চট্টগ্রামে পিডিবির দুর্নীতি সংবাদ প্রকাশে সাংবাদিকের ওপর হামলা: বিএমএসএফ’র প্রতিবাদ।

0
70

ঢাকা ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৯: চট্টগ্রাম নগরীর ইপিজেড থানাধীন নয়ারহাট হালিশহর বিদ্যুৎ অফিসের এক কর্মচারীর বিরুদ্ধে পত্রিকায় দুর্নীতির সংবাদ প্রকাশিত হওয়ার জের ধরে সাংবাদিকদের ওপর দফায় দফায় হামলা চালিয়ে আহত ও অপহরণের চেষ্টা চালানো হয়। এ ঘটনায় বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরামের পক্ষ থেকে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে দোষিদের আইনের আওতায় আনার দাবি করা হয়েছে। মঙ্গলবার বিএমএসএফ’র কেন্দ্রীয় সভাপতি শহীদুল ইসলাম পাইলট ও সাধারণ সম্পাদক আহমেদ আবু জাফর ঘটনার সাথে জড়িত সন্ত্রাসি দূর্নীতিবাজ কর্মচারীদের গ্রেফতার করে বিচারের আওতায় আনার দাবি করেন।

ঘটনার বিবরণে জানাযায়, সিইপিজেড থানাধীন নয়ারহাট হালিশহর বিদ্যুৎ বিভাগের ৪র্থ শ্রেণীর কর্মচারী মোক্তার হোসেন এর বিরুদ্ধে পত্রিকায় দুর্নীতির সংবাদ প্রকাশ করায় প্রতিদিনের বাংলাদেশ পত্রিকার প্রতিনিধি মোস্তাফিজুর রহমানের উপর এ হামলার ঘটনা ঘটে। হামলায় আহত সাংবাদিক মোস্তাফিজুর রহমান সাংবাদিকদের বলেন; উক্ত বিদ্যুৎ অফিসের দুর্নীতিবাজ ৪র্থ শ্রেণীর কর্মকর্তা মোক্তার হোসেনের দুর্নীতির সংবাদ ধারাবাহিক পত্রিকায় প্রকাশ করায় মোক্তার ও তার ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসীরা সাংবাদিক মোস্তাফিজুর রহমানের উপর ক্ষীপ্ত হইয়ে দু দফায় হামলা চালায়। অবশেষে হামলাকারীদের হাত থেকে রেহাই পেতে ৯৯৯ ফোন করে তিনি প্রাণে রক্ষা পান। ঘটনার সূত্রে জানা যায় যে, অভিযুক্ত মোক্তার হোসেন দীর্ঘদিন যাবৎ নয়ারহাট বিদ্যুৎ অফিসে কর্মরত থেকে গ্রাহকদের সাথে প্রতারনার মাধ্যমে ভালো মিটারকে নষ্ট মিটার বলে উক্ত মিটার পরিবর্তনের নামে মোটা অংকের টাকা আদায় করার মতো অভিযোগ গ্রাহকরা উক্ত সাংবাদিক মোস্তাফিজুর রহমানের কাছে অভিযোগ দায়ের করলে তিনি উক্ত অভিযোগের ভিত্তিতে পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ করলে দুর্নীতির সাথে জড়িত মোক্তার ও তার বাহিনী ক্ষীপ্ত হইয়ে মোস্তাফিজকে খুঁজতে থাকে।

এক পর্যায়ে ১০/১২ জন সন্ত্রাসী লাঠিসোঠা ও দারালো অস্ত্র শস্ত্র নিয়ে সরকারী পদে কর্মরত থেকে সাংবাদিক মোস্তাফিজকে উপর এমন ন্যাক্কারজনক হামলা চালায়। তার উপর হামলা চালালে তিনি প্রাথমিক হামলার স্বীকার হয়ে স্থানীয় ইপিজেড থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। যার ডায়েরী নং: ৪৭১, তাং ০৯/০৯/২০১।

উল্লেখ্য যে, গত ৮ সেপ্টেম্বর উক্ত সাংবাদিক মোস্তাফিজ প্রতিদিনের মতো বাসা থেকে বেরিয়ে অফিসে যাওয়ার পথে পিডিবি’র কর্মচারী জামাতের শীর্ষ ক্যাডার মোক্তার ও তার সন্ত্রাসী বাহিনী সুকান্ত দাশ দল বল নিয়ে মোস্তাফিজের উপর হামলা চালিয়ে তাকে হত্যার চেষ্টা চালায় এ সময় স্থানীয় জনগণ বিষয়টি দেখতে পেয়ে ঘটনাস্থলে এগিয়ে এলে হত্যার উদ্দেশ্যে এগিয়ে আসা সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। পরে এলাকাবাসীর সহযোগিতায় আহত সাংবাদিককে প্রাথমিক চিকিৎসার পর থানায় এসে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

পরবর্তীতে গতকাল ৯ সেপ্টেম্বর দুপুরে সাংবাদিক মোস্তাফিজ উক্ত বিষয়টি আগ্রাবাদ বিদ্যুৎ অফিসের প্রধান প্রকৌশলী প্রবীর সেনকে অবগত করতে অফিসে গেলে সন্ত্রাসারী বিষয়টি টের পেয়ে ইপিজেড বিদ্যুৎ অফিস থেকে দল বল নিয়ে প্রধান প্রকৌশলীর অফিসে ওনার সামনে সাংবাদিক মোস্তাফিজের উপর হামলার চেষ্টা চালায় এ সময় তাদের হামলায় তিনি আহত হন, পরবর্তীতে বিষয়টি তিনি তাৎক্ষনিক ৯৯৯ ফোন করে জানালে কন্ট্রোল রুম থেকে স্থানীয় ডবলমুরিং থানাকে বিষয়টি অবগত করলে কর্তব্যরত থানার কর্মকর্তারা দ্রুত গতিতে ঘটনাস্থলে ছুটে এসে আগ্রাবাদ বিদ্যুৎ অফিসের প্রধান প্রকৌশলীর কক্ষ থেকে সাংবাদিক মোস্তাফিজকে উদ্ধার করে ইপিজেড থানায় হস্তান্তর করেন। এ বিষয়ে উক্ত আগ্রাবাদ বিদ্যুৎ অফিসের প্রধান প্রকৌশলী প্রবীর সেন সাংবাদিকদের বলেন অভিযুক্ত মোক্তার ও সন্ত্রাসী সুকান্তের বিরুদ্ধে দ্রুত আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here