়েদের নামে ব্যক্তিকে খুজতে গিয়ে উঠে এসেছে চাঞ্চল্যকর তথ্যের আরো কিছু ফোন নাম্বার বিভিন্ন সময়ে আসা কল ও আমাদের টিম জুনায়েদ সহ তার সহপাঠী আরো কয়েকজন হ্যাকারের সন্ধান পেলে আমরা আরো জুড়ালো ভাবে মাঠে নামি এই চক্রকে ধরতে। সেই অনুসন্ধানে নেমে আমরা তার ও তার গ্রুপের গ্যাংদের ৫ টি নাম্বার বাহির করি ও মামলা দায়েল করি।

0176614337
01646476187
01885216915
01620700944
01888250371

এই নাম্বার গুলি দিয়ে লোহাগাড়া থানায় মামলা করা হলে নারী সাংবাদিক মরিয়ম খানমকে ফোন দেন প্রতারক চক্র ওসি তদন্ত জহির পরিচয়ে। এই নাম্বার থেকে ফোন দেন মরিয়ম খানমকে:- 01685032874 মরিয়ম খানমকে ওসি জহির পরিচয়ে কোথাও নিয়ে গিয়ে ক্ষতি করার একটা চেষ্টা ছিলো কিন্তু মরিয়ম খানমের কাছে ওসির নাম্বার সেইভ থাকাতে সন্দেহ হলে, মরিয়ম খানম আপনি ওসি তদন্ত জহির না বলে লাইন কেটে দিয়ে পরে ওসি জহিরকে ফোন দিলে পরে দেখা যায় যে, ওসি জহিরের পরিচয়ে মরিয়ম খানমকে ক্ষতি করার চেষ্টা চালাচ্ছিলেন প্রতারক মোহাম্মদ জুনায়েদ। আমাদের হাতে এই প্রতারক চক্রের ২ জনের ছবি এসেছে ও এসেছে মোট ৬টি নাম্বার। তবে আমাদের টিম-এর খুটির জোর কোথায় এর শেষ কোথায়! আমরা তা দেখতে চাই, কে এই এমপির ভাগিনা ওসি তদন্ত জহির পরিচয়ের দাবীদার?

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here